স্বতন্ত্রের মোড়কে নির্বাচনে বিএনপি!

প্রকাশিত: ৪:৫৫ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ২৩, ২০২১

স্বতন্ত্রের মোড়কে নির্বাচনে বিএনপি!

নিজস্ব প্রতিবেদক :: বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব বারবার বলছে, বর্তমান সরকারের অধীনে আর কোনোও নির্বাচনে তাঁরা অংশগ্রহণ করবেন না, প্রার্থী দেবেন না। চলতি মাসের শুরুতেও দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর “বিএনপি বর্তমান সরকারের অধীনে দলীয়ভাবে কোনো নির্বাচনেই অংশ নিবে না। কারণ বর্তমান সরকার জবরদস্তিমূলক দখলদার সরকার। এ সরকারের অধীনে সুষ্ঠু নির্বাচন সম্ভব না। বর্তমান সরকার সব নির্বাচন তাদের মতো করে পরিচালনা করেছে। নির্বাচন কমিশনকে নিয়ন্ত্রণ রেখে একটি তোষণমূলক প্রতিষ্ঠানে পরিণত করেছে।”

কেন্দ্র থেকে নির্বাচনে অংশগ্রহণে নেতিবাচক বার্তা এলেও সিলেটে তৃণমূল নেতাকর্মীরা তা মানছেন কই! কেন্দ্রের নির্দেশনা অমান্য করে স্বতন্ত্র হিসেবেই নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নামছেন বিএনপি নেতারা।

দেশে দ্বিতীয় ধাপে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন হবে আগামী ১১ নভেম্বর। এ নির্বাচনের তালিকায় রয়েছে সিলেট জেলার তিনটি উপজেলার ১৫টি ইউনিয়নও। এসব ইউনিয়নে বিএনপির ১৫ নেতাকর্মী স্বতন্ত্র থেকে ভোটের মাঠে রয়েছেন। তাদের মনোনয়নপত্রও বৈধ বলে ঘোষণা করেছে নির্বাচন কমিশন।

জানা গেছে, সিলেট সদর উপজেলার চারটি ইউনিয়নে ১১ নভেম্বর ভোট হবে। এর মধ্যে তিনটিতে বিএনপির পাঁচ নেতাকর্মী স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়েছেন। হাটখোলা ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি রফিকুল ইসলাম চেয়ারম্যান পদে স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়েছেন। জালালাবাদ ইউনিয়নে বিএনপির কর্মী মো. আশিক আলী, মুজিবুর রহমান ও ইসলাম উদ্দিন এবং মোগলগাঁও ইউনিয়নে দলটির কর্মী ফজলু মিয়া প্রার্থী হয়েছেন।

সিলেটের কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার পাঁচটি ইউনিয়নে ওইদিন ভোটের লড়াই হবে। এ লড়াইয়ে চারটি ইউনিয়নে বিএনপির সাতজন কর্মী প্রার্থী হয়েছেন। এর মধ্যে ইসলামপুর পূর্ব ইউনিয়নে মো. আলমগীর আলম; ইছাকলস ইউনিয়নে মো. মকবুল আলী, আবুছাদ আবদুল্লাহ ও বর্তমান চেয়ারম্যান মো. কুটি মিয়া; উত্তর রণিখাই ইউনিয়নে মো. গিয়াস উদ্দিন এবং দক্ষিণ রণিখাই ইউনিয়নে শামস উদ্দিন শাহীন ও মো. শাহাব উদ্দিন স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়েছেন।

একইদিন নির্বাচন হবে বালাগঞ্জ উপজেলার ছয়টি ইউনিয়ন পরিষদে। এর মধ্যে তিনটিতে চেয়ারম্যান পদে লড়ছেন বিএনপির তিন নেতা। এ তিনজনই উপজেলা বিএনপির বর্তমান আহবায়ক কমিটির সদস্য। দেওয়ানবাজার ইউনিয়নে উপজেলা বিএনপির সাবেক যুগ্ম সম্পাদক নাজমুল আলম, বালাগঞ্জ সদর ইউনিয়নে বর্তমান চেয়ারম্যান মো. আবদুল মুনিম এবং পূর্ব গৌরিপুর ইউনিয়নে উপজেলা বিএনপির সাবেক সাধারণ সম্পাদক মুজিবুর রহমান প্রার্থী হয়েছেন।

স্বতন্ত্র থেকে প্রার্থী হলেও বিএনপির এসব নেতাকর্মীকে নিয়ে অস্বস্তিতে রয়েছেন জেলা বিএনপির নেতারা। তারা বলছেন, যারা প্রার্থী হয়েছেন, তাদের ব্যাপারে ব্যবস্থা গ্রহণের বিষয়ে কেন্দ্রই সিদ্ধান্ত নেবে।

জানতে চাইলে সিলেট জেলা বিএনপির আহ্বায়ক কামরুল হুদা জায়গীরদার সিলেটভিউকে বলেন, “বর্তমান সরকারের অধীনে জাতীয়, স্থানীয় কোনো নির্বাচনেই যাবে না বিএনপি। কেন্দ্র থেকে এই সিদ্ধান্ত জানিয়ে দেওয়া হয়েছে। কোনো নির্বাচনে দলের পক্ষ থেকে তাই প্রার্থী দেওয়া হচ্ছে না। এখন যারা ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে অংশ নিচ্ছেন, সেটা তারা তাদের নিজস্ব সিদ্ধান্তে করছেন। এখানে দলের কোনো সমর্থন নেই।”
সিলনিউজবিডি ডট কম / এস:এম:শিবা

সংবাদ অনুসন্ধান ক্যালেন্ডার

MonTueWedThuFriSatSun

আমাদের ফেইসবুক পেইজ