৭ কিলোমিটার ভেসে থাকার পর উদ্ধার পেলেন তারা

প্রকাশিত: ১১:০০ অপরাহ্ণ, আগস্ট ৩১, ২০২১

৭ কিলোমিটার ভেসে থাকার পর উদ্ধার পেলেন তারা

 

অনলাইন ডেস্ক :: রাজবাড়ীর গোয়ালন্দের পদ্মা নদীতে মঙ্গলবার দুপুরে একটি ট্রলার ডুবির ঘটনা ঘটে। এতে ট্রলারে থাকা ৩ ব্যক্তি প্রায় ৭ কিলোমিটার উত্তাল পদ্মায় ভেসে থাকার পর সুস্থভাবে উদ্ধার হয়েছেন।

মঙ্গলবার বেলা ২টার দিকে উপজেলার ছোটভাকলা ইউনিয়নের অন্তার মোড় এলাকায় এ ট্রলার ডুবির ঘটনা ঘটে। প্রায় ১ ঘণ্টা ভেসে থাকার পর ৭ কিলোমিটার ভাটিতে উজানচর ইউনিয়নের চর কর্নেশন এলাকা থেকে পুলিশ ও স্থানীয়রা তাদের উদ্ধার করেন।

উদ্ধার হওয়া ব্যক্তিরা হলেন- অন্তার মোড় এলাকার বাসিন্দা আব্দুল লতিফ খান (৭৫), মহিরুদ্দিন মণ্ডল (৫১) ও রমজান শেখ (৬৫)।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, গবাদিপশুর ঘাস সংগ্রহের জন্য তারা একটি ছোট ট্রলার নিয়ে সকালের দিকে উপজেলার দেবগ্রাম ইউনিয়নের আওতাধীন চর বেথুরী এলাকায় গিয়েছিলেন। সেখান থেকে ঘাসবোঝাই করে ফেরার পথে তীব্র স্রোত ও ঢেউয়ের আঘাতে ট্রলারটি ডুবে যায়। তবে তারা ট্রলারে থাকা ঘাসের বোঝা আঁকড়ে ধরে নদীতে ভেসে ছিলেন।

উদ্ধার হওয়ার পর ওই ৩ ব্যক্তি বলেন, তারা অতিশয় দরিদ্র লোক। কৃষিকাজ ও গবাদিপশু পালন করে জীবিকা নির্বাহ করেন। চারদিকে এখন বর্ষার পানি। গো-খাদ্যের বড়ই অভাব। তাই বাড়িতে থাকা গরু ছাগলের জন্য ঘাস কাটতে নিয়মিত উত্তাল পদ্মা পাড়ি দিয়ে চরে যেতে হয়। আজকে ঘাস নিয়ে ফেরার পথে হঠাৎ প্রচণ্ড স্রোত ও ঢেউয়ের আঘাতে তারা ট্রলারটির নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ফেললে দ্রুত ডুবে যায়। তবে বেঁচে থাকার জন্য আমরা ৩ জনে ৩টি ঘাসের বোঝা আঁকড়ে ধরি। এভাবেই স্রোতে ভাসতে ছিলাম। সেই সঙ্গে ভয় হচ্ছিল হয়তো আর বাঁচবো না। তবে আল্লাহর অশেষ রহমত ও থানার ওসি সাহেবসহ অন্যদের সহযোগিতায় আমরা সুস্থভাবেই উদ্ধার হয়েছি।

গোয়ালন্দ ঘাট থানার ওসি আব্দুল্লাহ আল তায়াবীর ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, বেলা ৩টার দিকে তিনি সঙ্গীয় ফোর্সসহ দৌলতদিয়ার ৪নং ফেরিঘাট এলাকায় অবস্থান করছিলেন। এ সময় নদীর মাঝখান দিয়ে ওই ৩ ব্যক্তি ভেসে যাওয়ার সময় হাত তুলে ইশারাসহ চিৎকার করতে থাকেন। বিষয়টি টের পেয়ে তিনি দ্রুত ৭নং ফেরিঘাট থেকে একটি জেলে নৌকা এবং ৪নং ঘাট থেকে থানার সেকেন্ড অফিসার জাকির হোসেন একটি বালুবাহী ট্রলার নিয়ে তাদের উদ্ধার অভিযানে যান।

তিনি বলেন, প্রায় আধা ঘণ্টা চেষ্টার পর ট্রলারের লোকজন ও জেলেদের আন্তরিক সহযোগিতায় আমরা ওই ৩ ব্যক্তিকে উদ্ধার করতে সক্ষম হই। এরপর পুলিশভ্যানে করে তাদের নিজ নিজ বাড়িতে পৌঁছে দেই। মৃত্যুর মুখে থাকা ৩ জন ব্যক্তিকে উদ্ধার করতে পেরে তারা সবাই মানসিকভাবে বেশ শান্তি পাচ্ছেন বলে ওসি অভিব্যক্তি প্রকাশ করেন।

সংবাদ অনুসন্ধান ক্যালেন্ডার

MonTueWedThuFriSatSun
  12345
27282930   
       
28      
       
       
       
1234567
2930     
       

আমাদের ফেইসবুক পেইজ