বিশ্বনাথে সতীনের মামলায় কারাগারে সতীন!

প্রকাশিত: ৪:০৬ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ২, ২০২০

বিশ্বনাথে সতীনের মামলায় কারাগারে সতীন!

নিজস্ব প্রতিবেদক :

সিলেটের বিশ্বনাথে সতীনের দায়েরকৃত মামলার হাজিরা দিতে গিয়ে হাজতবাসে গেলেন মনোয়ারা বেগম (৪৫) নামের অন্য সতীন। সোমবার (৩১ আগস্ট) সকালে সিলেটের সিনিয়র জুডিস্যিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ৩য় আদালতে মনোয়ারা জামিনের আবেদন করলে, আদালত পর্যালোচনা করে জামিন নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠিয়ে দেয়। মনোয়ারা বেগম উপজেলার জানাইয়া গ্রামের আশিক আলীর ২য় স্ত্রী। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন মামলার আইনজীবি মো: খালেদ তৌফিক ইমাম। মামলা সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার জানাইয়া (মশুলা) গ্রামের আশিক আলীর দুই স্ত্রী রাহেলা বেগম ও মনোয়ারা বেগমের মধ্যে বাড়ির সম্পত্তি নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলে আসছে। এরই জের ধরে গত ২ আগস্ট দু’পক্ষের মধ্যে হামলা পাল্টা হামলা সংগঠিত হয়। এতে মহিলাসহ গুরুত্বর আহত হন উভয় পক্ষের ৬জন। এ ঘটনায় রাহেলা বেগম (৪৭) বাদী হয়ে গত ১৭ আগস্ট সতীন মনোয়ারা বেগমকে প্রধান আসামী করে সিলেটের জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ৪র্থ আদালতে মামলা দায়ের করেন, (মামলা নং-১৭, তাং-২৬-০৮-২০২০)। মামলায় অপর আসামীরা হলেন, মনোয়ারা বেগমের বোন সুলতানা বেগম (১৯), ছেলে মো. হাসান (২৪), মেয়ে নাজমা বেগম (২২)। গত সোমবার সকালে আসামীরা সিলেটের সিনিয়র জুডিস্যিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ৩য় আদালতে জামিনের জন্য হাজিরা দিতে গেলে বিজ্ঞ আদালত তিনজনের জামিন মঞ্জুর করে এবং মনোয়ারা বেগমের জামিন নামঞ্জুর করে জেল হাজতে প্রেরণ করেন।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ