সিলেটে নারী সদস্যদের মাধ্যমে নাশকতার পরিকল্পনা ছিল শাফায়েতের

প্রকাশিত: ৩:৪৩ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ১৪, ২০২০

সিলেটে নারী সদস্যদের মাধ্যমে নাশকতার পরিকল্পনা ছিল শাফায়েতের

নিজস্ব প্রতিনবেদক :: ফেসবুকে বিভিন্ন গ্রুপ খুলে জঙ্গিবাদের বিস্তার ও সিলেটে বড় ধরনের নাশকতার পরিকল্পনা করছিল নিষিদ্ধ জঙ্গি সংগঠন ‘আনসার আল ইসলাম’। সংগঠনটির সদস্যরা ধর্মভীরু নারীদের উগ্রবাদী কার্যক্রম ও নাশকতা করতে উদ্বুদ্ধ করছিল।

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় সিলেট নগরীর সাগরদিঘীরপার মনিপুরীপাড়া এলাকা থেকে আটক করা হয় জঙ্গি সংগঠনটির সক্রিয় সদস্য শাফায়েত আহমেদ চৌধুরীকে। তাকে জিজ্ঞাসাবাদে এসব তথ্য পায় র‌্যাব।

র‌্যাব বলছে, আটক শাফায়েত আনসার আল ইসলামের সক্রিয় সদস্য। তাকে আটকের আগে মুন্সিগঞ্জ থেকে আত্মঘাতি জঙ্গি দলের তিন সদস্যকে গ্রেপ্তার করা হয়। তাদের স্বীকারোক্তিতে শাফায়েত আহমেদের নাম পাওয়া যায়। আটকের সময় তার কাছ থেকে উদ্ধার করা হয় ১৫টি জেহাদি বই, জঙ্গিদের ট্রেনিং ম্যানুয়েল, পাসপোর্ট, মোবাইল, ল্যাপটপ, ভিডিও নির্মাণের বিভিন্ন সামগ্রী ও উস্কানিমূলক লিফলেট।

শাফায়েত সিলেট ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির ইংরেজি বিভাগের ২য় বর্ষের শিক্ষার্থী বলে জানা গেছে।

র‌্যাব-২ এর কোম্পানি কমান্ডার (সিপিসি-২) এসপি মোহাম্মদ মহিউদ্দিন ফারুকী ঢাকাটাইমসকে আটকের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, গত ৩০ জানুয়ারি মুন্সীগঞ্জ থেকে আবু রায়হান লিমন, সাইফুল্লাহ নাঈম ও নাবিল চোকদার নামে তিন জঙ্গিকে আটক করা হয়। তারা আনসার আল ইসলামের আত্মঘাতি জঙ্গি দলের সদস্য ছিলেন। আটকের পর জিজ্ঞাসাবাদে তারা শাফায়েতের নাম জানিয়েছিল। তাকে ধরে র‌্যাব ব্যাপক নজরদারি শুরু করে। বুধবার রাত থেকে সিলেট নগরীর বিভিন্ন জায়গায় অভিযান চালানো হয়। আজ সন্ধ্যায় সাগর-দিঘীরপার মনিপুরীপাড়ায় একটি বাসায় অভিযান চালিয়ে শাফায়েতকে আটক করা হয়।

মহিউদ্দিন ফারুকী জানান, শাফায়েত আহমেদ এই জঙ্গি সংগঠনের সঙ্গে প্রত্যক্ষভাবে জড়িত ছিল। আমরা তার ল্যাপটপ ও মোবাইল ফোনে জঙ্গিবাদের বিভিন্ন প্রমাণ পেয়েছি। সামাজিক যোগযোগমাধ্যমে বিভিন্ন গ্রুপ খুলে জঙ্গিবাদের বিস্তার ঘটাচ্ছিল। এমনকি সিলেটে বড় ধরনের নাশকতার পরিকল্পনাও করছিল। সেই সঙ্গে ধর্মভীরু নারীদের উগ্রবাদী কার্যক্রম ও নাশকতা করতে উদ্বুদ্ধও করছিল।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

আমাদের ফেইসবুক পেইজ