মাস্ক না পরায় বিমান থেকে নামিয়ে দেয়া হলো যাত্রীকে

প্রকাশিত: ১:১২ অপরাহ্ণ, জুন ২২, ২০২০

মাস্ক না পরায় বিমান থেকে নামিয়ে দেয়া হলো যাত্রীকে

অনলাইন ডেস্ক :; মাস্ক ব্যবহারে অস্বীকৃতি জানোর কারণে বিমান থেকে একজন যাত্রীকে নামিয়ে দেয়া হয়েছে। আমেরিকান এয়ারলাইনসের একটি ফ্লাইটে ঘটেছে এমন ঘটনা।

যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্ক থেকে গত ১৭ জুন টেক্সাসের ডালাস যেতে চেয়েছিলেন ওই যাত্রী। কিন্তু আমেরিকান এয়ারলাইনসের ফ্লাইট ১২৬৩ থেকে তাকে নামিয়ে দেয়া হয়।

ওই যাত্রী মুখে মাস্ক ব্যবহার করতে চাননি। ওই যাত্রীর দাবি, ফ্লাইটে মাস্ক দিয়ে মুখ ঢেকে রাখার কোনো আইন আমেরিকায় নেই।

অসুস্থ হলে ফেস মাস্ক ব্যবহার যদি অসুবিধার হয়, তা হলে তাকে চিকিৎসকের ব্যবস্থাপত্র দেখাতে বলেন কেবিন ক্রুরা।

তবে ওই ব্যক্তি তা দেখাতে পারেননি। তিনি উল্টো বলেন, ‘মাস্ক পরে থাকা কঠিন!’

যাত্রীর নাম ব্র্যান্ডন স্ট্রাকা। তিনি একসময়ের অভিনেতা ও হেয়ারস্টাইলিস্ট। টুইটারে ওই ব্যক্তির ভেরিফায়েড অ্যাকাউন্ট আছে।

নিউইয়র্কের লাগোয়ার্ডিয়া বিমানবন্দর থেকে তিনি টুইট করেছেন, ‘মাস্ক না পারায় আমাকে ফ্লাইট থেকে নামিয়ে দেয়া হয়েছে। এবারই প্রথম এমন ঘটনা ঘটল। যদিও এটি আমেরিকান আইন নয়। আমেরিকান এয়ারলাইনসের কেবিন ক্রুরা দাবি করছিলেন এটিই আইন। যখন বুঝিয়ে দিলাম আইনে মাস্ক পরার বাধ্যবাধকতা নেই, তখনই আমাকে বিমান থেকে নামিয়ে দেয়া হয়।’

আমেরিকান এয়ারলাইনস কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, যাত্রীদের জন্য মুখ ঢেকে রাখার প্রয়োজন না ফুরানো পর্যন্ত ব্র্যান্ডন স্ট্রাকাকে নিষিদ্ধ রাখা হবে।

গত ১৫ জুন আমেরিকান এয়ারলাইনস যাত্রীদের মুখ ঢেকে রাখার নিয়ম ঘোষণা করে।

এতে বলা হয়, মুখ ঢেকে রাখতে কোনো যাত্রী আপত্তি জানালে ফ্লাইটে নেয়া হবে না। এমনকি ভবিষ্যতে তার ভ্রমণ নিষিদ্ধ করা হতে পারে। শুধু অসুস্থ, শিশু ও খাবারের সময় মাস্ক ব্যবহারের প্রয়োজন নেই।

তথ্যসূত্র: বিবিসি

সংবাদ অনুসন্ধান ক্যালেন্ডার

আমাদের ফেইসবুক পেইজ