শহীদ নাসিমের মৃত্যুবার্ষিকীত সিলেট জেলা ছাত্র মৈত্রী’র শ্রদ্বাঞ্জলি অর্পণ

প্রকাশিত: ১১:৪৩ পূর্বাহ্ণ, জানুয়ারি ২, ২০২১

শহীদ নাসিমের মৃত্যুবার্ষিকীত সিলেট জেলা ছাত্র মৈত্রী’র শ্রদ্বাঞ্জলি অর্পণ

অনলাইন ডেস্ক
স্বৈরাচার এরশাদ বিরোধী আন্দোলনে নিহত হয়েছেন বাংলাদেশ ছাত্র মৈত্রী ঢাকা মহানগর এর নেতা আশরাফুল ইসলাম নাসিম। তিনি ছিলেন স্বৈরাচার বিরোধী আন্দোলনের অন্যতম লড়াকু নেতা। ঢাকা সিটি কলেজের শিক্ষার্থী ছিলেন। ঢাকার লালমাটিয়ায় জন্ম এবং বেড়ে উঠেছেন। মেহনতি মানুষের মুক্তির সংগ্রাম তথা ছাত্র মৈত্রী’র রাজনীতি শিক্ষার্থীদের মাঝে ছড়িয়ে দেয়ার দায়িত্বশীল সৈনিক।। ১৯৮৬ সালের নভেম্বরে সামরিক এরশাদের ছাত্র নামধারী সন্ত্রাসী সংগঠন ছাত্র সমাজের গুন্ডারা নাসিমকে তার বাড়ী থেকে ডেকে নিয়ে গিয়ে আগারগাঁওয়ের একটি ভবনের ভেতর হাত পা বেঁধে নির্মমভাবে রড দিয়ে পিটিয়ে আহত করে। পরে সন্ত্রাসীরা তার হাতের ভিতর তাজা বোমা বেঁধে ভবনের ছাদ থেকে নীচে ফেলে দেয়। বোমার বিস্ফোরণে তার সারা শরীর ঝলসে যায়। প্রায় দু’মাস মৃত্যুর সাথে লড়াই করে অবশেষে ১৯৮৭ সালে বছরের প্রথম দিনে মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়েন। শহীদ নাসিমের ৩৪ তম মৃত্যুবার্ষিকী ও ওপর দিকে সাম্রাজ্যবাদবিরোধী সংহতি দিবস আজ। ভিয়েতনামে যুক্তরাষ্ট্রের আগ্রাসনের প্রতিবাদে ১৯৭৩ সালের ১ জানুয়ারি ঢাকায় বিক্ষোভ মিছিলের আয়োজন করে ছাত্র ইউনিয়ন। মিছিল মার্কিন তথ্যকেন্দ্রের কাছে পৌঁছলে পুলিশ গুলি চালায়। এতে ঘটনাস্থলে ছাত্র ইউনিয়ন নেতা মির্জা কাদের ও মতিউল ইসলাম নিহত হন। সেই থেকে প্রতি বছর সাম্রাজ্যবাদবিরোধী সংহতি দিবস পালন করে বাম প্রগতিশীল দলগুলো। ২০০২ সাল ভিয়েতনাম সরকার এই দু’জনকে সে দেশের সর্বোচ্চ বীরের মর্যাদা প্রদান করে। এরপর থেকে দেশটি প্রতিবছর দু’জনের মৃত্যুবার্ষিকীও রাষ্ট্রীয়ভাবে পালন করে। আজকের এই দিবস উপলক্ষে আজ শুক্রবার (১লা জানুয়ারি২০২১) বিকাল ৩ টায় সিলেট কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে বাংলাদেশ ছাত্র মৈত্রী সিলেট জেলা কমিটির পক্ষ থেকে পুষ্পস্তবক অর্পন করা হয়। এতে উপস্থিত ছিলেন জেলা ছাত্র মৈত্রী সভাপতি মাসুদ রানা চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক সালেহ আহমেদ, দফতর সম্পাদক বিজয় করিম। প্রমুখ

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

সংবাদ অনুসন্ধান ক্যালেন্ডার

আমাদের ফেইসবুক পেইজ