সাংসদেরা নির্বাচনী প্রচারে অংশ নিতে পারবেন না: সিইসি

প্রকাশিত: ২:৪৭ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ১১, ২০২০

সাংসদেরা নির্বাচনী প্রচারে অংশ নিতে পারবেন না: সিইসি

ডেস্ক:: প্রধান নির্বাচন কমিশনার কে এম নুরুল হুদা। ফাইল ছবিআসন্ন ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি করপোরেশন নির্বাচনে সাংসদেরা নির্বাচনী প্রচারে অংশ নিতে পারবেন না বলে জানিয়েছেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কে এম নূরুল হুদা। সাংসদেরা নির্বাচন সমন্বয়ের কাজও করতে পারবেন না বলে তিনি জানান।

আজ শনিবার রাজধানীর আগারগাঁও নির্বাচন কমিশন (ইসি) কার্যালয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে সিইসি এ কথা বলেন। এর আগে বেলা সাড়ে ১১টার দিকে আওয়ামী লীগের এক প্রতিনিধি দলের সঙ্গে সিইসি ও কমিশনারদের বৈঠক হয়।

বৈঠক শেষে সিইসি সাংবাদিকদের বলেন, কোনো সাংসদ নির্বাচনী প্রচারে অংশ নিতে পারবেন না। নির্বাচনী কার্যক্রমে থাকতে পারবেন না। নির্বাচন সমন্বয়ও করতে পারবেন না।

সিটি করপোরেশন নির্বাচনের জন্য আওয়ামী লীগের দুই জ্যেষ্ঠ নেতা তোফায়েল আহমেদ ও আমির হোসেন আমু সমন্বয়কারী হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। সে ক্ষেত্রে নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্ঘন হয়েছে কি না, সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে সিইসি বলেন, আওয়ামী লীগ কী দায়িত্ব দিয়েছে, তা আনুষ্ঠানিকভাবে ইসি জানে না। এ ব্যাপারে ইসি অবহিত হলে নিষেধ করা হবে।

সিইসি বলেন, আচরণবিধি অনুসারে, নির্বাচনী প্রচারে অংশ নিতে বাধা রয়েছে—এমন ব্যক্তিরা প্রার্থীর পক্ষে কথা বলতে পারবেন না। ভোট চাইতে পারবেন না। তবে তাঁরা মুজিব বর্ষের মতো রাজনৈতিক কর্মসূচিতে অংশ নিতে পারবেন।

ইসির সঙ্গে বৈঠকে আওয়ামী লীগের পক্ষে ছিলেন দলের উপদেষ্টামণ্ডলীর সদস্য তোফায়েল আহমেদ, সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য শেখ সেলিম, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ, সাংগঠনিক সম্পাদক মির্জা আজম।

সিইসির আগে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা হয় তোফায়েল আহমেদের। তিনি জানান, নির্বাচনী আচরণবিধির ব্যাখ্যা জানতে তাঁরা এসেছিলেন। তিনি বলেন, নির্বাচনী সমন্বয়কারী হিসেবে সংসদ সদস্যদের কার্যালয়ে বসে পরিকল্পনা করতে বাধা নেই। তবে নির্বাচনী প্রচারে যাওয়া যাবে না। সমন্বয়কারীরা ভোট চাওয়া ছাড়া অন্য সব কিছু করতে পারবেন। তাঁরা কর্মীদের দিক-নির্দেশনা দিতে পারবেন। তিনি জানান, বৈঠকে মাহবুব তালুকদার ছাড়া বাকি কমিশনাররা একমত হয়েছেন।

তোফায়েল আহমেদ বলেন, নির্বাচন সুষ্ঠু, অবাধ ও নিরপেক্ষ হবে। ভোটাররা ভোট দিতে পারবেন।

নির্বাচন কমিশনের ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী, ৩০ জানুয়ারি ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটিতে নির্বাচন হবে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

আমাদের ফেইসবুক পেইজ