সিলেটে অপচিকিৎসায় মৃত্যুর অভিযোগ পেলেই কঠোর ব্যবস্থা

প্রকাশিত: ১২:৩৭ পূর্বাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১৬, ২০২১

সিলেটে অপচিকিৎসায় মৃত্যুর অভিযোগ পেলেই কঠোর ব্যবস্থা

নিউজ ডেক্স :: সিলেটে একদিনে অপচিকিৎসায় একাধিক মৃত্যুর অভিযোগ উঠেছে। এ নিয়ে সংঘর্ষের ঘটনা এবং রাস্তা অবরোধ পর্যন্ত হয়েছে। মোটামুটি চিকিৎসা ক্ষেত্রে একটা অত্যন্ত খারাপ দিন গেল সিলেটবাসীর জন্য।

বুধবার দুপুরের দিকে সিলেটের রাগীব রাবেয়া মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে করোনায় আক্রান্ত একজন মহিলার মৃত্যুর ঘটনায় তুলকালাম কা- ঘটে গেছে। একই হাসাপাতালে টিউমারের একরোগীকে মৃতু অবস্থায় আইসিইউতে রেখে দেয়ার অভিযোগ তুলেছেন তার স্বজনরা। এ ব্যাপারে প্রতিবাদ করায় দুই নারীর আত্মীয়স্বজনের উপর হামলা করেছে হাসপাতালটির নিরাপত্ত কর্মীরা। এরপর বিকেলে অবরোধ হয়েছে সিলেট সুনামগঞ্জ সড়ক। ৩০ মিনিট স্থায়ী সেই অবরোধ প্রত্যাহার হয়েছে পুলিশী হস্তক্ষেপে।

প্রায় একই ধরনের অভিযোগে উত্তাল হয়ে উঠেছিল সিলেটের সুবহানীঘাটের মা ও শিশু হাসপাতালের বিরুদ্ধে। ভিশম খেয়ে অসুস্থ হয়ে পড়া ৪ মাসের একটি শিশুকে হাসপাতালটিতে ভর্তি করেছিলেন তার বাবা মঙ্গলবার দুপুরে। তাকে দ্রুত আইসিইউতে ভর্তি করেছিলেন হাসপাতালটির সংশ্লিষ্ট দায়িত্বশীলরা।

শিশুটির বাবার অভিযোগ, ভর্তির পর থেকেই তারা বারবার তাদের জানাচ্ছিলেন যে তার অবস্থার উন্নতি হচ্ছে। তারাও আশাবাদী হয়ে উঠেছিলেন। কিন্তু বুধবার বিকেল ৫টার দিকে হাসপাতল কর্তৃপক্ষ ছাড়পত্র দেয়ার পর জানান শিশুটি মারা গেছে। এ নিয়েও সেখানে ঘটেছে তুলকালাম কা-।

এসব ব্যাপারে স্বাস্থ্য অধিদফতরের ভূমিকা জানতে সিলেটের বিভাগীয় পরিচালক (স্বাস্থ্য) ডাক্তার হিমাংশু লাল রায় জানান, লিখিত অভিযোগ পেলে আমরা তদন্ত করব এবং সত্যতা পেলে কঠোর আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে। তিনি বলেন, প্রত্যেক রোগীর মৃত্যুর কারণ সম্পর্কে জানার অধিকার তার স্বজনদের রয়েছে। তবে এক্ষেত্রে সাধারণ মানুষ সঠিক পথে অগ্রসর না হওয়ায় অনেক সময় দুঃখজনক ঘটনা ঘটে যায়।

তিনি বলেন, ডাক্তারের ভুলে রোগীর মৃত্যু হলে সেটিও সমাধানের সুন্দর পথ আছে। কিন্তু রোগীর স্বজনরা যেমন এক্ষেত্রে আবেগপ্রবণ হয়ে অনেক সময় ভুল পথ ধরেন, তেমনি অনেক চিকিৎসক বা হাসপাতাল কর্তৃপক্ষও ভুল পথে অগ্রসর হন। এটি অবশ্যই দুঃখজনক। কিছুতেই এমন ঘটনা আমাদের কাম্য নয়।

তিনি বলেন, এ ধরনের যেকোন ঘটনার ক্ষেত্রে লিখিত অভিযোগ নিয়ে সিভিলসার্জন এবং স্বাস্থ্য অধিদফতর কার্যালয়ে কেউ এলে এবং সঠিক তদন্তের মাধ্যমে সত্যতা নিশ্চিত হতে পারলে অবশ্যই সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানগুলোর বিরুদ্ধে কঠোর আইনানুগ ব্যবস্থা নিতে প্রস্তুত।

 

সংবাদ অনুসন্ধান ক্যালেন্ডার

MonTueWedThuFriSatSun

আমাদের ফেইসবুক পেইজ