মেয়াদ বাড়লো সিসিকের ‘স্যানেটারি ল্যান্ডফিল’ প্রকল্পের

প্রকাশিত: ৬:০৪ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ১৯, ২০২০

মেয়াদ বাড়লো সিসিকের ‘স্যানেটারি ল্যান্ডফিল’ প্রকল্পের

 

নিজস্ব প্রতিবেদক :: মহামারি করোনাভাইরাসের কারণে পিছিয়ে গেলো সিলেট দক্ষিণ সুরমার লালমাটিয়ায় ‘স্যানেটারি ল্যান্ডফিল’ নির্মাণকাজ। সিলেট সিটি করপোরেশন এলাকার বর্জ্য ব্যবস্থাপনার ক্ষেত্রে সিলেট-ফেঞ্চুগঞ্জ সড়কের লালমাটিয়ায় এই ‘স্যানেটারি ল্যান্ডফিল’ নির্মাণের উদ্যোগ নিয়েছিলো সিসিক।

এই প্রকল্পের অর্থ যোগানদাতা বিশ্বব্যাংক চলমান পরিস্থিতি বিবেচনায় কাজের মেয়াদ বৃদ্ধি করেছে। তথ্যটি জানিয়েছেন সিসিক মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী।

গত ২৮ সেপ্টেম্বর সিলেট সিটি করপোরেশন কর্তৃপক্ষ ৭৪৩ কোটি ৫৫ লক্ষ ৯৩ হাজার টাকার বাজেট ঘোষণা করেছে। ভার্চ্যুয়াল সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে ২০২০-২০২১ অর্থবছরের এ বাজেট পেশকালে সিসিক মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী বলেন, ‘বর্জ্য ব্যবস্থাপনার ক্ষেত্রে নগরবাসীর জন্য সুসংবাদ হচ্ছে, প্রিজম বাংলাদেশ এর উদ্যোগে এবং সিটি কর্পোরেশনের অর্থায়নে ক্লিনিকেল ও মেডিকেল বর্জ্যকে বৈজ্ঞানিক পদ্ধতিতে ডাম্পিং করার জন্য অটোক্ল্যাপ প্রযুক্তির নির্মাণকাজ সম্পন্ন হয়েছে এবং মাননীয় পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন এমপি এই প্রযুক্তির উদ্বোধন করেছেন।

তবে দক্ষিণ সুরমার লালমাটিয়ায় বিশ্বব্যাংকের অর্থায়নে নির্মাণাধীন স্যানেটারী ল্যান্ডফিল নির্মাণ কাজ করোনা মহামারির প্রতিবন্ধকতার কারণে বন্ধ আছে। পরিস্থিতি বিবেচনা করে বিশ্বব্যাংক এই কাজের মেয়াদ ২০২১ সালের জুন পর্যন্ত বর্ধিত করেছেন। ৬০ কোটি টাকা ব্যয়ে এই প্রকল্পের কাজ সম্পন্ন হলে তরল বর্জ্যরে কারণে পরিবেশ দূষণের মাত্রা অনেকাংশে হ্রাস পাবে বলে আমরা প্রত্যাশা করছি।’

জানা গেছে, সিলেট সিটি করপোরেশন এলাকায় প্রতিদিন ২০০ থেকে ২৫০ মেট্রিক টন বর্জ্য উৎপাদন হয়। এসব বর্জ্য নিয়ে ফেলা হয় দক্ষিণ সুরমার লালমাটিয়ায় ডাম্পিং গ্রাউন্ডে। প্রায় ১৫ একর আয়তনের এই গ্রাউন্ডের আধুনিকায়নে কাজ শুরু হয় কয়েক বছর আগে। ইতোমধ্যে মেডিকেল বর্জ্য ডাম্পিং করার জন্য অটোক্ল্যাপ প্রযুক্তির নির্মাণকাজ শেষ হয়েছে।

একই সঙ্গে অত্যাধুনিক উপায়ে গ্রাউন্ডেই বর্জ্য ব্যবস্থাপনার জন্য নির্মাণ হচ্ছে ‘স্যানেটারি ল্যান্ডফিল’। এতে অর্থায়ন করেছেন বিশ্বব্যাংক। প্রকল্পে ব্যয় হচ্ছে ৬০ কোটি টাকা। এ প্রকল্পের কাজ শেষ হলে ডাম্পিং এলাকায় তরল বর্জ্যের কারণে পরিবেশ দূষণের মাত্রা অনেকাংশে হ্রাস পাবে বলে জানিয়েছে সিলেট সিটি কর্পোরেশন কর্তৃপক্ষ।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

আমাদের ফেইসবুক পেইজ