লোক গানের উৎসবকে ঘিরেই ছাতকে ব্যত্রিুধর্মী প্রচার-প্রচারনা

প্রকাশিত: ৯:২৩ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ১৩, ২০২০

লোক গানের উৎসবকে ঘিরেই ছাতকে ব্যত্রিুধর্মী প্রচার-প্রচারনা

আনোয়ার হোসেন রনি,ছাতক থেকে :: ’মরিলে কান্দিসনা আমার দায়’ জনপ্রিয় গানের লেখক বাংলাদেশ বেতার ও বিটিভি’এগ্রেটের গীতিকার,ছাতক প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি, সিলেটের প্রাচীনতম দৈনিক যুগভেরী পত্রিকার সাংবাদিক ও কবি গিয়াস উদ্দিন আহমদের লোকউৎসবকে ঘিরেই গ্রামবাংলার জনগণের প্রিয় করে তোলার লক্ষে ব্যত্রিুধর্মী প্রচার-প্রচারনা চালিয়েছেন উদযাপন পরিষদ।
আসছে ১৮ ফেরুয়ারি লোকউৎসবকে সামনে রেখে উদযাপন পরিষদ নানা মুখি ডিজিটাল ডিজাইনের ব্যানার পোস্টারে সয়লাব হয়েছেন উপজেলার বিভিন্ন জনগুরুত্ব প্রধান প্রধান সড়ক গুলো।সিলেট-সুনামগঞ্জ শহরকে রঙ্গীন ব্যানার দিয়ে শ্রেুাতাদের আকৃষ্ট করে তোলার জন্য টাঙ্গানো হচ্ছে কবি গিয়াস উদ্দিন আহমদের ছবিসহ দেশ-বিদেশে শিল্পীদের নাম দিয়ে রঙ্গিন পোষ্টার বের করে উদযাপন পরিষদের উদ্দ্যোগে গ্রাম গঞ্জে বিলিন করছে। এ আয়োজনকে ঘিরেই গ্রামবাংলার সকলশ্রেনীর মানুষের হৃদয়ের মধ্যে যেন নাড়া দেবে।তার অসংখ্য কালজয়ী গানের সুরের সাগরে সাঁতার কেটেছেন মরমী,মারফতি,দেহতত্ত্ব,আ’রী,সারি-জারি,ভাটিয়ালি,মুশির্দীসহ এক হাজারো বেশি গান রচনা করে গেছেন । এসব গান গুলোদের মধ্যে বাছাই করার তার গান লোকউৎসব আয়োজিত বালুর মাঠে অনুষ্টিত হবে এ অনুষ্টানে নারী-পুরুষ একত্রে বসে তার লেখা সঙ্গীতের মধ্য দিয়ে এ লোকউৎসব অনুষ্ঠান পালিত করবেন সর্বজনীয় শ্রেুাতারা। এ খ্যতিমান মরমী কবি হচ্ছেন ছৈলাআফজলাবাদ ইউনিয়নের শিবনগর গ্রামে ১৯৩৫ সালে ১২ আগষ্ট তার জন্ম হয়।তাঁর বাবা ফতেহ উল্লাহ এবং মাতার নাম অমুরতা বিবি। তিনি ১৯৭৪ সালে গীতিকার হিসেবে বাংলাদেশ বেতারে স্বীকৃতি পেযেছেন। ১৯৮৯ সালে যুক্তরাষ্ট্রের “ঝলক ইন্টারন্যাশনাল আর্টিস্ট এসোসিয়েশন কোং লিঃ”- এর আমন্ত্রণে যুক্তরাজ্য সফর করেন। ‘মরিলে কান্দিস না আমার দায়’- ১৯৯৬ এবং ‘শেষ বিয়ার সানাই’-২০০৫। দুটি বইয়ে রয়েছে তার বিভিন্ন ধরনের প্রায় হাজারো জনপ্রিয় গান রয়েছেন কবি গিয়াস উদ্দিনের অসংখ্য গান বেতার ও টেলিভিশনে সম্প্রচারিত হয়। ‘মরিলে কান্দিস্ না আমার দায়’ কবির প্রকাশিত গানের বইয়ে স্থান পেয়েছেন মোট ৩২৬ টি গান। ২০০৫ সালে ১৬ এপ্রিল এ গুণী কবি ইহলোক ত্যাগ করেন। এ ছাড়া হারানো,পুঁথি, দামাইল,সারি-জারি,সুরে ছন্দে ছন্দে গান ও মালজুড়াসহ কবি একক রচনার গান পরিবেশন সুরকার গীতিকাররা । আউল বাউলদের লোকসঙ্গীত উৎসব বাস্তবায়ন করতে উদযাপন পরিষদ দেশ-বিদেশে নানা ব্যত্রিুধর্মী প্রচার-প্রচারনাসহ বিভিন্ন ধরনের প্রস্ততি গ্রহন করছে উপজেলাজুড়েই।এ অনুষ্টানে অংশ গ্রহন করবেন দেশে নামি-দামি মরমী কবি সাহিত্যিক-সাংবাদিক নাট্যকার ছাড়া অন্যান্য লোকধর্মের সাধকরা ও এখানে যোগদান করবে। এতে কবির ভক্ত অনুসারী এবং লোকসঙ্গীত শিল্পীরা গিয়াসগীতি পরিবেশন করবেন । এ লোকউৎসব সাফল্যতার পৌছিয়ে দেয়া উপলক্ষে লন্ডন থেকে একটি ফুটবল দল উত্তেজনাপূর্ণ এবং আনন্দদায়ক খেলা উপহার দেবেন বলে আয়োজনকারীরা দাবি করেছেন। এ লোকউৎসব সর্বকালে স্মরনীয় জনসমুদ্্েরর পরিনত হবে বলে উদযাপন পরিষদ দাবি করেছে। এ উৎসবকে সাবিক সহযোগিতা ও নিরাপত্তা দেবে প্রশাসন ও পুলিশ বিভাগ। এব্যাপারে উদযাপন পরিষদের আহবায়ক আ’লীগ নেতা উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান অলিউর রহমান চৌধুরী বকুল, সদস্য সচিব মহি উদ্দিন ও সদরুল আমিন সোহান গনমাধ্যমে এ প্রতিনিধিকে জানান,গোবিন্দগঞ্জ লোকউৎসব বাস্তবায়নের লক্ষে উদযাপন পরিষদ
নানা মুখি প্রচারনার কারনে সর্বকালের স্মরনীয় লোকগানের অনুষ্টানে লাখো মানুষের সমাগম ঘটবে বলে দাবি করে বলেন স্বাধীনতার ৪৯ বছর পরে খ্যাতিমান কবি নামে তাঁর গ্রামের বাড়িতে লোক গানের উৎসব আয়োজন করা হয়।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সর্বশেষ খবর

আমাদের ফেইসবুক পেইজ