শেহজাদের রেকর্ড ভাঙলেন খুশদিল

প্রকাশিত: ১২:৩৭ পূর্বাহ্ণ, অক্টোবর ১১, ২০২০

শেহজাদের রেকর্ড ভাঙলেন খুশদিল

স্পোর্টস ডেস্ক

বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) প্রথম আসরের সেমিফাইনালে দুরন্ত রাজশাহীর বিপক্ষে ৪০ বলে সেঞ্চুরি করেছিলেন বরিশাল বার্নাসের হয়ে খেলা পাকিস্তানি ওপেনার আহমেদ শেহজাদ। ২০১২ সালে গড়া তার সেই রেকর্ড ভেঙে দিলেন আরেক পাকিস্তানি ক্রিকেটার খুশদিল শাহ।

পাকিস্তানে চলমান ন্যাশনাল টি-টোয়েন্টি কাপে ৩৫ বলে সেঞ্চুরি করে ৮ বছর আগে শেহজাদের গড়া রেকর্ড ভাঙলেন খুশদিল শাহ।

তবে ফ্রাঞ্চাইজি টি-টোয়েন্টিতে দ্রুততম সেঞ্চুরির মালিক ওয়েস্ট ইন্ডিজের তারকা ক্রিকেটার ক্রিস গেইল। তিনি আইপিএলে রয়েল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালুরুর হয়ে ২০১৩ সালের ২৩ এপ্রিল পুনে ওয়ারিয়র্সের বিপক্ষে ৩০ বলে দ্রুততম সেঞ্চুরির রেকর্ড গড়েন। শুধু তাই নয়, সেই ম্যাচে আইপিএলে সেরা ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ ১৭৫ রানের ইনিংস খেলেন ক্যারিবীয় ব্যাটিং দানব গেইল। তার সেই ইনিংসটি ৬৬ বলে ১৩টি চার ও দৃষ্টিনন্দন ১৭টি ছক্কায় সাজানো।

শুক্রবার সাউদার্ন পাঞ্জাবের হয়ে ৩৫ বলে ৮ চার ও ৯ ছক্কায় তিন অঙ্কের ম্যাজিক ফিগার স্পর্শ করার পরের বলেই আউট হন খুশদিল।

ন্যাশনাল টি-টোয়েন্টি কাপের ১৬তম ম্যাচে প্রথমে ব্যাটিংয়ে নেমেই তাণ্ডব চালান খুররম মনজুর। দলীয় ৪৭ রানে ফেরেন শারজিল খান (১১)। এরপর তিনে ব্যাটিংয়ে নামা আসাদ শফিককে সঙ্গে নিয়ে ১২৩ রানের জুটি গড়েন মনজুর। এই জুটিতেই ৫৮ বলে ১০ চার ও ছয় ছক্কায় ১০৮ রানের ইনিংস খেলে সাজঘরে ফেরেন তিনি। তার ব্যাটিং তাণ্ডবেই ২০ ওভারে ৩ উইকেট হারিয়ে ২১৬ রানের পাহাড় গড়ে সিন্ধ। এছাড়া ৩৭ বলে ৫৯ রান করেন আসাদ শফিক।

২১৭ রানের পাহাড় ডিঙাতে নেমে ৪৩ রানে ৪ উইকেট হারিয়ে বিপাকে পড়ে যায় সাউদার্ন পাঞ্জাব। দলের ব্যাটিং বিপর্যয়ের দিনে হাল ধরার পাশাপাশি রীতিমতো ব্যাটিংয়ে তাণ্ডব চালান খুশদিল শাহ। পঞ্চম উইকেটে হাসান তালাতকে সঙ্গে নিয়ে ১২৭ রানের জুটি গড়েন খুশদিল। ৩৫ বলে আট চার ও ৯ ছক্কায় ১০০ রান করেই পরের বলে আউট হন খুশদিল। তার ঝড়ো সেঞ্চুরিতেই রানের পাহাড় ডিঙাতে নেমে জয়ের স্বপ্ন দেখতে শুরু করে পাঞ্জাব।

খুশদিলের বিদায়ের পর ১ ও ২ রান করে ফেরেন আমির ইয়ামিন ও মোহাম্মদ ইলিয়াস। শেষদিকে জয়ের জন্য সাত বলে প্রয়োজন ছিল ১০ রান। খেলার এমন অবস্থায় আউট হয়ে ফেরেন ৩৬ বলে ৬২ রান করা হাসান তালাত। শেষ ওভারে জয়ের জন্য প্রয়োজন ছিল মাত্র ৯ রান। ওভারের প্রথম বলেই ছক্কা হাঁকান দিলবার হোসেন। তার সেই ছক্কার সুবাদেই নির্ধারিত ওভারের ২ বল হাতে রেখে দুই উইকেটের জয় নিশ্চিত করে সাউদার্ন পাঞ্জাব।

সংক্ষিপ্ত স্কোর

সিন্ধ: ২০ ওভারে ২১৬/৩ (খুররম মনজুর ১০৮, আসাদ শফিক ৫৯)।

সাউদার্ন পাঞ্জাব: ১৯.৪ ওভারে ২১৭/৮ (খুশদিল শাহ ১০০, হাসান তালাত ৬২)।

ম্যাচসেরা: খুশদিল শাহ (সাউদার্ন পাঞ্জাব)।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

আমাদের ফেইসবুক পেইজ