“পর্যটন স্পট জাফলং নদীর পানি হারাচ্ছে স্বচ্ছতা, হয়ে উঠছে ব্যবহার-অনুপযোগী তীরবর্তী মানুষ সংকটাপন্ন”

প্রকাশিত: ২:৪৪ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১৬, ২০২০

“পর্যটন স্পট জাফলং নদীর পানি হারাচ্ছে স্বচ্ছতা, হয়ে উঠছে ব্যবহার-অনুপযোগী তীরবর্তী মানুষ সংকটাপন্ন”

 গোয়াইনঘাট প্রতিনিধিঃ জাফলং নদীর বর্তমানের যেই অবস্থা! মলমূত্র আর তেলের জন্য নদীর পানি ব্যবহার ও গোসলের জন্য অনুপযোগী হয়ে পড়েছে। তবুও এলাকাবাসী নীরব ভূমিকা পালন করছে। নদীতে ভেসে আসা তৈল এবং তৈলাক্ত পদার্থ, তার সাথে আছে ঘোলাটে পানি।নদীর তীরবর্তী প্রত্যন্ত অঞ্চলের মানুষ সকালে ঘুম থেকে উঠে নদীতে গিয়ে গোসল করে তারপর নিজের কর্মস্থলের দিকে যাত্রা করে।অন্যদিকে টিউবওয়েলের পানিতে আর্সেনিক থাকার কারনে অনেক মানুষ নদীর পানি ফুটিয়ে অথবা ফিটকারীর মাধ্যমে সেবনযোগ্য করে নিজের জীবন অতিবাহিত করছেন। কিন্তু নদীতে অতিমাত্রায় ড্রেজার,জাহাজ, কার্গো চলার কারনে পানি দূষিত এবং ঘোলাটে হচ্ছে। ফলে নদীর পানি হারাচ্ছে স্বচ্ছতা নিজস্ব স্বকীয়তা উৎকর্ষতা, হয়ে উঠছে তীরবর্তী মানুষের ব্যবহার অনুপযোগী। যার ফলে দৈনিন্দন জীবনে পানির চাহিদা মেটাতে নদী তীরবর্তী মানুষের খুবই কষ্ট হচ্ছে। হাবিবুর রহমান হাবিল,সাধারণ সম্পাদক বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সন্তান কমান্ড পূর্ব জাফলং ইউনিয়ন, সাব্বির রহমান সাজন সাধারণ সম্পাদক ছাত্রলীগ পূর্ব জাফলং ইউনিয়ন, ব্যবসায়ী রাজ্জাক আহমদ, রোবেল মাহমুদ সহ অনেকে বলেন এই সমস্যা সমাধান করার লক্ষ্যে এলাকাবাসীর ঐক্যবদ্ধতা অতি জরুরী। তারা উপজেলা প্রশাসনের নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ নাজমুস সাকিবের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন এবং বলেন গোয়াইনঘাট উপজেলায় যোগদান করার পর থেকে তিনি নিরলস ভাবে কাজ করে যাচ্ছেন তা আমাদের চোখের দেখা।এমনকি করোনা ভাইরাস যখন মহামারী আকার ধারন করেছে তখনও আপনি ঘরে বসে ছিলেন না।কাজ করে গেছেন এই উপজেলার পত্যেকটি মানুষের জন্য। এবার নিরাপদ পানির একটা সুব্যবস্থা করে দিলে আমাদের পূর্ব জাফলংয়ের নদী তীরবর্তী মানুষজনের জীবনের মানটা একটু হলেও উন্নত হবে।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ