মোমিনের বৈশিষ্ট্য

প্রকাশিত: ৬:৩৯ পূর্বাহ্ণ, জুলাই ৩১, ২০২১

মোমিনের বৈশিষ্ট্য

মো. আমিনুল ইসলাম

ইমান শব্দের অর্থ বিশ্বাস। তাওহিদ, রিসালাত আর পরকালে যিনি বিশ্বাসী তিনিই মোমিন। আল কোরআনে মোমিনের পরিচয় দিতে গিয়ে আল্লাহ রব্বুল আলামিন বলেন, ‘যারা অদৃশ্যে ইমান আনে, সালাত কায়েম করে ও তাদের যে জীবনোপকরণ দান করা হয়েছে তা থেকে ব্যয় করে এবং আগে ও পরে যা কিছু নাজিল করা হয়েছে তার ওপর ইমান আনে ও পরকালের ওপর দৃঢ় বিশ্বাস স্থাপন করে।’ সুরা বাকারা, আয়াত ৩-৪। সুরা আল মায়ারিজে আল্লাহ বলেন, ‘সেসব লোকের কথা আলাদা যারা নামাজ প্রতিষ্ঠা করে, নিজেদের নামাজে সর্বদা সার্বক্ষণিকভাবে কায়েম থাকে, যারা তাদের মালিকের আজাবকে ভয় করে, নিজেদের গোপনাঙ্গসমূহের হেফাজত করে, রক্ষিত আমানত ও প্রতিশ্রুতি রক্ষা করে। সত্যের পক্ষে সাক্ষ্য দেওয়ার ব্যাপারে অটল থাকে, সর্বোপরি যারা নিজেদের নামাজের হেফাজত করে এরাই জান্নাতে মর্যাদা-সহকারে অবস্থান করবে।’ আয়াত ২০-৩৫। সুবহানাল্লাহ! আল্লাহ রব্বুল আলামিন কত সুন্দরভাবে মোমিনের পরিচয় আল কোরআনে বিবৃত করেছেন। সুরা মোমিনুনে আরও বিবৃত হয়েছে, ‘মোমিনরা সফলকাম হয়ে গেছে যারা নিজেদের নামাজে বিনয়াবনত থাকে, যারা অনর্থক কথাবার্তায় থাকে নির্লিপ্ত, যারা জাকাত প্রদান করে থাকে, যারা নিজেদের যৌনাঙ্গকে সংযত রাখে। তবে তাদের সহধর্মিণী ও মালিকানাভুক্ত দাসীদের ক্ষেত্রে সংযত না রাখলে তারা তিরস্কৃত হবে না। এরপর কেউ এদের ছাড়া অন্যকে কামনা করলে তারা সীমা লঙ্ঘনকারী হবে। এবং যারা আমানত ও অঙ্গীকার হেফাজত করে, যারা নিজেদের নামাজের ব্যাপারে যত্নবান, মূলত এরাই হচ্ছে মহান আল্লাহর উত্তরাধিকার। এরা হলো জান্নাতুল ফিরদাউসের উত্তরাধিকারী।’ আয়াত ১-১১।

সুরা আল আনফালে আল্লাহ আরও বলেন, ‘প্রকৃত ইমানদার তো তারাই আল্লাহর স্মরণে যাদের হৃদয় কেঁপে ওঠে। আর কোরআনের আয়াত যখন তাদের সামনে পড়া হয় তাদের বিশ্বাস আরও বেড়ে যায় এবং তারা তাদের নিজেদের রবের ওপর আরও বেশি ভরসা করে। তারা সালাত কায়েম করে এবং আমি তাদের যা দিয়েছি তা থেকে আমার পথে ব্যয় করে। এ ধরনের লোকেরাই প্রকৃত মোমিন। তাদের জন্য তাদের রবের কাছে রয়েছে বিরাট মর্যাদা, ভুলত্রুটির জন্য ক্ষমা আর উত্তম রিজিক।’ আয়াত ২-৪। সুরা ইমরানের ২৮ নম্বর আয়াতে আল্লাহ বলেন, ‘মোমিনরা যেন ইমানদারদের বাদ দিয়ে কখনো কাফিরদের নিজেদের বন্ধু ও সহযোগী হিসেবে গ্রহণ না করে। যে এমনটি করবে আল্লাহর সঙ্গে তার কোনো সম্পর্ক নেই। তবে হ্যাঁ, তাদের জুলুম থেকে বাঁচার জন্য যদি তোমরা এ নীতি অবলম্বন কর তাহলে তা মাফ করে দেওয়া হবে। কিন্তু আল্লাহ তোমাদের তাঁর নিজের সত্তার ভয় দেখাচ্ছেন, আর তোমাদের তাঁর দিকেই ফিরে যেতে হবে।’
আল কোরআনে আরও বলা হয়েছে, ‘দয়াময় আল্লাহতায়লার বান্দা তো হচ্ছে তারা যারা তাঁর জমিনে নেহায়েত বিনম্রভাবে চলাফেরা করে এবং জাহেল ব্যক্তিরা খারাপভাবে তাদের সঙ্গে আচরণ করে, তখন তারা বলে তোমাদের ওপর শান্তি বর্ষিত হোক।’ সুরা ফুরকান, আয়াত ৬৩।

রসুল (সা.) ইরশাদ করেছেন, ‘দুনিয়া হলো মোমিনের জন্য কারাগার আর কাফিরের জন্য জান্নাত।’ মুসলিম, তিরমিজি। তিনি আরও ইরশাদ করেছেন, ‘মোমিন পুরুষ ও নারী সব সময় তার নিজের জান, নিজের সন্তান-সন্ততি ও ধনসম্পদের ব্যাপারে নানা প্রকার বিপদাপদের সম্মুখীন হতে থাকে।’

আল্লাহ রব্বুল আলামিনের দরবারে আকুল প্রার্থনা তিনি যেন আমাদের সবাইকে তাঁর পছন্দের বান্দা হিসেবে কবুল করেন এবং কোরআন ও হাদিসের বিধান মোতাবেক প্রকৃত মোমিন হওয়ার তৌফিক দান করেন।
সুুত্র : বাংলাদেশ প্রতিদিন

সংবাদ অনুসন্ধান ক্যালেন্ডার

MonTueWedThuFriSatSun

আমাদের ফেইসবুক পেইজ