শ্রীমঙ্গল চা গবেষণা কেন্দ্রের ৪ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে ঘুষ দাবির অভিযোগে তদন্ত কমিটি গঠন

প্রকাশিত: ১১:৩৯ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ২, ২০২০

শ্রীমঙ্গল চা গবেষণা কেন্দ্রের ৪ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে ঘুষ দাবির অভিযোগে তদন্ত কমিটি গঠন

স্বপন দেব, নিজস্ব প্রতিবেদক :: মৌলভীবাজারের বড়লেখা উপজেলার ঠিকাদার জিয়াউর রহমান জুয়েল বাংলাদেশ চা বোর্ডের শ্রীমঙ্গল চা গবেষণা কেন্দ্রের কার্যাদেশ পেয়ে ২৭ লাখ টাকার মেরামত ও সংস্কার কাজ সম্পন্ন করে সংশ্লিষ্ট অফিসে বিল জমা দিয়েছিলেন। ওই অফিসের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা ৬ লাখ টাকা ঘুষ না দেয়ায় কাজের বিল থেকে অনৈতিকভাবে ১০ লাখ টাকা কেটে ফেলেন। গত ২৯ আগস্ট শ্রীমঙ্গল চা গবেষণা ইন্সটিটিউট-ঘুষ না দেয়ায় ঠিকাদারের বিল কাটার অভিযোগ শিরোনামে পত্রিকায় সংবাদ ছাপা হলে গত ২৭ সেপ্টেম্বর বাংলাদেশ চা বোর্ড উক্ত অভিযোগ তদন্তের জন্য সরকারের যুগ্মসচিব ও বাংলাদেশ চা বোর্ডের সদস্য (অর্থ ও বাণিজ্য) ড. নাজনীন কাউসার চৌধুরীকে সভাপতি করে তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে।
বাংলাদেশ চা বোর্ডের উপসচিব ও তদন্ত কমটির সদস্য সচিব লুৎফুন নাহার স্বাক্ষরিত নোটিশ সূত্রে জানা গেছে, ঘুষ বাণিজ্যে অভিযুক্ত শ্রীমঙ্গল চা গবেষণা কেন্দ্রের অভিযুক্ত মুখ্য বৈজ্ঞানিক ড. ইসমাইল হোসেন, ঊর্ধ্বতন বৈজ্ঞানিক কর্মকর্ত (উদ্ভিদ রোগতত্ত্ব) সাইফুল ইসলাম, সহকারী প্রকৌশলী নয়ন হোসেন ও সহকারী ফ্যাক্টরি করণিক শফিকুল ইসলামকে ৬ অক্টোবর চা বোর্ডের চট্টগ্রামের প্রধান কার্যালয়ের সম্মেলন কক্ষে পৃথকভাবে তদন্ত বোর্ডে হাজির হওয়ার নির্দেশ দেয়া হয়েছে।
অভিযোগকারী ঠিকাদার জিয়াউর রহমান জুয়েল ও শ্রীমঙ্গল চা গবেষণা কেন্দ্রের পরিচালক ড. মোহাম্মদ আলীকে আগামী ৫ অক্টোবর অভিযোগের স্বপক্ষে প্রমাণাদিসহ তদন্ত কমিটির সম্মুখে উপস্থিত হতে অনুরোধ করা হয়েছে।
বাংলাদেশ চা বোর্ডের উপসচিব ও তদন্ত কমিটির সদস্য সচিব লুৎফুন নাহার জানান, ঠিকাদার জিয়াউর রহমান জুয়েল শ্রীমঙ্গল চা গবেষণা কেন্দ্রের ৪ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে বাণিজ্য মন্ত্রণালয় ও বাংলাদেশ চা বোর্ডের সচিব বরাবর ঘুষ বাণিজ্যের লিখিত অভিযোগ করেছেন। সেই অভিযোগের সত্যতা যাচাইয়ের জন্য তদন্ত করা হচ্ছে।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

সংবাদ অনুসন্ধান ক্যালেন্ডার

আমাদের ফেইসবুক পেইজ