সানরাইজার্সকে হারিয়ে দ্বিতীয়ার্ধেও চেন্নাইয়ের শুভ সূচনা

প্রকাশিত: ৭:৫৮ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ১৪, ২০২০

সানরাইজার্সকে হারিয়ে দ্বিতীয়ার্ধেও চেন্নাইয়ের শুভ সূচনা

স্পোর্টস ডেস্ক

আইপিএলের দ্বিতীয়ার্ধেও জয় দিয়ে শুভ সূচনা করেছে চেন্নাই সুপার কিংস। আসরের প্রথম ম্যাচেও জয় পেয়েছিল ধোনির দল।

এরপরই টানা পরাজয় বরণ করতে থাকে। নানা সমালোচনার পর অবশেষে হারের বৃত্ত থেকে বের হতে পারল বর্তমান চ্যাম্পিয়নরা।

মঙ্গলবার রাতে দুবাই ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেট স্টেডিয়ামে নিজেদের অষ্টম ম্যাচে সানরাইজার্স হায়দরাবাদকে ২০ রানের ব্যবধানে হারিয়েছেন চেন্নাই সুপার কিংস।

টসে জিতে ব্যাট করতে নেমে শুরুতেই ধাক্কা লাগে চেন্নাই শিবিরে। সন্দ্বীপ শর্মার বলে ফাফ ডু প্লেসিস শুন্যরানে আউট হয়ে সাজঘরে ফেরেন। শেন ওয়াটসনকে নিয়ে চমৎকারভাবে এগিয়ে যেতে থাকেন স্যাম ক্যারান। ফের চেন্নাই শিবিরে সন্দ্বীপের আঘাত। ২১ বলে ৩১ রান করে সন্দ্বীপেরই শিকার হন স্যাম ক্যারান। এরপর শেন ওয়াটসনকে সঙ্গ দেন আম্বাতি রাইডু। এই জুটি খেলাকে ১৫ ওভার পর্যন্ত টেনে নিয়ে যান।৩৪ বলে ৪১ করে খলিল আহমেদের বলে আউট হন রাইডু। তার আউটের পরের ওভারেই নটরাজনের শিকার হন ওয়াটসন। তিনি করেন ৩৮ বলে ৪২। ৩৫ রানে ২ উইকেট থেকে এ জুটিটি চেন্নাইয়ের রান ১১৬তে নিয়ে যান।

শেষ ৩ ওভারে ছোট্ট দুটি ঝড়ো ইনিংস খেলেন ধোনি-জাদেজা জুটি। যে কারণে রান ১৬০ এর গণ্ডি পেরিয়ে লড়াকু পুজি এনে দেয়। ১৩ বলে ২১ রান করে নটরাজনের বলে আউট হন ধোনি। আর ১০ বলে ২৫ রানে অপরাজিত থেকে জাদেজা মাঠ ছাড়লে চেন্নাইয়ের সংগ্রহ গিয়ে দাঁড়ায় ৬ উইকেটে ১৬৭ রান।

জবাবে ব্যাট করতে নেমে পাওয়ার প্লের মধ্যে ২ উইকেট হারিয়ে চাপেই পড়ে যায় হায়দরাবাদ। অধিনায়ক ডেভিড ওয়ার্নার করেন ১৩ বলে ৯ ও মনিশ পান্ডে ৩ বলে মাত্র ৪ রান করে প্যাভিলিয়নে ফেরেন।ওয়ার্নারকে আউট করেনক্যারান। আর বেয়ারস্টোকে রানআউট করেন জাদেজা।

দলের এমন পরিস্থিতিতে উইকেট বাঁচিয়ে খেলতে গিয়ে হাত অনেকটা গুটিয়ে নেন কেন উইলিয়ামসন ও জনি বেয়ারস্টো।

কেন উইলিয়ামসনের সঙ্গে তৃতীয় উইকেট জুটিতে চাপ সামাল দিতে গিয়ে বল নষ্ট করতে থাকেন আরেক তারকা ওপেনার জনি বেয়ারস্টো।

তবুও জাদেজার ঘূর্ণিতে বোল্ড হন বেয়ারস্টো। আউটের আগে তিনি করেন ২৪ বলে মাত্র ২৩ রান। উইলিয়ামসনকে সঙ্গ দিতে নামেন উদীয়মান তারকা প্রিয়াম গার্গ। কিন্তু তিনিও উইলিয়ামসনকে রেখে আউট হয়ে যান ১৮ বলে ১৬ রান করে।

ইনিংসের দশম ওভারে দলীয় সংগ্রহকে ৫৯ রানে রেখে সাজঘরে ফিরে যান তিনি, আউট হওয়ার আগে ২৪ বল খেলে করেন মাত্র ২৩ রান।

অপর প্রান্তে একে একে ব্যাটসম্যানদের আউট হওয়া দেখতে থাকেন কিউই অধিনায়ক। ১৮তম ওভারে গিয়ে তিনিও আউট হন করণ শর্মার বলে। আউট হওয়ার আগে ৭ চারের মারে ৩৯ বলে করেন ৫৭ রান।

কিন্তু ততক্ষণে জয় অনেকটা হাতছাড়া হয়ে গেছে।

শেষদিকে বিজয় শংকর ৭ বলে ১২ রান করে ব্রাভোর বলে আউট হন। রশিদ খান ৮ বলে ১৪ রান করে হিট উইকেট হন।

জয়ের জন্য শেষ ওভারে ২২ রান করতে হতো হায়দরাবাদের দুই বোলার সন্দ্বীপ ও নটরাজনের। ডোয়াইন ব্রাভোর সেই ওভারের প্রথম চার বলে কোনো রানই করতে পারেনি এই দুই ব্যাটসম্যান। শেষের দুই বল থেকে আসে মাত্র ১ রান।

শেষপর্যন্ত ১৪৭ রানে থামে হায়দরাবাদের ইনিংস। ২০ রানের সহজ জয় পায় ধোনির চেন্নাই।

আমাদের ফেইসবুক পেইজ