যুবদলের ৪২ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষ্যে যুক্তরাজ্য যুবদলের ভার্চ্যুয়াল আলোচনা সভা

প্রকাশিত: ১১:১৫ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ২৮, ২০২০

যুবদলের ৪২ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষ্যে যুক্তরাজ্য যুবদলের ভার্চ্যুয়াল আলোচনা সভা

এম মোস্তফা লিমন :
বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী যুবদলের ৪২ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপন উপলক্ষ্যে যুক্তরাজ্য যুবদলের তৃণমূলের নেতা কর্মীদের উদ্যোগে এক ভার্চ্যুয়াল আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। যুক্তরাজ্য যুবদলের সহ সভাপতি সুরমান খানের সভাপতিত্বে ও সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক সৈয়দ লায়েক মোস্তফার পরিচালনায় অনুষ্ঠিত এই সভার শুরুতে পবিত্র কুরআন থেকে তেলাওয়াত করেন লন্ডন মহানগর যুবদলের সাংগঠনিক সম্পাদক নুরুল হক।

সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী যুবদলের কেন্দ্রীয় সংসদের সাবেক সহ সাংগঠনিক সম্পাদক ও মৌলভীবাজার জেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক জনাব মতিন বক্স। প্রধান বক্তা হিসেবে বক্তব্য রাখেন যুক্তরাজ্য যুবদলের সাবেক নির্বাচিত সাধারণ সম্পাদক জনাব সোয়ালেহীন করিম চৌধুরী। উদ্বোধনী বক্তব্য রাখেন যুক্তরাজ্য যুবদলের অন্যতম সিনিয়র নেতা আব্দুল মুমিন চৌধুরী। বিশেষ অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন যুক্তরাজ্য যুবদলের সহ সভাপতি কবির মিয়া, যুক্তরাজ্য যুবদলের সহ সভাপতি ও লন্ডন মহানগর যুবদলের সভাপতি আব্দুল খয়ের, যুক্তরাজ্য যুবদলের সহ সাধারণ সম্পাদক শিব্বির আহমেদ সুমন, সাংস্কৃতিক সম্পাদক ফলিক আহমেদ, প্রচার সম্পাদক কলিম উদ্দিন, যুক্তরাজ্য বিএনপি নেতা রাহেল আহমেদ।

প্রধান অতিথি মতিন বক্স তার বক্তব্যে বলেন দেশ আজ এক ক্রান্তিকাল অতিক্রম করছে। ভোটারবিহীন নির্বাচনের মাধ্যমে গঠিত আওয়ামী সরকার দেশে ফ্যাসিবাদ কায়েম করেছে। গণতন্ত্রের মা দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া আজ গৃহবন্দী, আমাদের আশা আকাঙ্খার প্রতীক দেশনায়ক জনাব তারেক রহমান দেশে আসতে পারছেন না আর দেশে মুজিবিয় তান্ডবে দেশের সাধারণ জনগণ সহ কেউ নিরাপদ নয়। ফ্যাসিস্ট সরকার গুম, হত্যা, ধর্ষণ ও লুটের যে রাজত্ব কায়েম করেছে তার প্রতিরোধে ঐক্যবদ্ধ আন্দোলনের কোনো বিকল্প নেই। যুবদলের নেতা কর্মীদের পক্ষেই সামাজিক সচেতনতা তৈরী করে এমন ফ্যাসিবাদের বিরুদ্ধে রুখে দেয়া সম্ভব।

প্রধান বক্তা সোয়ালেহীন করিম চৌধুরী তার বক্তব্যে বলেন ১৯৭৮ সালের ২৭ অক্টোবর যুব, ঐক্য, প্রগতি এই মূলমন্ত্র কে সামনে রেখে শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমান যুবদল প্রতিষ্ঠা করেন। ৭২-৭৫ এর বাকশালী সরকার যখন যুবকদের দানবীয় শক্তিতে রূপান্তরিত করেছিলো এর মোকাবেলায় যুবকদের শক্তিকে কাজে লাগিয়ে সমাজ গঠনের জন্য তাদেরকে ঐক্যবদ্ধ করেছিলেন শহীদ জিয়া। তাই যুবদলকে আবার যুব ঐক্য প্রগতির মূলমন্ত্রে দিক্ষিত হয়ে সকল ধরণের ভেদাভেদ ভূলে গিয়ে দেশের প্রয়োজনে আবার ঝাপিয়ে পড়তে হবে। জনাব সোয়ালেহীন আগামীতে যুক্তরাজ্যে ত্যাগী নেতা কর্মীদের মূল্যায়ন করে বহির্বিশ্বে শক্তিশালী যুবনেতৃত্ব প্রতিষ্ঠা করার জন্য কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দের প্রতি আহ্বান জানান।

সভায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন যুক্তরাজ্য যুবদলের দারা মিয়া, জাহাঙ্গির আলম, শিপু খান, সুমন আহমেদ, শাহান খান, সাদিক রহমান, আমিনুর রহমান বাবলু, মোহাম্মদ শাহিন মিয়া, জাকির হুসেন, আতাউর রহমান, মিলাদুর রহমান লিটন, লন্ডন মহানগর যুবদলের সেক্রেটারী খালেদ জামাল, সাংগঠনিক সম্পাদক নুরুল হক, সহ সাধারণ সম্পাদক আহমেদ হুসেন, সেন্ট্রাল লন্ডন যুবদলের সভাপতি আমিরুল ইসলাম চৌধুরী সামাদ, সেক্রেটারী আমিনুল ইসলাম, সিনিয়র সহ সভাপতি শিপন চৌধুরী, সহ সভাপতি রাসেল মিয়া, সাংগঠনিক সম্পাদক মিনহাজ চৌধুরী, সিনিয়র যুগ্ম সম্পাদক মিলাদ আহমেদ রুবেল, যুগ্ম সম্পাদক আলী আহমেদ, প্রচার সম্পাদক আবু জাফর চৌধুরী, লন্ডন সিটি যুবদলের সভাপতি ইমরান আহমেদ, যুগ্ম সম্পাদক জিয়াউল হক, ওয়েস্ট মিডল্যান্ড যুবদলের সভাপতি সুহেল রহমান, সেক্রেটারী আবুল কাস চৌধুরী, ইস্ট লন্ডন যুবদলের সভাপতি আব্দুর রহমান, সেক্রেটারী রিয়াদ ইবনে হামিদ টিটু প্রমুখ।