সিলেটে নিবন্ধন করেছেন ১৮ হাজার, প্রথমদিন টিকা পাবেন ৭০০ জন

প্রকাশিত: ১০:৫৭ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ৬, ২০২১

সিলেটে নিবন্ধন করেছেন ১৮ হাজার, প্রথমদিন টিকা পাবেন ৭০০ জন

নিজস্ব প্রতিবেদক

করোনাভাইরাসের (কোভিড-১৯) টিকা গ্রহণের জন্য সিলেট জেলায় এ পর্যন্ত নিবন্ধন করেছেন মাত্র ১৮ হাজার ৮৯ জন। রোববার থেকে তাদের টিকা প্রদান শুরু হবে। রোববার (৭ ফেব্রুয়ারি) সিলেট নগরের ৭০০ জনকে টিকা প্রদান করা হবে। ইতোমধ্যে তাদের মোবাইলে টিকা গ্রহণের জন্য বার্তা প্রদান করা হয়েছে বলে সংশ্লিস্টরা জানিয়েছেন।

রোববার সকালে টিকা প্রদান কার্যক্রমের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করা হবে। সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে এ উদ্বোধনী অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হবে। এতে অনলাইনের মাধ্যমে যুক্ত হবেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. একে আব্দুল মোমেন ও স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালিক। এছাড়া সিলেট সিটি করপোরেশনের মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী, সিলেটের প্রশাসন ও স্বাস্থ্য বিভাগের কর্মকর্তারা উপস্থিত থাকবেন।

সিলেট সিটি করপোরেশনের প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. মো. জাহিদুল ইমলাম বলেন, রোববার প্রথমদিনে আমরা ৭০০ জনকে টিকা প্রদানের প্রস্তুতি নিয়েছি। ইতোমধ্যে এই ৭০০ জনের মোবাইলে বার্তা প্রেরণ করা হয়েছে।

তিনি বলেন, প্রথমদিনে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ও সিলেট বিভাগীয় পুলিশ লাইন্স হাসপাতালের ১৩টি বুথের মাধ্যমে টিকা প্রধান শুরু হবে।

এদিকে, টিকা নিতে শনিবার দুপুর পর্যন্ত সিলেট ৩৬ হাজার ৫১২ জন অনলাইনে নিবন্ধন করেছেন। এর মধ্যে সিলেট জেলার ১৮ হাজার ৮৯ জন, সুনামগঞ্জের ৮ হাজার, হবিগঞ্জের ৬ হাজার ২২ ও মৌলভীবাজারের ৪ হাজার ৪০১ জন।

এসব তথ্য নিশ্চিত করে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর সিলেট বিভাগীয় কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক ডা. আনিসুর রহমান বলেন, টিকা প্রদান সুষ্টভাবে শুরু করতে সবধরণের প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে।

সিলেট নগরের বাইরে ১২ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সগুলোতেও রোববার টিকা প্রদান কার্যক্রম শুরু হবে। এছাড়া সিলেট সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালেও টিকা প্রদান করা হবে।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, প্রথম পর্যায়ে সিলেট জেলা, মহানগর ও সিলেট সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালসহ মোট ৪১ টি বুথে শুরু হবে এই ভ্যাক্সিনেশন কার্যক্রম। এর মধ্যে ১৩ উপজেলায় ২৪টি ও নগরের দুটি হাসপাতালে ১৩টি ও সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে (সিএমএইচ) রয়েছে ৪টি বুথ।

সিলেটের ডেপুটি সিভাল সার্জন ডাঃ মোহাম্মদ নুরে আলম শামীম বলেন, নিবন্ধনকৃতদের মধ্যে যারা ফ্রন্টলাইনার তাদের প্রথমে টিকা প্রদান করা হবে। ফ্রন্ট লাইনারদের মধ্যে চিকিৎসক, স্বাস্থ্যকর্মী, প্রশাসনের কর্মকর্তা-কর্মচারী, নিরাপত্তাবাহিনীর সদস্যরা রয়েছেন।

সিলেটে টিকাদান কর্মসূচি সফল করতে এরই মধ্যে প্রশিক্ষণসহ সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে জেলা প্রশাসন।

আগে গত ৩১ জানুয়ারি করোনাভাইরাসের সংক্রমণ প্রতিরোধে ২ লাখ ২৮ হাজার ডোজ করোনা ভ্যাকসিন সিলেটে এসে পৌঁছে।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

সংবাদ অনুসন্ধান ক্যালেন্ডার

আমাদের ফেইসবুক পেইজ