মৌলভীবাজারে কোভিড-১৯ রিপোর্ট: নতুন করে শনাক্ত হলেন ডাক্তার নার্সসহ ২৪ জন

প্রকাশিত: ৬:০৭ অপরাহ্ণ, জুন ১৬, ২০২০

মৌলভীবাজারে কোভিড-১৯ রিপোর্ট: নতুন করে শনাক্ত হলেন ডাক্তার নার্সসহ ২৪ জন

স্বপন দেব, মৌলভীবাজার প্রতিনিধি :: মৌলভীবাজারে ডাক্তার নার্সসহ আরও নতুন ২৪ জনের করোনায় শনাক্ত হয়েছেন। ীর্ঘ ১৫ নি পর ঢাকার ল্যাব থেকে মৌলভীবাজারে করোনার রিপোর্ট এসেছে। মঙ্গলবার ( ১৬ জুন) ুপুর ১২ টায় এ তথ্য নিশ্চিত করেন সিভিল সার্জন ডা. তৌওহী আহমদ।

নতুন করে শনাক্ত ২৪ জনের মধ্যে জেলা সদর ৫ জন,বড়লেখা ২ জন,রাজনগর ৩ জন,কুলাউড়া ১৩জন, কমলগঞ্জ ১ জন। শনাক্তদের মধ্যে নারী পুরুষ উভয়েই রয়েছেন।
কোভিড-১৯ রিপোর্ট প্রত্যাশী পরিবারের লোকজন জানান, এভাবে ১৫-২০ দিন পর রিপোর্ট পেলে করোনার সংক্রমণ থেকে বাঁচার আশা ছেড়ে দিতে হবে। আর যাদের করোনার লক্ষণ আছে তারা পরীক্ষার জন্য নমুনা দিতে আগ্রহ হারিয়ে ফেলবে।

মৌলভীবাজারের সিনিয়র আইনজীবি অ্যাড. বিধান ভট্টাচার্য বলেন, গতকাল সোমবার হাইকোর্ট ডিভিশন থেকে নির্দেশনা দিয়েছেন কোন চিকিৎসক বা হাসপাতাল করোনা রোগীদের চিকিৎসা সেবা দিতে সামান্যতম গাফিলতি করলে তা হবে ফৌজদারী অপরাধ। আর এ অপরাধে সংশ্লিষ্টদের বিরুদ্ধে মামলা ায়ের করা যাবে। মৌলভীবাজারে যেভাবে করোনা রিপোর্ট দিচ্ছেন তাও অপরাধের সামীল। কারণ এভাবেীর্ঘদিন পর রিপোর্ট প্রদান আইনে গাফিলতির পর্যায়েই পরে।

বিশেষঞ্জ চিকিৎসক ডা: শংকর দেব বলেন, ীর্ঘ সময় পর যে কোভিড-১৯ রিপোর্ট য়ো হচ্ছে সেগুলোর মান সঠিক থাকছে কিনা সে নিয়ে সন্দেহ দেখা দিয়েছে। কারণ কোভিড-১৯ রিপোর্ট দেয়ার জন্য বিশ^ স্বাস্থ্য সংস্থার একটা গাইড লাইন রয়েছে। পাঁচ দিন পরে রিপোর্টে ভুল ফলাফল দিতে পারে। যা রোগী ও জনস্বাস্থ্যের জন্য মারাত্মক ঝুঁকির সৃস্টি করতে পারে। এ বিষয়ে জেলা স্বাস্থ্য বিভাগের, প্রশাসন ও সরকারের এমন উদ্যোগ নিতে হবে যাতে রিপোর্ট ্রুত ফলপ্রার্থীরে দিতে পারা যায়। আর যারা কোভিড-১৯ পরীক্ষার জন্য যারা নমুনা দিবেন তারা যেন জন সমাগমে আসতে না পারেন। না হলে ভয়াবহ বিপদ আমাদের জন্য অপেক্ষা করছে।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

সংবাদ অনুসন্ধান ক্যালেন্ডার

আমাদের ফেইসবুক পেইজ