শ্রীমঙ্গলে মা খুন ও বাবা কারাগাওে অসহায় শিশুদের খাবার ও নগদ অর্থ দিলেন পুলিশ সুপার

প্রকাশিত: ১১:১৮ পূর্বাহ্ণ, জুন ১৩, ২০২০

শ্রীমঙ্গলে মা খুন ও বাবা কারাগাওে অসহায় শিশুদের খাবার ও নগদ অর্থ দিলেন পুলিশ সুপার

স্বপন দেব, মৌলভীবাজার প্রতিনিধি :: মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গলে স্বামী হাতে স্ত্রী খুন হওয়ায় ঘটনায় অসহায় দুই শিশু ও বাড়িতে খাদ্য এবং নগ অর্থ পৌঁছে দিল জেলা পুলিশ।

শুক্রবার (১২ জুন) রাতে নগদ অর্থ এবং খাদ্য সামগ্রী চাল, ডাল, আটা, সেমাই, চিনি, ও পেঁয়াজ সহ খাদ্য সামগ্রী তাদের বাড়িতে পৌঁছে দেয়া হয়। গত ৫ জুন রাতের জোড়া খুনের ঘটনাটি ছিল শ্রীমঙ্গলে ব্যাপক আলোচিত। ঘটনার ু’নি পরেই জোড়া খুনের প্রধান আসামী আজগর আলীকে আটক করে শ্রীমঙ্গল থানা পুলিশ। আসামি আজগর আলী ওই রাতে নিশংস ভাবে খুন করে তার স্ত্রী ইয়াসমিন আক্তার (২৫) ও তার মা জায়েদা বেগম (৫৫)কে । গত ৭জুন মৌলভীবাজার বিজ্ঞ আদালতে আসামী আজগর আলীর স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেয় যে তার হাতেই লোহার পাইপ দ্বারা খুন হয়েছে শাশুড়ি জায়েদা ও স্ত্রী ইয়াসমিন আক্তার।

আজগর আলীর একটি ভুলের কারণে তার ুটি অবুঝ শিশু জীবনে নেমে আসে অনিশ্চয়তার অন্ধকার। ৭ বছরের শিশু ইব্রাহিম ও ৫ বছরের শিশু ফাহিমের মুখে খো যায় অন্ধকারের ছাপ। শিশু দুটি অসহায় হয়ে পড়েছে এই পৃথিবীতে। মা ও নানী খুন হন। আর খুনের মামলায় বাবা আজগর আলীর এখন কারাগারে।

স্থানীয়দের মাধ্যমে শিশু ইব্রাহিম ও শিশু ফাহিম এবং বৃদ্ধা ফুলচান বেগমের অনাহারে দিন কাটানোর খবর পান মৌলভীবাজার জেলা পুলিশ সুপার। এ খবর পেয়ে পুলিশ সুপার মো.ফারুক আহমেদ নির্দেশে (শ্রীমঙ্গল- কমলগঞ্জ সার্কেল) এর সিনিয়র সহকারি পুলিশ সুপার মো. আশরাফুজ্জামানের সার্বিক তদারকি ও শ্রীমঙ্গল থানার অফিসার ইনচার্জ আব্দুছ ছালেক এর উদ্যোগে অসহায় শিশু ুটি ও বৃদ্ধা ফুলচান বেগমেরুই মাসের খাদ্য সামগ্রী ও নগদ অর্থ সিন্দুরখান ইউনিয়নের বেলতলী গ্রামে তাদের বাড়িতে পৌঁছে দেয়া হয়েছে। এসব পৌঁছে দেন শ্রীমঙ্গল থানার পুলিশ পরিদর্শক (অপারেশন) নয়ন কারকুন, উপ-পরিদর্শক মো. মুহিন উদ্দিন।

সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার আশরাফুজ্জামান বলেন, দিনভর শ্রীমঙ্গলে প্রচুর বৃষ্টি হচ্ছে। এই অবস্থায় জানতে পারি শিশু ুটির অনাহারে নি কাটানোর কথা। জেলা পুলিশ সুপার মো. ফারুক আহমেদ এর নির্দেশে শ্রীমঙ্গল ানার ওসি আব্দুছ ছালেক এর সাে কথা বলে শিশু ইব্রাহিম ও ফাহীম এবং বৃদ্ধা ফুলচান বেগমের জন্য ুই মাসের খাবারের ব্যবস্থা করা হয়। তিনি বলেন প্রয়োজনে তারেকে সব সময় সাহায্য করা হবে ।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

সংবাদ অনুসন্ধান ক্যালেন্ডার

MonTueWedThuFriSatSun
      1
3031     
28      
       
       
       
1234567
2930     
       

আমাদের ফেইসবুক পেইজ