যুগের নকীব বরুণার পীর আল্লামা খলিলুর রহমান হামিদী আর নেই

প্রকাশিত: ১১:৫০ পূর্বাহ্ণ, অক্টোবর ৯, ২০২০

যুগের নকীব বরুণার পীর আল্লামা খলিলুর রহমান হামিদী আর নেই

সাঈদ চৌধুরীঃআন্জুমানে হেফাজতে ইসলামের আমির, বেফাকুল মাদারিসিল আরাবিয়া বাংলাদেশ (বেফাকের) সহ-সভাপতি, জামিয়া লুৎফিয়া আনোয়ারুল উলূম বরুণার মুহতামিম ও শায়খুল হাদিস আল্লামা খলিলুর রহমান হামিদী (পীর সাহেব বরুণা) বাংলাদেশ সময় রাত পৌণে দুইটায় মৌলভীবাজার সদর হাসপাতালে ইন্তেকাল করেছেন।( ইন্না-লিল্লা-হি ওয়া ইন্না-ইলাইহি রাজিউ‘ন)। তাঁর মৃত্যুর খবর ছড়িয়ে পড়লে সর্বত্র শোকের ছায়া নেমে আসে। অনেকের সাথে কথা হতেই ঢুকরে কেঁদে ফেলেন।

খলীফায়ে মাদানী শায়খ লুৎফর রহমান বর্ণভী (রহ.) এর সুযোগ্য বড় সাহেবজাদা আল্লামা খলিলুর রহমান হামিদী ছিলেন ইসলামের যথার্থ জ্ঞানের অধিকারী একজন দ্বায়ী ইলাল্লাহ। একজন খ্যাতিমান ইসলামী পণ্ডিত ও যুগের নকীব। আজীবন তিনি দেশ-বিদেশে দাওয়াতি কাজ ইন্তেজামে নিরলস ভাবে নিজেকে নিয়োজিত রেখেছেন।

ইকামাতে দ্বীনের কাজ তথা মানুষকে আল্লাহর নির্দেশিত পথের দিকে আহবান জানিয়েছেন এবং জাহেলিয়াতের ঘোর অমানিশা থেকে রক্ষার জন্য চেষ্টা করেছেন। দ্বীনের প্রচার বিভিন্ন অঞ্চলে ছড়িয়ে দিয়েছেন। ইলমের মাধ্যমে মানুষের বা সমাজের উপকার করা এবং দ্বীনের বুনিয়াদী শিক্ষাকে ঘরে ঘরে পৌঁছাবার কাজ করেছেন। জ্ঞান অর্জন করার সাথে সাথে কীভাবে উত্তম চরিত্র-আখলাক অর্জন করা যায়, তার জন্য সবাইকে উৎসাহিত করেছেন।

আল্লাহর সন্তুষ্টির উদ্দেশ্যে উত্তম চরিত্র ও সৎগুনাবলী অর্জনে সর্বদা গুরুত্ব দিয়েছেন। পরিপূর্ণ শিষ্টাচার, আত্মার উন্নতি, ঈমানের সত্যতা ও পরিপূর্ণতার ব্যাপারে সবার অন্তরে নেক গুনাবলী অর্জনের তাগিদ দিয়েছেন। আত্মাকে পুতঃপবিত্র ও কলুষমুক্ত করার জন্য জিকির ও ফিকিরের তালিম দিয়েছেন। কখনো পার্থিব স্বার্থের ধারে কাছেও আসেননি। খুবই যত্নের সাথে পার্থিব স্বার্থ থেকে নিজেকে দূরে সরিয়ে রেখেছেন। আমৃত্যু ইখলাসের সাথে দ্বীনের খেদমত আঞ্জাম দিয়েছেন । তার মৃত্যু বাংলাদেশে ইসলাম ও ধর্মপ্রাণ মুসলমানদের অপূরণীয় ক্ষতি হয়েছে, যা সহজে পূরণ হওয়ার নয়।

মরহুমের বিদেহী আত্মার মাগফিরাত এবং তাঁর পরিবারের সকলের এই দুঃখজনক ক্ষতি ও শোক সহ্য করার জন্য সর্বশক্তিমান আল্লাহর কাছে সাহায্য কামনা করছি।

আমাদের ফেইসবুক পেইজ