ফিরে দেখা :: ২ ডিসেম্বর ২০১৩ আ’লীগ নেতা মাসুক ও আসাদ উদ্দিনের বাসায় শিবিরের বোমা হামলা

প্রকাশিত: ৫:৩৩ অপরাহ্ণ, ডিসেম্বর ২, ২০২০

ফিরে দেখা :: ২ ডিসেম্বর ২০১৩ আ’লীগ নেতা মাসুক ও আসাদ উদ্দিনের বাসায় শিবিরের বোমা হামলা

নিজস্ব প্রতিবেদক ::
২০১৩ সালের ২ ডিসেম্বর সোমবার সিলেট সার্কিট হাউস, নির্বাচন কমিশন অফিস ও টেলিভিশন অফিসের পর তৎকালীন জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ( বর্তমান জেলা মহানগর আ’লীগের সভাপতি) মাসুক উদ্দিন আহমদ ও মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক (সাবেক) আসাদ উদ্দিন আহমদের বাসায় শিবিরের বোমা হামলার ৭ বছর পূর্ণ হয়েছে। রাত পৌণে ৯ টায় সিলেট নগরীর মিরবক্সটুলা আজাদী ১০০ নম্বর বাসায় এ ঘটনা ঘটায় তারা।বোমা বিস্ফোরিত হয়ে বাসায় আগুন ধরে গেলে স্থানীয়রা দ্রুত আগুন নিভিয়ে ফেলায় বড় ধরনের ক্ষয়ক্ষতি হয়নি।মাসুক উদ্দিন আহমদ দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সিলেট-৫ আসনে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী ছিলেন। প্রত্যক্ষদর্শী ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, সোমবার রাত পৌণে ৯টার দিকে ৮-১০টি মোটরসাইকেলে করে কয়েকজন যুবক আওয়ামী লীগ নেতা মাসুক উদ্দিন আহমদ ও আসাদ উদ্দিন আহমদের বাসায় হাত বোমা ছুঁড়ে মারে।এরমধ্যে ৫টি বোমার বিস্ফোরণ ঘটালে একটি থেকে বাসায় আগুন ধরে যায়। পরে স্থানীয় লোকজন গিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। হামলাকারীরা দা দিয়ে কুপিয়ে বাসার নিচে রাখা একটি মোটরসাইকেলও ভাঙচুর করে। তৎকালীন সিলেট কোতোয়ালি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আতাউর রহমান সাংবাদিকদের জানান, আওয়ামী লীগ নেতা মাসুক উদ্দিন ও আসাদ উদ্দিনের বাসায় ৫টি ককটেলের বিস্ফোরণ ঘটিয়েছে দুর্বৃত্তরা।এসময় আগুন ধরে গেলে স্থানীয় লোকজন নিভিয়ে ফেলেন। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে।
এর পরে সিলেট জেলা ও মহানগর আওয়ামী লীগ এই ককটেল বিষ্ফোরণের ঘটনায় প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে জামাত-শিবিরকে দায়ী করে মিছিল সমাবেশ করে সিলেটজুড়ে। উল্লেখ্য, এরআগে সন্ধ্যায় সিলেট সার্কিট হাউস ও নির্বাচন অফিস বোমা হামলা এবং টেলিভিশন অফিসের সামনে বোমার বিস্ফোরণ চালায় দুর্বৃত্তরা। এ ঘটনায় নগরী জুড়ে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

সংবাদ অনুসন্ধান ক্যালেন্ডার

আমাদের ফেইসবুক পেইজ