শোষণমুক্তির আলোকবর্তিকা হলেন কমরেড মণি সিংহ

প্রকাশিত: ৩:০৫ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ১৪, ২০২০

শোষণমুক্তির আলোকবর্তিকা হলেন কমরেড মণি সিংহ

ডেস্ক রিপোর্ট :: মণি সিংহ-এর ২৯তম মৃত্যুবার্ষিকীর স্মরণ অনুষ্ঠানে আলোচকগণ বলেন কমরেড মণি সিংহের মত সৎ-ত্যাগী রাজনীতিবিদের বড় প্রয়োজন কমরেড মণি সিংহ সৎ-ত্যাগী আদর্শের রাজনীতির প্রতীক। শোষণমুক্তির সংগ্রাম,আদর্শের প্রতি অবিচল নিষ্ঠা, সততা, সাহস, আত্মত্যাগ, মানবপ্রেম, গরিব-দুঃখী শোষিত-নির্যাতিত মেহনতি মানুষের প্রতি অকৃত্রিম ভালোবাসা, গভীর দেশপ্রেম এর মূর্ত প্রতীক কমরেড মণি সিংহ বাংলাদেশের জনগণের সামনে চিরদিন আলোকবর্তিকা হয়ে থাকবেন।

ব্রিটিশবিরোধী সংগ্রামী, টংক আন্দোলনের মহানায়ক, মুক্তিযুদ্ধকালীন প্রবাসী সরকারের উপদেষ্টা, সিপিবি’র প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি কমরেড মণি সিংহ-এর ২৯তম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে আজ ১১ জানুয়ারি, শনিবার, বিকেল ৩টায় টিএসসি চত্বর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে কমরেড মণি সিংহর স্মরণ অনুষ্ঠানে বক্তারা এ কথা বলেন।

স্মরণসভায় বিশিষ্ট অর্থনীতিবিদ অধ্যাপক এম এম আকাশের সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন সিপিবি’র সভাপতি মুজাহিদুল ইসলাম সেলিম, সিপিবি’র উপদেষ্টা মনজুরুল আহসান খান, শিক্ষাবিদ অধ্যাপক এ.এন রাশেদা, সাংবাদিক সোহরাব হাসান, সিপিবি’র কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ডা. দিবালোক সিংহ, কমিউনিস্ট কেন্দ্রের কেন্দ্রীয় নেতা ডা. অসিতবরণ রায়, শ্রমিকনেতা আসলাম খান, ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের মেয়র প্রার্থী ডা. আহাম্মদ
সাজেদুল হক রুবেল, ছাত্র ইউনিয়নের সভাপতি মেহেদী হাসান নোবেল প্রমুখ।

বক্তারা বলেন, বর্তমান রাজনীতিতে আদর্শহীনতা, দুর্বৃত্তায়ন, কালো টাকা, সন্ত্রাস, লুটেরাদের যে ধারা চলছে তা থেকে উত্তরণের জন্য কমরেড মণি সিংহ-এর বিপ্লবী জীবনাদর্শ থেকে শিক্ষা গ্রহণ করতে হবে। কমরেড মণি সিংহ-এর ব্যক্তিগত গুণাবলী ও বিপ্লবী বৈশিষ্ট্য তরুণ প্রজন্মের জন্য এক চিরায়ত মূলবান শিক্ষা। ১৯৪৭ সালের আগে ব্রিটিশবিরোধী স্বাধীনতা সংগ্রাম করতে গিয়ে কমরেড মণি সিংহ অসংখ্যবার জীবনের ঝুকি নিয়ে জেল-জুলুম নির্যাতন ভোগ করেছেন। কলকাতার মেটিয়া বুরুজে শ্রমিক আন্দোলন ও ঐতিহাসিক টংক আন্দোলনে নেতৃত্ব দেন। মুক্তিযুদ্ধের পক্ষে তাঁর অবদান অসামান্য।

বক্তারা আরও বলেন, দেশে এখন গণতন্ত্র নেই। মহান মুক্তিযুদ্ধের চার মূল নীতি গণতন্ত্র, সমাজতন্ত্র, ধর্ম নিরপেক্ষতা, জাতীয়তাবাদ বাস্তবায়িত হয়নি। ধনী-গরিবের বৈষম্য প্রকট। সমাজে নৈতিক অবক্ষয় এবং রাজনীতি রাজনীতিবিদের হাতে নেই। কালো টাকা, সন্ত্রাস, দুর্বৃত্তায়নের হাতে রাজনীতি বন্দি। এর থেকে পরিত্রাণ পেতে কমরেড মণি সিংহের আদর্শের পথে এগুতে হবে। কথা ও কাজের সমন্বয়, সুবিধাবাদের বিরুদ্ধে আপসহীন মনোভাব, কঠোর সময়নুবর্তিতা-নিয়মানুবর্তিতা ও মহৎ গুণাবলির সমাহার মণি সিংহের জীবনের প্রতিটি মুহূর্তে বিশেষভাবে লক্ষ্যণীয়। অসামান্য মেধার পরিচয় দিয়ে তিনি জাতীয় মুক্তি আন্দোলন ও সর্বহারা শ্রেণির মুক্তির আকাক্সক্ষাকে একসূত্রে গাঁথার চেষ্টা করেছেন।

অনুষ্ঠানে কমরেড মণি সিংহকে নিয়ে আলোকচিত্র প্রদর্শনী করা হয়। উদীচী শিল্পীগোষ্ঠী ও ডিএসকে সাংস্কৃতিক টিম কবিতা, গান পরিবেশন করেন এবং কমরেড মণি সিংহ নিয়ে নির্মিত প্রামাণ্যচিত্র প্রদর্শন করা হয়।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

আমাদের ফেইসবুক পেইজ