সুনামগঞ্জে বন্যায় ভাসলো ২১ কোটি ৪৫ লক্ষ টাকার মাছ, দিশেহারা মৎস্য চাষিরা

প্রকাশিত: ৪:১০ অপরাহ্ণ, জুলাই ২, ২০২০

সুনামগঞ্জে বন্যায় ভাসলো ২১ কোটি ৪৫ লক্ষ টাকার মাছ, দিশেহারা মৎস্য চাষিরা

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি :: টানা বৃষ্টি আর পাহাড়ি ঢলের সুনামগঞ্জে বানের পানিতে ভেসে গেছে ৩ হাজারেরও বেশি পুকুরের মাছ। এতে প্রায় ২১ কোটি ৪৫ লক্ষ টাকার মাছ পানিতে ভেসে যায়। এতে ব্যাপক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে জেলার মৎস্য চাষীরা। করোনার এমন মহামারিতে দুর্যোগ কাটিয়ে উঠার আগেই বানের জলে এমন ক্ষতিতে দিশেহারা হাওরের মৎস্য খামারীরা । হাওরের পানিবন্দী মানুষের এমন দুর্ভোগে সরকার থেকে যাতে কিছুটা সাহায্য মিলে সেই দাবি করেছেন স্থানীয় খামারীরা।

পাহাড়ি ঢল আর ভারী বর্ষণে সুনামগঞ্জে প্লাবিত হয়েছে লাখো মানুষ তলিয়ে গেছে শতাধিক গ্রাম। বিস্তীর্ণ এসব এলাকা প্লাবিত হওয়া ১১ উপজেলায় বন্যার পানিতে ভেসে গেছে ৩ হাজার ৮১টি পুকুর ও দিঘীর ও খামারের মাছ। এতে ক্ষতি হয়েছে প্রায় ২১ কোটি ৪৫ লক্ষ টাকার। হাওরাঞ্চলে মৌসুমের ৬মাস ধান আর বাকি ৬ মাস মাছ চাষ করে জীবিকা নির্বাহ করেন এ অঞ্চলের লোকজন। হাওর এলাকার এসব লোকজন অনেকে ধার দেনা করে পুকুরে মাছের চাষ করেছিলেন কিন্তু বন্যার পানিতে সব তলিয়ে যাওয়া দিশেহারা এসব মৎস্য চাষিরা। জেলার সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে জেলা সদর উপজেলার খামারীরা। সেখানে একটি খামার ইব্রাহিমপুর মর্ডান এগ্রো কমপ্লেক্সে লিমিঃ নামে এক খামারীর প্রায় ৭০ লাখ টাকার মাছ পানিতে ভেসে গেছে। এছাড়া সদর উপজেলা ১২১৮ টি পুকুরের মাছ ভেসে গেছে। করোনার এমন মহামারিতে দুর্যোগ কাটিয়ে উঠার আগেই বানের জলে এমন ক্ষতিতে দিশেহারা হাওরের মৎস্য খামারীরা

মাছ ও মাছের পোনাসহ পুকুরের অবকাঠামোগত নানা ক্ষতি হয়েছে। হাওরের মৎস্য খামারিরা মাছ হারিয়ে এখন দুশ্চিন্তায় পড়েছেন। সরকার থেকে যাতে কিছুটা সাহায্য মিলে সেই দাবি করেছেন স্থানীয় খামারীরা।

জেলা মৎস্য কর্মকর্তা মা. আবুল কালাম আজাদ জানান দুই দফা বন্যায় জেলার ১০৮১ টি পুকুরের প্রায় ৪ কোটি ৬০ লক্ষ টাকার মাছ ভেসে গেছে। এতে খামারিদের অনেক ক্ষতি হয়েছে। ক্ষতির হিসাব আমরা ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের কাছে পাঠিয়েছি।

সংবাদ অনুসন্ধান ক্যালেন্ডার

MonTueWedThuFriSatSun

আমাদের ফেইসবুক পেইজ