সিলেটে কারারক্ষী সাসপেন্ড

প্রকাশিত: ১০:৫৬ পূর্বাহ্ণ, জানুয়ারি ১১, ২০২১

সিলেটে কারারক্ষী সাসপেন্ড

নিজস্ব প্রতিবেদক : সিলেট কেন্দ্রীয় কারাগার (১)’এ রুবেল মিয়া নামের এক কয়েদীর আত্মহত্যার ঘটনায় তিন সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি হয়েছে। ডিআইজি প্রিজন্সকে প্রধান করে এই কমিটি গঠন করা হয়। কমিটির অপর দুই সদস্য হলেন-হবিগঞ্জের জেলার ও মৌলভীবাজারের ডেপুটি জেলার। ইতোমধ্যে তদন্ত কমিটি ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। এদিকে কয়েদীর আত্মহত্যার ঘটনায় দায়িত্ব পালনে অবহেলার দায়ে কারারক্ষী সাইনুলকে সাসপেন্ড এবং দুজনের বিরুদ্ধে বিভাগীয় মামলা দায়ের করা হয়েছে।

তিন সদস্য বিশিষ্ট কমিটির গঠনের বিষয়টি নিশ্চিত করে ডিআইজি প্রিজন্স কামাল হোসেন বলেন, দায়িত্বে অবহেলার দায়ে সাইনুলকে সাসপেন্ড এবং অপর দুই কারারক্ষী প্রাণ গোপাল ও বদরুলের বিরুদ্ধে বিভাগীয় মামলা দায়ের করা হয়েছে। কারা অধিদপ্তর সিলেট রেঞ্জের ডিআইজি কামাল আহমদকে প্রধান করে তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে।

সূত্র জানায়, শুক্রবার সন্ধ্যার দিকে কয়েদি রুবেল মিয়া তার ব্যবহৃত কম্বল দিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা চালান। পরে তাকে উদ্ধার করে মুমূর্ষু অবস্থায় সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। রুবেল মিয়া কুমিল্লা জেলার লাকসাম এলাকার হাসেম মিয়ার পুত্র। তার কয়েদি নং- ৪০১০/এ। রুবেল ২০১৬ সাল থেকে কারাভোগ করছেন। একটি হত্যা মামলায় তার ৩০ বছরের সাজা হয়। তার বিরুদ্ধে আরেকটি মামলা চলমান রয়েছে। রুবেলের মরদেহ ময়নাতদন্ত শেষে তার স্বজনদের কাছে শনিবার হস্তান্তর করা হয়। ওই কয়েদীর গত ৪ বছর ধরে তার পরিবারের সাথে যোগাযোগ ছিল না। হতাশা থেকে ওই কয়েদী আত্মহত্যা করে থাকতে পারেন বলে ধারণা সংশ্লিষ্টদের।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

সংবাদ অনুসন্ধান ক্যালেন্ডার

আমাদের ফেইসবুক পেইজ