এম.সি কলেজে ধর্ষণের ঘটনায় তীব্র নিন্দা জ্ঞাপন করলেন শাবি ছাত্রলীগ নেতৃবৃন্দ

প্রকাশিত: ১১:৫৪ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ২৬, ২০২০

এম.সি কলেজে ধর্ষণের ঘটনায় তীব্র নিন্দা জ্ঞাপন করলেন শাবি ছাত্রলীগ নেতৃবৃন্দ

শাবি প্রতিনিধিঃ সিলেটের ঐতিহ্যবাহী এম.সি কলেজের ছাত্রাবাসে দুষ্কৃতকারীদের দ্বারা সংগঠিত অত্যন্ত ঘৃণ্য ধর্ষণের ঘটনায় নিন্দা জ্ঞাপন করে প্রতিবাদ প্রকাশ করেছে শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগ।

শনিবার(২৬ সেপ্টেম্বর) সংগঠনটির উপ-দপ্তর সম্পাদক সজিবুর রহমান বিজ্ঞপ্তি প্রেরণ করেন।

বিজ্ঞপ্তিতে লেখা হয়, “এমসি কলেজের এই ধর্ষণের বিরুদ্ধে তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জ্ঞাপন করছি আমরা শাবিপ্রবি ছাত্রলীগ পরিবার। সেই সাথে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে উক্ত ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত এবং ঘটনার সাথে জড়িতদের দ্রুত গ্রেফতার করে কঠোর শাস্তির দাবি জানাচ্ছি।”

উক্ত ঘটনায় দিনজুরে সংগঠনটির শাবিপ্রবি শাখার নেতাকর্মী সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রতিবাদ জানায়।

পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক খলিলুর রহমান বলেন, এদের পরিবারের ঠিকানা সহ প্রচার করা উচিত।

জানোয়ার গুলোকে ফাঁসিতে ঝুলাতে হবে।

সমাজবিজ্ঞান অনুষদের সহ-সভাপতি মামুন শাহ বলেন, কালক্ষেপন না করে অপরাধীদের দ্রুত বিচারের আওতায় আনা হোক।

উপ দপ্তর সম্পাদক সজিবুর রহমান বলেন ধর্ষক এর কোন দল নাই, সকল ধর্ষকের দৃষ্টান্তমূলক সর্বোচ্চ শাস্তি চাই।

উপ ত্রাণ ও দুর্যোগ বিষয়ক সম্পাদক ইমরান আহমেদ বলেন এমসি কলেজ হোস্টেলে সংঘঠিত ন্যাক্কারজনক ঘটনার সাথে জড়িত সকল অপরাধীদের অতি দ্রুত গ্রেপ্তার ও সর্বোচ্ছ সাজা নিশ্চিত করতে হবে। বিশ্বাস রাখি অপরাধী যেই হোক না কেন কোন ধরনের ছাড় পাবে না …….

কার্যকরি সদস্য আশরাফ কামাল আরিফ বলেন,ওদের কোন দল নেই,ওরা কোন সমাজের প্রাণী হতে পারে না।ওদের বেঁচে থাকার অধিকারও থাকতে পারেনা।

সিলেট এমসি কলেজ ছাত্রাবাসের ধর্ষক এই কুলাঙ্গার গুলোর ফাঁসি চাই।

কার্যকরি সদস্য আব্দুল্লাহ আল রোমান বলেন, কুলাঙ্গাদের দায়ভার তাদের নিজেদেরকেই নিতে হবে। ছাত্রলীগের কর্মী হিসাবে আমরাও চাই এদের শাস্তি হোক।

আজকে যে বোনকে ধর্ষণ করেছে, কালকে আমার বোন কে করবে না, এর তো নিশ্চিতা নেই।

পাপী শুধুই পাপী।

ছাত্রলীগ নেতা মোঃতারেক হালিমী বলেন ধর্ষক যে বা যারা হোক, এই অমানুষদের সর্বোচ্চ শাস্তি চাই। রাজনৈতিক পরিচয় ব্যবহার করে কোনো ধর্ষক যাতে ধরা-ছোঁয়ার বাইরে না থাকে।

অপরাধীর পরিচয় শুধুমাত্র অপরাধী।

উল্লেখ্য, সিলেটের এমসি কলেজ হোস্টেলে স্বামীকে বেঁধে রেখে এক তরুণীকে গণধর্ষণের ঘটনা ঘটেছে। খবর পেয়ে পুলিশ তরুণী ও তার স্বামীকে উদ্ধার করেছে।তরুণীকে গুরুতর অবস্থায় সিলেট ওসমানী হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। শুক্রবার রাত ৯ টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। পরে রাত ১২.১০ মিনিটে হাসপাতালে ভর্তি করে পুলিশ।

এসএমপির গণমাধ্যম শাখার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার জ্যোতির্ময় সরকার ভিকটিমের বরাত দিয়ে জানান, গণধর্ষণের শিকার তরুণী তার স্বামীর সঙ্গে ঘুরতে গিয়েছিলেন। এমসি কলেজ প্রধান ফটকে গাড়িতে স্ত্রীকে বসিয়ে রেখে কিছু কিনতে যান স্বামী, এ সময় ৫-৬ জন দৃর্বৃত্ত তরুণীকে জোর করে নিয়ে যেতে চাইলে তার স্বামী দৌঁড়ে আসে। পরে তাকেসহ অস্ত্রের মুখে নিয়ে যায় এমসি কলেজ হোস্টেলের ৭ নম্বর ব্লকে।

সেখানে স্বামীকে একটি কক্ষে আটকে রেখে তরুণীকে গণধর্ষণ করে দুর্বৃত্তরা। জড়িতদের ধরতে অভিযান চলছে বলেও জানান এই পুলিশ কর্মকর্তা।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ