‘মিট দ্য এডিটর’ অনুষ্ঠানে মুস্তাফিজ শফি তরুণদের হাত ধরেই সাংবাদিকতা এগিয়ে যাবে

প্রকাশিত: ১০:০০ অপরাহ্ণ, জুলাই ২, ২০১৯

‘মিট দ্য এডিটর’ অনুষ্ঠানে মুস্তাফিজ শফি তরুণদের হাত ধরেই সাংবাদিকতা এগিয়ে যাবে

আগামী দিনের সাংবাদিকতার চ্যালেঞ্জ তুলে ধরে দৈনিক সমকালের ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক মুস্তাফিজ শফি বলেন, সাংবাদিকতায় সব সময়ই চ্যালেঞ্জ ছিল। চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করেই সাংবাদিকদের এগিয়ে যেতে হয়। অনলাইনের যুগে সাংবাদিকতায় যেমন নতুনত্ব এসেছে, আবার নানা রকম প্রতিবন্ধকতাও সামনে এসেছে। তবে যত চ্যালেঞ্জই থাকুক, তরুণরাই সাংবাদিকতাকে এগিয়ে নেবে। তরুণদের মতামতকে গুরুত্ব দিতে হবে। এটা করা গেলে সাংবাদিকতা এগিয়ে যাবেই।

মঙ্গলবার স্টামফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের মিডিয়া স্টাডিজ ও সাংবাদিকতা বিভাগে স্টামফোর্ড ইউনিভার্সিটি সাংবাদিক ফোরামের উদ্যোগে ‘মিট দ্য এডিটর’ অনুষ্ঠানে সাংবাদিকতার শিক্ষার্থীদের মুখোমুখি হন মুস্তাফিজ শফি। মফস্বল ও ঢাকায় মাঠপর্যায়ে কাজ করতে গিয়ে অর্জিত অভিজ্ঞতার কথা এ সময় তিনি শিক্ষার্থীদের সামনে তুলে ধরেন।

মুস্তাফিজ শফি বলেন, তরুণদের হাত ধরেই সাংবাদিকতায় অনেক নতুনত্ব আসবে। একটা সময়ে হয়তো পত্রিকার গুরুত্ব কমে যাবে। তবে সাংবাদিকতা সবকালেই টিকে থাকবে। মোবাইল জার্নালিজম, ডাটা জার্নালিজমসহ আরও নতুন নতুন বিষয় সাংবাদিকতায় যুক্ত হবে। সে জন্য তরুণদের দক্ষ হয়েই এ পেশায় আসতে হবে। যাদের ভেতরে চ্যালেঞ্জ নেওয়ার মনোবৃত্তি আছে, শুধু তাদেরই এ পেশায় আসা উচিত।

আলোচনার একপর্যায়ে শিক্ষার্থীদের নানা প্রশ্নের জবাব দিয়ে তাদের কৌতূহল মেটান সমকালের ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক। একপর্যায়ে শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা সম্পাদকের কাজ, ভালো সাংবাদিক হতে হলে কী গুণ থাকা উচিত, সাংবাদিকতার নানা কলাকৌশল জানতে চেয়ে প্রশ্ন করেন তাকে। সাংবাদিকতা বিভাগের চেয়ারম্যান কাজী আব্দুল মান্নানসহ কয়েকজন শিক্ষকের কাছ থেকেও আসে প্রশ্ন। সমকালের ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক একে একে সব প্রশ্নের জবাব দেন। তিনি বলেন, একটি সংবাদমাধ্যমকে এই প্রতিযোগিতার বাজারে স্থান করে নিতে সবচেয়ে বেশি প্রয়োজন দক্ষ কর্মীবাহিনী। দক্ষতার সঙ্গে সে কর্মীদের পরিচালনা করার বিষয়টিও জরুরি।

আলোচনার এ পর্যায়ে এসে সাংবাদিকতার তরুণ শিক্ষার্থীদের এ দেশের রাজনৈতিক, সাংস্কৃতিক ও গণমাধ্যমের ইতিহাস ভালোভাবে জানার ওপর গুরুত্ব দেন মুস্তাফিজ শফি। পেশাদারিত্বের ওপর জোর দিয়ে তিনি বলেন, তোমাদের মাঝে প্রচণ্ড আত্মবিশ্বাস থাকতে হবে। আর থাকতে হবে প্রশ্ন করার ক্ষমতা। প্রচুর পড়তে হবে।

স্টামফোর্ড ইউনিভার্সিটি সাংবাদিক ফোরামের সভাপতি ছাইফুল ইসলাম মাছুম অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন। প্রথম পর্ব উপস্থাপনা করেন ফোরামের অর্থ সম্পাদক হাসান ওয়ালী এবং দ্বিতীয় পর্ব উপস্থাপনা করেন ফোরামের কো-কনভেনর সহকারী অধ্যাপক সৈয়দা আখতার জাহান। এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন সমকালের সহকারী সম্পাদক ও সুহৃদ সমাবেশের প্রধান সিরাজুল ইসলাম আবেদ, সহকারী অধ্যাপক সামিয়া আসাদী, তপন মাহমুদ, তানিয়া সুলতানা, শবনম জান্নাত, প্রভাষক নওশিন জাহান, সমকালের সহ-সম্পাদক জাহিদুর রহমান ও ফোরামের সাধারণ সম্পাদক সানমুন আহমেদ। অনুষ্ঠানে মুস্তাফিজ শফির হাতে তুলে দেওয়া হয় শুভেচ্ছাস্মারক।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

আমাদের ফেইসবুক পেইজ