নাটকীয়তায় মেয়র আরিফ

প্রকাশিত: 10:28 PM, November 18, 2019

নাটকীয়তায় মেয়র আরিফ

* নগরবাসীর ক্ষোভ

* সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সমালোচনার ঝড়

নুরুল ইসলাম
সিলেটের খোলাবাজারে পেঁয়াজ কিনতে লাইনে দাঁড়িয়েছেন সিলেট সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী। সোমবার সিলেটের কিন ব্রিজ পয়েন্টে টিসিবির পেঁয়াজ বিক্রির অস্থায়ী কেন্দ্রের লাইনে দাঁড়ান মেয়র আরিফ। এই নিয়ে সমাজিক যোগাযোগ মাধ্যমসহ সাধারণ মানুষের মধ্যে শুরু হয়েছে না আলোচনা। তবে সবাই বলছেন, মেয়র আরিফ সাহেবের বহুরূপ। তার বহুরূপ রয়েছে তিনি ফুটপাতে এক রকম, নিজ দলের রাজনীতিক আচারে অন্যরকম, সরকার দলীয় মন্ত্রী-এমপি ও শীর্ষ নেতাদের সাথে আরেক রকম, সিসিকের কর্মচারীদের সাথে অন্যরকম।
লাইনে দাঁড়ানো এক ক্রেতা বলেন, আরিফ সাহেব আসার পর লাইনের সামন থেকে অনেকেই সরে গিয়েছেন। তিনি এবার নতুন নাটক শুরু করেছেন। আর আশেপাশে অনেক চামচা রয়েছে যারা নিরাপত্তা দিতে গিয়ে আশেপাশের লোকজনকে সরিয়ে দিচ্ছেন। তিনি একজন পাক্কা অভিনেতা। যার কাছে বাস্তবও হার মানায়।
আরেকজন ক্রেতা বলেন, আরিফ আমাদের মত সাধারণ জনগণকে নিয়ে মশকরা করছেন। তিনি আমাদের কষ্ট বুঝলে তিনি লাইনে দাঁড়িয়ে আমাদের নিয়ে নাটক করতেন না। আমরা সাধারণ মধ্যবিত্ত মানুষ কত কষ্টে আছি তিনি কি বুঝবেন? সাধারণ মানুষকে নিয়ে মশকরা করা ঠিক নয়।
পাশে থাকা দিনমজুর কালা মিয়া বলেন, মেয়রের পেঁয়াজ কেনা দেখে আমিও লাইনে দাঁড়িয়েছি। সোবহানীঘাটের বশির উদ্দিন মেয়রের লাইনে দাঁড়ানোকে তামাশা হিসেবে উল্লেখ করে বলেন, বারবার নানা বিতর্কিত কর্মকান্ডের মধ্য দিয়ে নিজেকে আলোচনায় নিয়ে আসা এই মেয়রের কাজ। মূলত: এই সরকারের আমলে সিসিক মেয়রও অসহায়-এমনটি বোঝাতেই তিনি লাইনে দাঁড়িয়েছেন বলেও মন্তব্য করেন তিনি।
১ কেজি পেঁয়াজের জন্য ১ কিলোমিটার দূরে দাঁড়ানো মাহিন মিয়া বলেন, সকাল থেকে ১ কেজি পেঁয়াজের জন্য লাইনে দাঁড়িয়ে আছি। শেষ পর্যন্ত নিতে পারব কি না তা নিয়ে সন্ধিহান। আর এর মাঝে লাইনে প্রবেশ করে মেয়র সাহেবের নাটক শুরু করেছেন। তবে লাইনে দাঁড়ানো লোকজন বিনোদন হিসেবে তা উপভোগ করেছে।
দুর্মূল্যের এই বাজারে পেঁয়াজের কেজি যখন দুইশ টাকার বেশি তখন হাহাকারের মধ্যে থাকা সিলেট নগরবাসীকে মাত্র ৪৫ টাকায় পেঁয়াজ দিচ্ছে ট্রেডিং কর্পোরেশন অব বাংলাদেশ (টিসিবি)। সিলেটের তিনটি পয়েন্টে টিসিবির মাধ্যমে খোলাবাজারে এই পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে। লাইনে দাঁড়িয়ে মেয়র আরিফের পেঁয়াজ ক্রয় নিয়ে মিশ্র প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করছেন অনেকেই।
মেয়রের পেছনে লাইনে দাঁড়ানো জল্লারপাড়ের সানু মিয়া এক প্রতিক্রিয়ায় বলেন, সিসিক মেয়র ভালো নাটক জানেন, তার প্রমাণ আবারো দেখালেন নগরবাসীকে। তিনি বলেন, পেঁয়াজের দাম যখন উর্ধ্বমুখী তখন নগরবাসীর অভিভাবক হিসেবে মেয়রের কোনো বিবৃতি পাওয়া যায়নি। তাছাড়া, সিসিকের উদ্যোগে পেঁয়াঁজ বাজারে পরিচালিত হয়নি কোনো অভিযান। মেয়র মৌলিক দায়িত্ব পালন না করে লাইনে দাঁড়িয়ে মূলত আবারো আলোচনায় উঠতে চাইছেন। তিনি মেয়রের এই ঘটনাকে নাটক হিসেবে মনে করে ক্ষোভও প্রকাশ করেন।
কিন ব্রিজ পয়েন্টে পেঁয়াজ কিনতে তালতলা থেকে আসা শফিক উদ্দিন বলেন, পেঁয়াজের যে দাম তাতে বাজার থেকে কেনা আমাদের পক্ষে সম্ভব ছিল না। এক কেজি পেঁয়াজ দিচ্ছে তারা, ওটা কম হলেও আমাদের জন্যে লাভ হয়েছে। অন্তত পেঁয়াজ খেতে পারব।
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক অপর একজন ব্যবসায়ী বলেন, এক সপ্তাহ আগে কয়েক কোটি টাকা চাঁদা তুলে রবীন্দ্র শতবর্ষ উদযাপনের টাকা হয়তোবা শেষ হয়ে গেছে, তাই মেয়র এবার লাইনে এসেছেন।
এসময় সিসিক মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী জানান, সাধারণ মানুষের কাতারে এসে পেঁয়াজ কিনতে আসা তার প্রতীকী প্রতিবাদ। এসময় তিনি পেঁয়াজ, চালসহ নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসপত্রের দাম কমানোর দাবি জানান।
টিসিবি সিলেটের ইনচার্জ মো. ইসমাইল মজুমদার বলেন, সকাল থেকেই আমরা খোলাবাজারে পেঁয়াজ বিক্রি শুরু করেছি। আমাদের ডিলার সরকার নির্ধারিত মূল্যে নগরের ৩টি পয়েন্টে ৩টি ট্রাকের মাধ্যমে পেঁয়াজ বিক্রি করছে। মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী লাইনে দাঁড়িয়ে পেঁয়াজ ক্রয়ের সময় সঙ্গে লাইনে দাঁড়ানো ছিলেন কাউন্সিলর মখলিছুর রহমান কামরান, বিএনপি নেতা মঈন উদ্দিন সুহেল, সুহেল আহমদ, শাহাব উদ্দিন শিহাব।

লাইনে দাঁড়িয়ে মেয়র আরিফের নাটকীয়তা, নগরজুড়ে তুলপাড় (ভিডিও)

লাইনে দাঁড়িয়ে মেয়র আরিফের নাটকীয়তা, নগরজুড়ে তুলপাড় (ভিডিও)

Posted by Syl News BD on Monday, November 18, 2019

 

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

আমাদের ফেইসবুক পেইজ