নবীগঞ্জে টিসিবির পণ্য কিনতে ভিড়, দামে সন্তোষ ক্রেতারা

প্রকাশিত: ১০:০৩ অপরাহ্ণ, মার্চ ২৫, ২০২০

নবীগঞ্জে টিসিবির পণ্য কিনতে ভিড়, দামে সন্তোষ ক্রেতারা

নবীগঞ্জ প্রতিনিধি :; করোনার সংক্রমণ রোধে নিষিদ্ধ করা হয়েছে সকল রকম জনসমাগম। বন্ধ করা হয়েছে সকল রকম সামাজিক অনুষ্ঠান। তবে এ নিষেধ অমান্য করেই ন্যায্যমূল্যের পণ্য কিনতে নবীগঞ্জে উপচেপড়া ভিড় দেখা যায় ক্রেতাদের।

বুধবার (২৫ মার্চ) নবীগঞ্জ শহরের শেরপুর রোড নতুনবাজার মোড়ে ট্রাকে করে টিসিবির পণ্য কিনতে এমন ভিড় দেখা যায়। করোনার সংক্রামণ রোধে জনসমাগম নিষিদ্ধ করা হলেও কে শুনে কার কথা। ন্যায্যমূল্যের পণ্য কিনতে অক্লান্ত চেষ্টা ক্রেতাদের।

টিসিবির ডিলাররা খোলাবাজারে ৮০ টাকা করে প্রতি লিটার তৈল, ৫০ টাকা করে চিনি ও ডাল, ৩৫ টাকা করে কেজিতে পেঁয়াজ বিক্রি করছে। বাজারের মূল্যের চেয়ে টিসিবির মূল্য কম হওয়ায় ঝুঁকি নিয়ে পণ্য কিনছেন ক্রেতারা। এরই মধ্যে ক্রেতারা অভিযোগ করেন টিসিবির পণ্য প্যাকেজ হিসাবে কিনতে হচ্ছে। ভেঙ্গে পণ্য বিক্রয় করছে না টিসিবির ডিলাররা। দুই লিটার তৈল, দুই কেজি চিনি, দুই কেজি পেঁয়াজ ৩৩০ টাকা প্যাকেজ। আর ৫ লিটার তৈল, দুই কেজি চিনি, এক কেজি ডাল ৫৫০ টাকা এরকম প্যাকেজ করে বিক্রি করা হচ্ছে পণ্য।

টিসিবির পণ্য নিতে আসা প্রাণকৃষ্ণ বিশ্বাস বলেন, ‘আমরা করোনাভাইরাস সম্পর্কে জানি। কিন্তু পণ্য তো কিনতে হবে। আমি নিজে সচেতন হলেও অন্যরা তো সচেতন হচ্ছে না।

শফিক মিয়া নামের এক ক্রেতা বলেন, ‘বাজারের জিনিসপত্রের যে দাম তাই ভিড়ের মাঝে এসেও এখানে দাম কম হওয়ায় নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিস কিনতে আসছি।’

মাহবুবুবুর রহমান নামের এক ক্রেতা বলেন, ‘আমরা নবীগঞ্জ শহরে বাজার করতে এসেছিলাম। দেখলাম দোকান থেকে অনেক কম মূল্যে এখানে ট্রাকে করে তেল, চিনি, ডাল বিক্রি হচ্ছে। তাই এখান থেকে কিনেছি।’

ক্রেতারা বলেন, তারা করোনাভাইরাস সংক্রমণ রোধে জনসমাগম নিষিদ্ধের বিষয়টি জানেন। পণ্যের দাম বেশি হওয়ায় ন্যায্যমূল্যে পণ্য পেতে ঝুঁকি নিয়েই লাইনে দাঁড়িয়েছেন তারা।

এভাবে সাশ্রয়ী মূল্যে পণ্য সরবরাহ সারা বছর থাকা দরকার। তারা যে দামে পণ্য দিচ্ছেন অবশ্যই লাভ রেখেই দিচ্ছেন। তারপরেও অনেক ঠেলা-ধাক্কার পর টিসিবির পণ্য কিনতে পেরে খুশি ক্রেতারা।

আমাদের ফেইসবুক পেইজ