সিলেটে কাজের শিশু নির্যাতনের অভিযোগ সত্য নয় : পুলিশ (ভিডিও)

প্রকাশিত: ৯:২২ অপরাহ্ণ, জুন ২৩, ২০২১

সিলেটে কাজের শিশু নির্যাতনের অভিযোগ সত্য নয় : পুলিশ (ভিডিও)

নিজস্ব প্রতিবেদক :: সিলেট নগরীর উপশহরে কাজের শিশুকে মারধর করে বাথরুমে আটকে রাখার ঘটনায় ধুম্রজাল সৃষ্টি হয়েছে। প্রথমে শিশুটি ও এলাকার বাসিন্দারা নির্যাতনের অভিযোগ তুললেও পরে থানায় গিয়ে শিশুটি তা অস্বীকার করেছে বলে জানিয়েছে পুলিশ। এমন কী শিশুটির শরীরে নির্যাতনের কোন চিহ্নও নেই বলে পুলিশের দাবী।

এর আগে, সিলেট নগরীর শাহজালাল উপশহরের ই-ব্লকে পরিবেশ অধিদপ্তরের পরিচালক এমরান হোসেনের বাসার বাথরুম কাজের শিশু রুনা আক্তারকে তালাবদ্ধ করে নির্যাতন করার অভিযোগ পাওয়া যায়। নির্যাতনের সময় তার শরীরে মরিচের গুড়োও ছিটিয়ে দেয়া হয় বলে শিশুটি অভিযোগ করে।

পরে বাথরুমে তালাবদ্ধ রুনা আক্তারের চিৎকার ও কান্না শুনে স্থানীয়রা পুলিশে খবর দেন। খবর পেয়ে শাহপরাণ থানার একদল পুলিশ এমরান হোসেনের বাসায় গিয়ে তালাবদ্ধ বাথরুম থেকে রুনা আক্তারকে উদ্ধার করে। পরে অধিদপ্তরের পরিচালক এমরান হোসেনের স্ত্রীকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে শাহপরাণ থানায় নিয়ে যাওয়া হয়।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে শাহপরাণ থানার অফিসার ইনচার্জ সৈয়দ আনিসুর রহমান বলেন, শিশুটি একেক সময় একেক কথা বলছে। আমরা বিস্তারিত পর্যালোচনা করে দেখেছি তার অভিযোগ সত্য নয়। এবং তারা শরীরে মারধরের কোনো স্পট পাওয়া যায় নাই। শারীরিকভাবে নির্যাতনের বিষয়ে কিছু বলেনি। তার বক্তব্য হলো সে এখানে থাকবে না। তার গ্রামের বাড়িতে চলে যেতে চায়। তবে মাঝে মাঝে তাকে বকাঝকা করা হয়- এ কথাটি বলেছে।

তিনি বলেন, এমরান হোসেনের স্ত্রী ফারহানা চৌধুরীকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য থানায় আনা হয়েছে। শিশুটির অভিবাবকদের খবর দেয়া হয়েছে।  অভিবাবকরা এলে বিস্তারিত আলাপ-অলোচনা করে এর একটা সুরাহা করা হবে।

শিশু ও এমরান হোসেনের স্ত্রী ফারহানা চৌধুরী বর্তমানে থানায় আছেন বলে জানান ওসি সৈয়দ আনিসুর রহমান।

নিচের লিংকে ভিডিও

https://fb.watch/v/R6PFgBWy/

সংবাদ অনুসন্ধান ক্যালেন্ডার

আমাদের ফেইসবুক পেইজ