মাননীয় মেয়র বেশি কথা বলার নেই : আশরাফুল কবির

প্রকাশিত: ১২:০৭ পূর্বাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ৯, ২০২০

মাননীয় মেয়র বেশি কথা বলার নেই : আশরাফুল কবির

আশরাফুল কবির ::  বেশি কথা বলার নেই। সবই দৃশ্যমান।অবকাঠামোগতো উন্নয়ন যেমন দৃশ্যমান,পাশাপাশি পরিবেশ বিপর্যয়ের চিত্রটাও দৃশ্যমান।একদম পরিস্কার।আমি অতি নগন্য একজন মানুষ।সহকর্মি,বন্ধুবান্ধব, আত্মীয় পরিজন সকলের ভালোবাসা আমাকে দায়ি করেছে, বানিয়েছে দায়বদ্ধ। আসল কথায় আসি।
কথকতা মনগহীনে!
একটি বলি,গতকাল দুপুরে সহযোদ্ধার দেয়া তথ্য, আমারই নগরের চৌহাট্রায় সিভিল সার্জন এবং সিলেট মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয় দেয়ালের ভিতর পুরোনো বেশ কয়েকটি গাছ কাটা হয়েছে। খবর শুনে সেখানে গিয়েতো আমি হতভম্ভ! চারদিকে ছড়ানো ছিটানো ক্ষতবিক্ষত বৃক্ষ,ডাল,তার ভিতরে আরো কতোশতো প্রাণ!
গাছগুলোকে হত্যা করা হল!
শ্রমিকরা জানালো মেয়রের নির্দেশে কাজ করছে তারা।তাদের কি বলবো,বলেন?
দৌড়ালাম মেয়র সন্ধানে। লম্বা প্রতিক্ষার পর পেলাম উনার দর্শন। গাছগুলো কেন কাটছেন প্রশ্নের জবাবে তিনি ঝটপট উত্তর দিলেন রাস্তা উন্নয়ন হবে। কিছুই করার নেই তার। খুব ব্যাস্ত তিনি। অনুষ্ঠানে যাবেন। কথা বাড়ালামনা আর।ফিরে আসতে হলো।
আসতে আসতে মনে প্রশ্ন জাগলো, মেয়র বা উনার বিশেষজ্ঞ গন কি বিশ্ব পরিস্থিতি দেখছেননা,শুনছেন না তারা? অষ্ট্রেলিয়া- আমাজানে আগুন,লাউয়াছড়া- সুন্দরবন ধ্বংস, ডেঙ্গু-করোনা মহামারিও তাদের দৃষ্টিতে পড়েনা?
মহাশয়গন,ভুলে গেলে চলবে না,আমার ঢাকা শহরও কিন্তু দুষণে চ্যাম্পিয়নের খ্যাতি পেয়েছে। উন্নয়ন হচ্ছে,বুঝলাম। তথ্যগত তথ্য দিতে না পারলেও তত্ত্বগত তথ্যে বুঝি, সবুজ শহর উন্নত হচ্ছে আর অধঃপতন হচ্ছে সবুজেরই। কালের স্বাক্ষী বৃক্ষ হত্যা হচ্ছে।তার বুক চিরে তৈরি হবে পিচঢালা রাস্তা। আপনারা শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত গাড়িতে চেপে ডানবাম দেখবেন আর বলবেন… ‘ওয়াও’!
অথবা, আমার মতো নগন্য পথিক দেখে বলবেন “হাউ পুওর ম্যান”!
শহরটা কেবল আপনাদের মতো বিলাসিদের জন্য, তাইতো?
ঠিক আছে,ঠিকই আছে মহাশয়…

শহরে পানির স্তর দিনের পর দিন নীচেই নাকি নামছে?
বাতাসে দুষণের পরিমান নাকি বাড়ছেই?
শহরের হাওর দিঘীর অস্থিত্ব সংকট ?
কতোশতো প্রশ্ন মনে।
আপনি আপনারা চাইলেই উত্তর না দিয়ে আমার কথা বাতাসে উড়িয়ে দিতে পারেন। আপনাদের ক্ষমতা আছে,আছে হাতিয়ার। যে হাতিয়ারের নাম উন্নয়ন!বেশি কথা বললেই বলে দিতে পারেন উন্নয়ন বিরোধী বলে।আপনারা সবই পারেন।
বিভাগীয় বন কর্মকর্তাকে জিজ্ঞেস করলাম। তার উত্তর আরো পরিস্কার,সিটি কর্পোরেশন রাস্তা প্রশ্বস্তকরনের জন্য বেশ কিছু গাছকাটার অনুমতি নিয়েছে। সেটা এখানকার গাছ কিনা তিনি তা বলতে পারবেননা।ছুটির দিনের সুবিধে।
কি আর করা,চলুক আপনাদের কর্মযজ্ঞ…
কেবল,আমি পথিককে দয়া করে জানান,প্রকৃতি ধ্বংস করে যে বিপর্যয় ডেকে আনছেন আপনারা, তার ছোবল থেকে শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত ঘর বা গাড়ি কি আপনায় নিরাপদ রাখতে পারবে মহাশয়…?

আর কথা না বাড়াই

মহামান্য!আমাদের কাছেতো উদাহরন আছে,সম্প্রতি আপনাদের অপরিকল্পিত কর্মকান্ডের। সেদিন আপনি ভুল স্বীকার করে কথা দিয়েছিলেন, ভবিষ্যতে বিশেষজ্ঞদের মতামত ছাড়া আর কোনো গাছ কাটা হবেনা।
আজ খুব জানতে মন চায়,আপনার সেই জ্ঞানী মানুষটি কে বা কারা, দয়া করে জানান।আমরা নাহয় আমাদের প্রশ্নের উত্তরগুলো সেখান থেকেই জেনে নেই… মাননীয় মেয়র

লেখক : সাবেক সভাপতি ইমজা সিলেট ও পরিবেশ কর্মী।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

আমাদের ফেইসবুক পেইজ