বন্যা মোকাবেলায় আমরা প্রস্তুত : মশিউর রহমান এনডিসি

প্রকাশিত: ২:০৪ পূর্বাহ্ণ, জুলাই ১১, ২০২০

বন্যা মোকাবেলায় আমরা প্রস্তুত : মশিউর রহমান এনডিসি

অনলাইন ডেস্ক :; মাত্র দিন-ছয়েক আগে সিলেট ও সুনামগঞ্জ পানি নামার পর ফের চোখ রাঙাচ্ছে পাহাড়ি ঢল আর ভয়াবহ বন্যা। তবে বন্যা পরিস্থিতি মোকাবেলায় প্রশাসন সার্বিকভাবে প্রস্তুত আছে বলে জানিয়েছেন সিলেট বিভাগীয় কমিশনার মশিউর রহমান এনডিসি।

শুক্রবার বিকেল ৪টায় সিলেট সদর উপজেলার খাদিমপাড়ায় ৩১ শয্যাবিশিষ্ট হাসপাতাল পরিদর্শনকালে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এ তথ্য জানান।

এ সময় বিভাগীয় কমিশনার বলেন, হবিগঞ্জ ও মৌলভীবাজার জেলায় বন্যার কোনো প্রভাব নেই। মূলত সুনামগঞ্জ জেলায় বন্যা পরিস্থিতির বেশি অবনতি দেখা গেছে। কিছুদিন আগে সুনামগঞ্জের সকল উপজেলা এবং সিলেটের ৪টি উপজেলা বন্যার পানিতে প্লাবিত হয়েছিল। এই বন্যার পানির স্থায়ীত্ব ছিলো মাত্র একদিন। একদিন পরেই আবার পানি কমতে শুরু করে। বর্তমানে বন্যা নেই। তবে আবহাওয়া অধিদপ্তর থেকে একটি পূর্বাভাস আছে যে বন্যা আবারও হতে পারে। সেক্ষেত্রে সার্বিক প্রস্তুতি রয়েছে। স্কুলগুলোতে আশ্রয় কেন্দ্র প্রস্তুত করা হয়েছে। সরকারের তরফ থেকে পর্যাপ্ত পরিমাণে ত্রাণও আমাদের দেওয়া হয়েছে। সকল উপজেলা ও ইউনিয়ন পর্যায়ে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কমিটিগুলোর সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। তারাও সার্বিকভাবে প্রস্তুত আছেন। খাদ্য সহায়তা ও উদ্ধার তৎপরতাসহ সব ধরণের পরিস্থিতি মোকাবেলায় প্রশাসন প্রস্তুত রয়েছে।

সাংবাদিকদের অপর এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘করোনাকালীন সময়ে প্রণোদনা প্রদানের ক্ষেত্রে অনেকগুলো বিষয় আছে। যেমন গার্মেন্টস শ্রমিকদের বেতনভাতা প্রদান। কিন্তু সিলেটের জন্য সেটি প্রযোজ্য না, কারণ সিলেটে গার্মেন্টস ফ্যাক্টরি নেই। হেভি ইন্ডাস্ট্রির জন্য কিছু প্রণোদনা আছে, কিন্তু সিলেটে তেমন কোনো হেভি ইন্ডাস্ট্রিও নাই। সেক্ষেত্রে সিলেটে জন্য শুধুমাত্র এসএমই ঋণ প্রযোজ্য। সেক্ষেত্রে আমরা বাংলাদেশ ব্যাংকের ডিডি মহোদয়, সকল ব্যাংকের জিএম সিলেটের ৪টি চেম্বারের নেতৃবৃন্দকে নিয়ে বসে আলোচনা করেছি। সবাই এটি নিয়ে কাজ করছেন। তার পরেও যদি কোনো সমস্যা বা অভিযোগ থাকে তাহলে আমাাদের জানাবেন, আমরা ব্যবসায়ী ও ব্যাংক কর্তৃপক্ষের সাথে আলোচনা করে সমাধানের ব্যবস্থা করব।’

এ সময় উপস্থিত ছিলেন বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয়ের সচিব লোকমান হোসেন মিয়া, সিলেটের জেলা প্রশাসক এম কাজী এমদাদুল ইসলাম, সিলেটের সিভিল সার্জন ডা. প্রেমানন্দ মন্ডল, সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মহুয়া মমতাজ প্রমুখ।