তাহিরপুরে নিখোঁজ গৃহবধূর লাশ উদ্ধার

প্রকাশিত: ৪:৩২ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ২৫, ২০২০

তাহিরপুরে নিখোঁজ গৃহবধূর লাশ উদ্ধার

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি ::
সুনামগঞ্জের তাহিরপুরে নিখোঁজের ৩ দিনের মাথায় এক গৃহবধূর মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। আজ বুধবার (২৫ নভেম্বর) ভোরে মানিগাঁও স্কুল সংলগ্ন রাস্তার নিচ থেকে এই মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে।

গৃহবধূর নাম ফুলবানু বেগম (৩৮)। তিনি উপজেলার উত্তর বড়দল ইউনিয়নের মানিগাঁও গ্রামের আলাল উদ্দিনের স্ত্রী।

পুলিশ ও পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, গত সোমবার রাতে ফুলবানু বেগম তার ছোট ছেলের খোঁজে বাড়ি থেকে বের হন। ছেলের খোঁজে বের হয়ে তিনি আর বাড়িতে ফিরে আসেননি। গতকাল মঙ্গলবার সকালে পরিবারের লোকজন তার সন্ধানে বের হন। কিন্তু অনেক খোঁজাখুঁজি করেও তার কোনো সন্ধান পাননি তারা।

আজ বুধবার ভোরে নামাজ থেকে ফেরার পথে মুসল্লিরা দেখেন এক নারীর মরদেহ টানা-হেঁচড়া করছে কুকুর। তারা ফুলবানুর আত্মীয়-স্বজনদের খবর দেন। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে মরদেহ উদ্ধার করে।

ফুলবানুর স্বামী আলাল উদ্দিন বলেন, ‘আমার স্ত্রীকে প্রায় সময়ই গ্রামের কিছু দুষ্টু প্রকৃতির লোক কুপ্রস্তাব দিত, উত্যক্ত করত। আমার ধারণা তারাই আমার স্ত্রীকে জোরপূর্বক ধরে জঙ্গলে নিয়ে কিছু একটা করে মেরে ফেলেছে।’

এ ঘটনায় উত্তর বড়দল ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান আবুল কাসেম বলেন, ‘নিখোঁজের বিষয়টি গৃহবধূর বড় ছেলে একদিন আগে আমাকে জানিয়েছে। আমি তাদের পরামর্শ দিয়েছিলাম নিখোঁজের বিষয়টি পুলিশকে জানানোর জন্য।’

তাহিরপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আব্দুল লতিফ তরফদার লাশ উদ্ধারের বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, ‘নিখোঁজ গৃহবধূর লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য সুনামগঞ্জ হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। লাশের একটি অংশ শেয়াল বা কুকুরে খেয়ে ফেলেছে।’

এটি হত্যা না কি আত্মহত্যা এ বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে এটি হত্যা। তবে ময়নাতদন্তের রিপোর্ট হাতে পেলে বিষয়টি পরিষ্কারভাবে বলা যাবে। পুলিশ নিখোঁজ গৃহবধূর মৃত্যুর রহস্য উদঘাটনের জন্য মাঠে কাজ করছে। এ ব্যাপারে তাহিরপুর থানায় মামলার প্রস্ততি চলছে।’

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

সংবাদ অনুসন্ধান ক্যালেন্ডার

আমাদের ফেইসবুক পেইজ