২২ মাসের বকেয়া বোনাস পরিশোধের দাবীতে চা শ্রমিকদের মানববন্ধন

প্রকাশিত: ৭:২২ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ১৩, ২০২০

২২ মাসের বকেয়া বোনাস পরিশোধের দাবীতে চা শ্রমিকদের মানববন্ধন

বকেয়া বেতন ও নতুন চুক্তির দাবীতে এবং শারদীয় দুর্গা উৎসবের আগে চা-শ্রমিকদের অবিলম্বে ৩০০ টাকা মজুরী বৃদ্ধি ও ২২ মাসের বকেয়া বোনাস পরিশোধের দাবীতে চা শ্রমিকদের উদ্যোগে মানববন্ধন সহ ২ ঘন্টা কর্মবিরতী পালন করেছে খান চা বাগান ও হাবিব নগর চা বাগানের চা শ্রমিক ও নেতৃবৃন্দরা।
মঙ্গলবার (১৩ অক্টোবর) সকাল ১১টায় চিকনাগুল বাজারে এই মানববন্ধন পালন করা হয়। এসময় চা শ্রমিকরা চিকনাগুলের বিভিন্ন রাস্তা অবরোধ করে তারা তাদের দাবি আদায়ে ১০ মিনিট অবস্থান কর্মসূচী পালন করে।
বক্তারা বলেন, আমাদের উৎপানকৃত চা বাংলাদেশ সহ সারা বিশ্বের সব বাজারে অতি দামে বিক্রয় করা হলেও, আমাদের জীবনমান উন্নয়ন কল্পে কেউ এগিয়ে আসছে না। বিশ্বের কোথাও এত স্বপ্ল আয়ের মজুরী নেই। করোনা কালীন সময়েও আমরা চা-বাগনের কাজ চালিয়ে গেয়েছি। এই দেশের অর্থনৈতিক চাকাকে সচল রেখেছি। কিন্তু আমরা বিনিময়ে কি পেয়েছি, বকেয়া বোনাস ২২ মাস হওয়ার পরও মালিক পক্ষ মজুরী বৃদ্ধি করছে না। এটা আমাদের কোন আন্দোলন নয়, আমাদের ন্যায্য দাবি আদায়ে এই আন্দোলন করে যাচ্ছি। অনতিবিলম্বে আমাদের বকেয়া বেতন ও নতুন চুক্তির দাবীতে এবং শারদীয় দুর্গা উৎসবের আগে চা-শ্রমিকদের অবিলম্বে ৩০০ টাকা মজুরী বৃদ্ধি ও ২২ মাসের বকেয়া বোনাস পরিশোধের দাবি জানাচ্ছি। অন্যথায় যত দিন এর বাস্তবায়ন না হবে আমরা লাগাতার ২ ঘন্টা কর্মবিরতী পালন করব।
বাংলাদেশ চা শ্রমিক ইউনিয়ন সিলেট ভ্যালী কার্যকরি পরিষদের সম্পাদক শ্রী দেবু বাউরীর সভাপতিত্বে ও হাবিব নগর চা বাগানের পঞ্চায়েত কমিটির সভাপতি শ্রী সুমন কালিন্দীর পরিচালনায় মানববন্ধন ও কর্মবিরতীকালে উপস্থিত ছিলেন ও বক্তব্য রাখেন, খান চা বাগানের সভাপতি শ্রী বিনেশ বাড়াইক, সম্পাদক শ্রী রতি লাল বাড়াইক, সহ সভাপতি রুকিয়া বেগম, পবন বাড়াইক, নিকিল দাস, জাকির মিয়া, রাম, জৈনেস, শিলা, উষা, কল্পনা, ঈদ্রোনি, পুন্যবালা, হাবিব নগর চা বাগানের সম্পাদক নানু মিয়া, গৌরচান রাই, মো. দেলোয়ার আহমেদ, মো. উজির মিয়া, মোহাম্মদ মোহন কর্মকার, জাহানারা, জোসনা বাউরী, দিপালী গোয়ালা ছাড়াও বাগানের সকল চা শ্রমিক ও নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। বিজ্ঞপ্তি

 

আমাদের ফেইসবুক পেইজ