সিলেটে কলেজছাত্র হত্যা মামলার আসামি কুষ্টিয়ায় গ্রেফতার

প্রকাশিত: ১০:৩৩ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ২৭, ২০২১

সিলেটে কলেজছাত্র হত্যা মামলার আসামি কুষ্টিয়ায় গ্রেফতার

নিজস্ব প্রতিবেদক, সিলেট:

সিলেটের দক্ষিণ সুরমা সরকারি কলেজ ক্যাম্পাসে আরিফুল ইসলাম রাহাত খুনের ঘটনার মামলায় প্রধান আসামি সামসুদ্দোহা সাদীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গত মঙ্গলবার রাতে কুষ্টিয়া জেলার দৌলতপুর ইউনিয়নের দুর্গম চর এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। এ নিয়ে বুধবার দুপুরে ঢাকায় সংবাদ সম্মেলন করেছে সিআইডি। সাদীকে সিলেটে নিয়ে আসা হয়েছে।

সংবাদ সম্মেলনে সিআইডি জানায়, রাহাত খুনের ঘটনায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হওয়ায় ঘটনার ছায়া তদন্ত শুরু করে সিআইডি। বিশেষ পুলিশ সুপার মুক্তা ধরের নির্দেশনায় এলআইসি’র একটি চৌকস টিম কুষ্টিয়া জেলার দৌলতপুর ইউনিয়নের দুর্গম চর এলাকা থেকে মামলার প্রধান আসামি সামসুদ্দোহা সাদীকে (২৩) গ্রেফতার করে। সে সিলেটের দক্ষিণ সুরমার সিলাম পশ্চিমপাড়ার মৃত মোবারক আলীর ছেলে।
সাদীকে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের বরাতে সিআইডি জানায়, সে হত্যার ঘটনা স্বীকার করেছে। বয়সে সাদী ছিলেন রাহাতের চেয়ে বড়। এজন্য তিনি রাহাতের কাছে ‘জ্যেষ্ঠতা’ (সিনিয়রিটি) দাবি করে আসছিলেন। এ নিয়ে উভয়ের বিবাদের অংশ হিসেবে হত্যাকাণ্ডটি সংঘটিত হয়। ঘটনার সময় সাদীর পকেটে ছোরা ছিল বলে জানায় সিআইডি। সেটি দিয়েই তিনি রাহাতকে ছুরিকাঘাত করেন।

সিআইডি জানায়, ঘটনার পর সাদী পালিয়ে ঢাকার মিরপুরে অবস্থান করেন। সেখান থেকে আত্মগোপনে কুষ্টিয়ায় চলে যান তিনি।
আরিফুল ইসলাম রাহাত খুনের ঘটনায় গত ২২ অক্টোবর রাতে তার চাচা শফিকুল ইসলাম বাদী হয়ে ছাত্রলীগের তিনকর্মীসহ অজ্ঞাত আরো ৭ জনের বিরুদ্ধে মামলা করেন। এজহারনামীয় অপর দুই আসামি হলেন সিলাম এলাকার জামাল মিয়ার ছেলে তানভীর আহমদ ও তেতলি ইউনিয়নের আহমদপুর গ্রামের মৃত গৌছ মিয়ার ছেলে ওলিদুর রহমান সানী।

প্রসঙ্গত, গত ২১ অক্টোবর বৃহস্পতিবার আরিফুল ইসলাম রাহাত প্রাইভেট পড়তে যাওয়ার উদ্দেশ্যে বেলা সাড়ে ১১টার দিকে বাড়ি থেকে বের হন। এসময় চাচাতো ভাই রাফি তার সঙ্গে মোটরসাইকেলে ছিলেন। যাবার পথে চাচাতো ভাইকে কলেজগেটে রেখে এক বন্ধুর সাথে দেখা করতে কলেজ ক্যাম্পাসে যান রাহাত। পরে বের হওয়ার সময় দুপুর সোয়া ১২টার দিকে কলেজের মূল গেটের ভেতরে সাদী ও তানভীর মোটরসাইকেলযোগে এসে রাহাতকে এলোপাতাড়ি ছুরিকাঘাত করে পালিয়ে যান। পরে রাহাতকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। রাহাত দক্ষিণ সুরমা উপজেলার পুরাতন তেতলি এলাকার সুরমান আলীর ছেলে ও দক্ষিণ সুরমা কলেজের দ্বাদশ শ্রেণির বিজ্ঞান বিভাগের ছাত্র।
সিলনিউজবিডি ডট কম / এস:এম:শিবা

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

সংবাদ অনুসন্ধান ক্যালেন্ডার

MonTueWedThuFriSatSun

আমাদের ফেইসবুক পেইজ