মেসিকে কেনার দৌড়ে ৩ ক্লাব এগিয়ে

প্রকাশিত: ৪:৪২ অপরাহ্ণ, আগস্ট ২৬, ২০২০

মেসিকে কেনার দৌড়ে ৩ ক্লাব এগিয়ে

অনলাইন ডেস্ক :

মঙ্গলবার রাত থেকে সব খবর ছাপিয়ে একটিতেই চোখ আটকে গেছে ফুটবলপ্রেমীদের। তা হলো- বার্সেলোনা ছাড়ছেন মেসি!

যদিও এখনও আইনি প্রক্রিয়ায় বিষয়টি সমাধানে আরও অনেকটা পথ বাকি।

এদিকে মেসির বার্সা ছাড়ার চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেয়ার খবরে স্প্যানিশ গণমাধ্যমগুলো এখনও মেসিময়।

মেসি কেন বার্সা ছাড়ছেন? বার্সায় মেসির ক্যারিয়ারসহ ক্লাবটির প্রেসিডেন্ট ও কর্মকর্তার সঙ্গের মেসির সাম্প্রতিক দ্বন্দ্বের কথাও উঠে আসছে একের পর এক।

তবে এসব খবরের মধ্যে শিরোনামে রয়েছে যেগুলো– বার্সা ছেড়ে কোন ক্লাবের ছায়ায় নিজেকে সিক্ত করতে যাচ্ছেন মেসি? কার শিষ্যত্ব বরণ করে নেবেন তিনি? মেসিকে কেনার দৌড়ে কোন ক্লাব এগিয়ে?

ইউরোপের ফুটবলের জনপ্রিয় গণমাধ্যম গোলডটকম ও প্রসিদ্ধ স্প্যানিশ ক্রীড়া দৈনিক মার্কার প্রতিবেদন বলছে, মেসিকে নিজের দলে ভেড়াতে মুখিয়ে আছে অনেক ক্লাব। তবে এদের মধ্যে দৌড়ে সবচেয়ে বেশি এগিয়ে আছে তিন ক্লাব– ইংলিশ ক্লাব ম্যানচেস্টার সিটি, ইতালিয়ান ক্লাব ইন্টার মিলান ও ফ্রেঞ্চ ক্লাব প্যারিস সেইন্ট জার্মেই।

মেসির ইন্টার মিলানে যোগদানের পেছনে তিনটি কারণ খুঁজে পেয়েছে মার্কা।

১. মেসিকে দলে নেয়ার জন্য সবসময়ই উদগ্রীব ইন্টার মিলান। ইউরোপিয়ান ফুটবলে ট্রান্সফারের রেকর্ড গড়ে হলেও মেসিকে চান তারা। মেসিকে পেতে ২৬০ মিলিয়ন ইউরো (বাংলাদেশি মুদ্রায় ২৬০০ কোটি টাকা) পর্যন্ত খরচ করতে রাজি আছে ক্লাবটি।

২. ক্লাবটিতে যোগ দিলে প্রতিদ্বন্দী জুভেন্টাসের ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডোর সঙ্গে মাঠে চ্যালেঞ্জ ছুড়তে পারবেন মেসি। বার্সেলোনা ও রিয়াল মাদ্রিদের যুদ্ধ তখন ইন্টার- জুভিতে রূপ নেবে।

৩. ইতালিয়ান সংবাদমাধ্যমে প্রকাশ, সম্প্রতি মিলানের পোর্তা নুয়োবা এলাকায় বাড়ি কিনেছেন মেসির বাবা। যা ইন্টারের খুব কাছেই। সে হিসাবে মেসিও থাকতে যাচ্ছেন ইন্টারের কাছাকাছি সেই এলাকায়।

মেসি ম্যানচেস্টার সিটিতেই যোগ দেবেন এমনটি দাবি অনেক ভক্তের। এর পেছনের কারণ তিনটি।

১. ক্লাবটির কোচ পেপ গার্দিওলা যখন বার্সেলোনায় ছিলেন, সময়টি ছিল মেসির স্বর্ণযুগ। ক্যারিয়ারের সেরা সময়টা গার্দিওলার অধীনেই কেটেছে মেসির। তাই ক্যারিয়ারের পড়ন্ত বিকালে পুরনো গুরুর কাছেই মেসি ফিরবেন ধারণা অনেকের।

সংবাদ অনুসন্ধান ক্যালেন্ডার

MonTueWedThuFriSatSun

আমাদের ফেইসবুক পেইজ