শাহরিয়ার ভাই , শেষমেষ তুমিও চলে গেলে ?

প্রকাশিত: ১০:৫৮ পূর্বাহ্ণ, এপ্রিল ১১, ২০২১

শাহরিয়ার ভাই , শেষমেষ তুমিও চলে গেলে ?

অজয় পাল ::

হাসান শাহরিয়ার । আমার প্রাণের , শ্রদ্ধার এবং ভালোবাসার মানুষ । এই মানুষটির চির বিদায়ে আমি নিকটজন হারানোর বেদনায় ব্যথিত , বাকরুদ্ধ । তাঁর মৃত্যুটি আমি একেবারেই মেনে নিতে পারছিনা । ঈশ্বর , এই প্রাণের মানুষটির আত্মার চিরশান্তি
নিশ্চিত করুন ।
দৈনিক ইত্তেফাকে তাঁর কর্মজীবনের গোড়ার দিকেই শাহরিয়ার ভাইয়ের সাথে আমার পরিচয় । দৈনিক বাংলার বাণী পত্রিকায় কাজের সুবাদে মাঝেমধ্যে আমাকে ঢাকায় যেতে হতো । জাতীয় প্রেসক্লাবে শাহরিয়ার ভাইয়ের সাথে আমার প্রথম আলাপ
পরিচয় । এরপর থেকে যখনই ঢাকা গিয়েছি , তখন হয় প্রেসক্লাবে নয়তো ইত্তেফাক অফিসে গিয়ে তাঁর সাথে দেখা করতাম । আমার কাছ থেকেই তিনি সিলেটের সার্বিক বিষয়ে খোঁজখবর নিতেন । শাহরিয়ার ভাই যখন জাতীয় প্রেসক্লাবের সভাপতি ছিলেন , তখন ঘন ঘন প্রেসক্লাবে যেতাম । দেশের বহু খ্যাতিমান সাংবাদিকের সাথে তিনি আমাকে পরিচয় করিয়ে
দেন । শাহরিয়ার ভাইয়ের অগ্রজ হোসেন তৌফিক চৌধুরীর সাথেও ছিলো আমার ভালো সম্পর্ক । তৌফিক ভাই যখন দৈনিক পূর্বদেশে কাজ করতেন , সন্ধ্যার পর তাঁর কর্মস্থলে গিয়েও আড্ডা মারতাম । শুনলাম তৌফিক ভাইও নাকি এখন করোনায়
আক্রান্ত । ঈশ্বর , তুমি সহায় হও ।
শাহরিয়ার ভাইয়ের সাথে ২০০৬ সালের জানুয়ারি মাসে আমার শেষ দেখা ঢাকা ক্লাবের একটি অনুষ্ঠানে । মে মাসে আমি লন্ডনে চলে আসার পর তাঁর সাথে আর দেখা হয়নি । অত্যন্ত প্রাণখোলা মানুষ ছিলেন শাহরিয়ার ভাই । বয়সে বড় হলেও আমার সাথে বন্ধু সুলভ আচরণ করতেন । সিলেটে যখনই গিয়েছেন , আমার সাথে দেখা হয়েছে । সিলেটের পৌর পাঠাগারে প্রায়ই আমরা আসর জমাতাম । এই আসরের অন্যতম প্রিয় মুখ ছিলেন ইত্তেফাকের তৎকালীন সিলেট প্রতিনিধি আব্দুল মালিক চৌধুরী । পরবর্তীতে সিলেটে এলে সাংবাদিক আহমেদ নূর , হুমায়ুন রশীদ চৌধুরী ও আমার সাথে জমিয়ে আড্ডা দিতেন । তাঁকে জড়িয়ে আমার অনেক অনেক স্মৃতি । ভারতের শিলচরেও একবার আমরা কয়েকটি দিন খুবই একান্তে কাটিয়ে
ছিলাম । আজ সবই স্মৃতির অনুষঙ্গ ।
শাহরিয়ার ভাই , ভুলবো না কোনোদিন তোমাকে । হৃদয়ের মানুষ ছিলে , অনন্তকাল হৃদয়ের মাঝখানেই
তুমি জ্বল জ্বল করবে ।

প্রানের মানুষ হাসান শাহরিয়ার ।

আমাদের ফেইসবুক পেইজ