শীঘ্রই হাওরের ওপর দিয়ে উড়াল সেতু হবে : পরিকল্পনামন্ত্রী

প্রকাশিত: ৩:০১ অপরাহ্ণ, ডিসেম্বর ১২, ২০১৯

শীঘ্রই হাওরের ওপর দিয়ে উড়াল সেতু হবে : পরিকল্পনামন্ত্রী

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি :: পরিকল্পনামন্ত্রী এমএ মান্নান এমপি বলেছেন, সুনামগঞ্জের হাওরাঞ্চলের গ্রামে গ্রামে পাইপ ওয়াটার সাপ্লাাই আগামীতে চালু করা হবে। পানির বিল মাত্র ১০০টাকা হবে, যারা টাকা দিতে পারবে তারা দিবে, যারা টাকা দিতে পারবে না তারা টাকা দেবে না। পরীক্ষামূলকভাবে সুনামগঞ্জ, ছাতক, জগন্নাথপুর কিছু এই কার্যক্রম শুরু হয়েছে। সরকারের টাকায় এই কার্যক্রম চলবে।

তিনি আরো বলেন, সরকার কর্ণফুলির নীচ দিয়ে ৭ কিলোমিটার টানেল নির্মাণের কাজ করছে। আমাদের চিন্তা ভাবনায় রয়েছে যমুনার উত্তর মাথায় আরেকটি টানেল নির্মাণ করার। যা কুড়িগ্রাম ও জামালপুরের মধ্য দিয়ে যাবে। পদ্মা-যমুনায় বা বড় নদীতে আমরা আর সেতু নির্মাণ করতে চাই না। সেতু নির্মাণ হলে পলি পড়বে, নদী ভরাট হবে পরিবেশের ক্ষতি করবে। পৃথিবীর উন্নত দেশগুলোয় ৬০-৭০ মিটার লম্বা টানেল রয়েছে। এই টানেলের নীচ দিয়ে পরিবহন চলে, উপর দিয়ে নদী বহমান রয়েছে, তাতে সব কিছুই টিক থাকে।
বৃহস্পতিবার দুপুরে সুনামগঞ্জের দক্ষিণ সুনামগঞ্জে সমন্বিত প্রচেষ্টা-সবার জন্য পুষ্টি শিরোনামে অংশগ্রহণ মূলক বহুখাতভিত্তিক বার্ষিক পুষ্টি পরিকল্পনা শীর্ষক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি একথা বলেন।

মন্ত্রী আরো বলেন , জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ডাকে আমরা লাঠিসোটা দিয়ে পাকিস্তানি শয়তানদের বিতারন করেছি। এখন তার সুযোগ্য কন্যার নেতৃত্বে দারিদ্র্য দূর করে নতুন উচ্চতায় পৌঁছেছে বাংলাদেশ। আমরা অচিরেই হাওরের ওপর দিয়ে সুনামগঞ্জ থেকে নেত্রকোণার মোহনগঞ্জ পর্যন্ত ১৮ কি.মি. উড়াল সেতু করব।

দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলা সদরের এফআইভিডিবি মিলানায়তনে জেলা প্রশাসক মো.আব্দুল আহাদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন, কেয়ার বাংলাদেশের স্বাস্থ্য কর্মসূচির পরিচালক মো. ইখতিয়ার উদ্দিন খন্দকার, বাংলাদেশ পুষ্টি পরিষদের মহাপরিচালক ড. শাহ নেওয়াজ প্রমুখ।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

সর্বশেষ খবর

আমাদের ফেইসবুক পেইজ