শ্রীমঙ্গল উপকারভোগী বীরাঙ্গনা শীলা’র সাথে কথা বলতে গিয়ে কেঁদে ফেলেন প্রধানমন্ত্রী

প্রকাশিত: ৬:৫৪ অপরাহ্ণ, জুন ২০, ২০২১

শ্রীমঙ্গল উপকারভোগী বীরাঙ্গনা শীলা’র সাথে কথা বলতে গিয়ে কেঁদে ফেলেন প্রধানমন্ত্রী

স্বপন দেব, নিজস্ব প্রতিবেদক :: মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গলের উপকারভোগী ভিক্ষুক বীরাঙ্গনা শীলা গুহের সঙ্গে কথা বলতে গিয়ে কেঁদে ফেলেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।
বক্তব্যের শুরুতেই বিনামূল্যের ঘর পেয়ে যার পর নাই খুশি হয়েছেন অশীতিপর শীলা গুহ। তিনি প্রধানমন্ত্রীকে উদ্দেশ্য করে বলেন, ‘আমি ঘর পেয়ে খুবই খুশি। আগে ছিলাম রাস্তার ভিখারি এখন হলাম লাখপতি।
‘শুধু বঙ্গবন্ধুর কন্যার জন্যই আমি এ পর্যায়ে আসতে পেরেছি। তাই ভগবান তাকে দীর্ঘজীবি করুক। আর কামনা করি বঙ্গবন্ধুর আত্মা যেন শান্তি পায়। তারা যেনো স্বর্গ থেকে দেখতে পায় আমরা সুখী হয়েছি।’
সারাদেশের ৫৩ হাজারের বেশি গৃহহীন পরিবারকে ঘর দিতে ভিডিও কনফারেন্সে যুক্ত ছিলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বরাবারের মতোই অনুষ্ঠানের মূল পর্ব শেষে স্থানীয় উপকারভোগীদের সঙ্গে কথা বলেন তিনি। সে সময় এধরণের কথোপোকথন করেন প্রধানমন্ত্রী ও বীরাঙ্গনা শীলা গুহ।
শীলা জানান, প্রতিদিন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার মঙ্গল কামনা করে সন্ধ্যায় সৃষ্টিকর্তার কাছে বাতি জ্বালেন তিনি। আমি এখনও আপনার জন্য প্রতিদিন দু’টাকা দামের একটি করে বাতি জ্বালাই। কারণ আমার বোন যেন সুখী থাকে। বোনের যেন কোনো অমঙ্গল না আসে। আমার বোন যাতে হাজার বছর বাঁচে সে কামনা করি।
‘আমি মুক্তিযুদ্ধের সময়ও ভাবতে পারিনি যে বঙ্গবন্ধুর কন্যা শেষ বয়সে আমাকে দেখে রাখবেন। তাই আমি ভীষন খুশি হয়েছি তার ওপর।’
হঠাৎ বঙ্গবন্ধু কন্যার কাছে একটি দাবি করে বসেন শীলা। তিনি বলেন, ‘বঙ্গবন্ধু কন্যা, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী আপনার কাছে আমার একটি দাবি। আমাকে আপনি যে ঘর দিয়েছেন সে ঘরে একটি বারের জন্য আসবেন। আমি আপনাকে সাতকড়া দিয়ে তরকারি রান্না করে খাওয়াব।’
এ সময় প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘বোন, আমি যদি সুযোগ পাই নিশ্চয় আসার চেষ্টা করব।’
প্রধানমন্ত্রীর এ আশ্বাস শুনে চোখের পানি যেন থামছিল না শীলার। তার কান্না দেখে প্রধানমন্ত্রীর গলাও ধরে আসে।

কাঁপা কণ্ঠে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আপনাদের যে অবদান, আপনাদের যে আত্মত্যাগ এর মধ্য দিয়েই তো আমাদের স্বাধীনতা অর্জন। কাজেই আত্মত্যাগ কিন্তু কখনো বৃথা যায় না। হয়তো অনেক বছর আমরা আসতে পারিনি। কিন্তু এখন আমরা চেষ্টা করে যাচ্ছি।’

 

আমাদের ফেইসবুক পেইজ