শফিক চৌধুরীর মতো নেতা সিলেট এখনো দেখেনি

প্রকাশিত: ৪:২৫ অপরাহ্ণ, মে ১১, ২০২১

শফিক চৌধুরীর মতো নেতা সিলেট এখনো দেখেনি

ইশতিয়াক চৌধুরী :: সিলেট এর পবিত্র ভূমিতে জননেতা শফিক চৌধুরীর সত্যতা, ত্যাগ, পরিশ্রমের রেকর্ড ভাংগার মত নেতা এই সিলেট চেলেঞ্জ করে বলি কেউ নেই।

নেতাকে খুশি করে লিখার অভ্যাস নেই, যা নিজ অভিভাবক ভালো ভাবে জানেন।
বরাবর নিজ অভিভাবক সাদা কে সাদা কালো কে কালো বলার, অন্যায়ে লড়ার শিক্ষা দিয়েছেন, কাজেই তেলময় লিখনীতে অভস্ত নই।

লিখার কুনু ইচ্ছা ছিল না তবু আজকের শফিক চৌধুরীর জনপ্রিয়তায় হিংসার অনলে পুড়া মোস্তাক সিন্ডিকেট প্রতি একটি হলুদ সিগনাল দিতে লিখনীটি।

ছোটবেলা থেকে পিতৃ স্নেহ দিয়ে যে মানুষটা আগলে রেখেছেন প্রিয় অভিভাবক Shofiqur Rahman Choudhury মামা।

আপনি আমার গর্ব ,আপনি আমার অহংকার
সিলেট এর পবিত্র ভূমিতে জনতার শফিক চৌধুরীর শ্রম,ঘাম,ত্যাগের রেকর্ড ভাংগার মত এখনো কুনু নেতা নেই বুক ফুলিয়ে চেলেঞ্জ করে স্পষ্ট প্রমাণ যুক্তিতে যা বলতে পারি।

এসি রুমে নয় মাঠে, বীর কভিড যুদ্ধা বেশে
মুজিব সৈনিক জনতার শফিক, আজো জনতার মাঝে।

নিস্বার্থ দল মুজিব আদর্শ বঙ্গবন্ধু কন্যার অসমাপ্ত সোনার বাংলা গড়ায় যে ব্যাক্তির সরল মনের অন্ধ ভালবাসায় কথায় নয়, কাজে দিনের আলোর স্পষ্ট প্রমাণে নিজের জীবন সপে দিয়েছেন সেই ব্যাক্তি জননেতা শফিক।

যে জননেতা জনগনের পাশে থাকার ওয়াদা করে, মোস্তাক শত আঘাতে,আঘাতে সব হারিয়েও জনগনের পাশে নিজের বাপ ভাইয়ের সম্পদ বিক্রি করে নিজের পরিবার, সন্তান বিসর্জন দিয়ে যে জননেতা আজ কুনু জনপ্রতিনিধি না হয়েও নিশ্চিত বিজয় কে হার মেনে মুজিব আদর্শ সৈনিক হয়ে মোস্তাকের শত আঘাত বুকে জনতার পাশে দিন-রাত বিরামহীন জননেত্রী শেখ হাসিনার হাতিয়ার হয়ে ছুটে চলেন, জনগনের পাশে থাকার সেই ওয়াদা রক্ষা করতে নিজের জীবন সপে দেন সেই সারা দেশে সিলেট এর ২৪ ঘন্টা রাজনীতিবিদ হিসাবে সম্মান জনক পরিচয় পাওয়া ব্যাক্তির নাম
সিলেট এর ২৪ ঘন্টা রাজনীতিবিদ, হাটে,ঘাটে,মাঠে,দূর্যোগে জনতার জননেতা
সিলেট এর ২৪ ঘন্টা রাজনীতিবীদ শফিক।

নিস্বার্থ ভালবাসা কখনো হারেনা, মোস্তাক যে পরিমান তার সরলতাকে দূর্বলতা ভেবে আঘাত করেছে, আমার চোখে জননেতা শফিক হারেন নি,হেরেছে মোস্তাক।

এমপি, মন্ত্রী আর পদ দিয়ে যাকে কিনা জায় না, মুজিব আদর্শ জননেত্রীর বিশ্বাসের সাথে যে বিন্দু পরিমান বেইমানি করে না,সেই ব্যাক্তির নাম বীর মুজিব সৈনিক শফিক।

হ্যা অনেকেই সাংগঠনিক কাজে বা নৌকার ইউনিয়ন মনোনয়ন এ অনেকের মন রক্ষা করতে পারেন নি, সেই স্বার্থ প্রশ্নে তার বিপরীত চেয়ার লোভী সেই মোস্তাক চক্র ঐক্যবদ্ধ ভাবে তাকে তার জনপ্রিয়তা ক্লিন ইমেইজ ধংষে বরাবর কাজ করেছে।

কিন্তু আমার চোখে মুজিব সৈনিক জনতার শফিক বিজয়ী বেশে মোস্তাকদের আংগুল দিয়ে দেখিয়ে দিলেন নিস্বার্থ অন্ধ ভালবাসা কখনো মোস্তাকের ঐ শত আঘাতে হারেনা, হোচট খায় তবে ভাংগে না।

আজ তাকিয়ে দেখুন জনতার দিকে, আজ তাকিয়ে দেখুন তৃণমূলে যে শফিক চৌধুরীর জনপ্রিয়তা ধংষে ও এমপি মন্ত্রী পদ পদবীর জন্য উঠে পড়ে লেগেছিলেন, কই আজত তিনি এমপি না, আজত তিনি মূল কুনু পদে না। তবু আজ কেন আপনাদের সেই হিংসা অনল থামেনা????

আমার কথায় না চারিপাশে জনতা,সাধারণ কর্মীদের পালসের দিকে তাকান।
আজ তার জায়গায় দাঁড়িয়ে নিজের জীবনের হিসাব নিকাশ মিলান।
হিসাব পেয়ে জাবেন কার কত দৌড়।

মনে রাখবেন জারা জননেতা শফিক চৌধুরীর দল এবং আদর্শ, নীতির সরল মনের অন্ধ ভালবাসাকে বোকামী ও দূর্বলতা ভেবে সময় সুযোগে আঘাত করতে চান যে মোস্তাক সিন্ডিকেট তাকিয়ে দেখুন সেই শফিক চৌধুরী সরল মনে আপনাদের আজো ভালবাসেন, বিশ্বাস করে বুকে টেনে নেন।

মনে রাখবেন দুই দিনের চেয়ার লোভী মোস্তাক হোওয়া সুজা……..
কিন্তু পিতা মুজিবের আদর্শ এর আগুন শিখার পথে পা দিয়ে নিস্বার্থ অন্ধ ভালবাসায় নিজের জীবন সপে দেওয়া খাটি মুজিব সৈনিক শফিক চৌধুরী হোওয়া খুবি কঠিন।

মুজিব আদর্শ,সত্যতা,ত্যাগ,পরিশ্রমের অপর নাম
ভুলবেন না এই সিলেট এর ২৪ ঘন্টা রাজনীতিবিদ
জননেতা শফিকুর রহমান।

মোস্তাকদের উদ্যসো আমার একটি উক্তি দিয়ে শেষ করতে চাই……

মনে রাখবেন

মিথ্যা,অন্যায় ক্ষমতা খুব দ্রুত সহজেই জিতে জায় ঠিক
তবে রোপণ করে জায় পতনের চারা।
সত্য, ন্যায়, নীতি খুব দ্রুত, সহজে হেরে জায় ঠিক
তবে রোপণ করে জায় জয়ের চারা
যা আজ বা কাল নিশ্চিত দিবে, দিবেই মাথাচাড়া

জয় বাংলা, জয় বঙ্গবন্ধু

ইশতিয়াক চৌধুরী
সাবেক সহ সম্পাদক, সিলেট জেলা ছাত্রলীগ।

আমাদের ফেইসবুক পেইজ