কোম্পানীগঞ্জে বন্ধুর মেয়েকে পর-পর ধর্ষণ,ধর্ষক গ্রেফতার

প্রকাশিত: ১০:৫৬ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ২৬, ২০২১

কোম্পানীগঞ্জে বন্ধুর মেয়েকে পর-পর ধর্ষণ,ধর্ষক গ্রেফতার

তারিকুল ইসলাম:-কোম্পানীগঞ্জের তেলিখাল গ্রামে ১৪ বছরের এক কিশোরীকে বিয়ের প্রলোভনে ধর্ষণের অভিযোগে জোয়াদ আলী (৩৮) নামের এক লম্পটকে গ্রেফতার করেছে কোম্পানীগঞ্জ থানা পুলিশ।গ্রেফতারকৃত জোয়াদ আলী উপজেলার কাঠাল বাড়ি গ্রামের আব্দুল আলীর ছেলে।মঙ্গলবার ২৬ জানুয়ারী সকাল ১১ টার সময় উপজেলার ভোলাগঞ্জ (গুচ্ছগ্রাম) থেকে পলাতক অবস্থায় তাকে গ্রেফতার করে।

লম্পট জোয়াদ আলী সর্বমোট ৪ টি বিয়ে করে।ইতোপূর্বে তার অত্যাচারে স্ত্রীরা তাকে ত্যাগ করেছে।  বর্তমানে তার দুই সন্তান রয়েছে।

ধর্ষিতা কিশোরীর পিতা সূত্রে জানা যায়,জোয়াদ আলীর সাথে তার দীর্ঘদিনের বন্ধুত্ব পূর্ণ সম্পর্ক।সে মোট ৪ টি বিয়ে করেছিল।স্ত্রীদেরকে অত্যাচার করায় তারা তালাক দিয়ে চলে গেছে।তার চরিত্র ভালো ছিল না তা আমি জানতাম।কিন্তু আমার মেয়ের সাথে এমন আচরণ করবে আমি কখনো ভাবিনি।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক স্থানীয় কয়েকজন জানান, লম্পট জোয়াদ আলী এর আগেও সে অনেক মেয়ের সর্বনাশ করেছে।কেউ লাজ-লজ্জায় মুখ খুলেনি।

কোম্পানীগঞ্জ থানার ওসি কেএম নজরুল জানান,গ্রেফতারকৃত আসামীর সাথে ধর্ষিতার চাচা-ভাতিজির সম্পর্ক ছিল।চারিত্রিক স্ফলনের কারনের তার পূর্বের স্ত্রীরা তাকে ছেড়ে চলে গেছে।মানুষের কতটুকু চারিত্রিক অধঃপতন হলে সন্তানের বয়সী মেয়েকে ধর্ষণ করতে পারে!

ধর্ষিতার পিতার অভিযোগে আসামীকে গ্রেফতার করা হয়েছে।আসামী আদালতে সোপর্দ করা হবে।ভিকটিমকে মেডিকেল টেস্ট করাতে শিগ্রই সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হবে।

আমাদের ফেইসবুক পেইজ