সিলেটে হত্যা মামলায় গালকাটা সালাউদ্দিনের স্বীকারোক্তি

প্রকাশিত: ১০:১৩ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ২০, ২০২১

সিলেটে হত্যা মামলায় গালকাটা সালাউদ্দিনের স্বীকারোক্তি

অনলাইন ডেস্ক :: সিলেট মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ গাজীপুর জেলাধীন টঙ্গী রেলওয়ে স্টেশন এলাকা থেকে হত্যা মামলার পলাতক আসামী গাল কাঁটা সালাউদ্দিন প্রকাশ ফুলন মিয়াকে (২০) গ্রেপ্তার করেছে। সে ওসমানীনগর কোনাপাড়া গ্রামের মৃত আলমাছ মিয়ার ছেলে। দীর্ঘদিন থেকে সে বিভিন্নস্থানে ভাসমান অবস্থায় বসবাস করে আসছে।

শনিবার (২০ ফেব্রুয়ারি) ভোরে প্রযুক্তির সহায়তায় পুলিশ তাকে গ্রেপ্তার করে। এরপর ওইদিন দুপুরে হত্যার দায় স্বীকার করে সিলেট মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি প্রদান করে। জবানবন্দি শেষে আদালতের বিচারক তাকে কারাগারে প্রেরণের নির্দেশ দেন।

পুলিশ সূত্র জানায়, ২০১৯ সালের ২৪ জুন গাল কাঁটা সালাউদ্দিন ভাঙারির টাকা ভাগভাটোয়ারা নিয়ে জসিম নামের এক যুবককে সিলেট রেলওয়ে স্টেশন এলাকায় ছুরিকাঘাত করে হত্যা করে। এসময় জসিমের বন্ধু চিকন আলী, ছেনু মিয়াকে মারধর করা হয় টাকার জন্য। জসিমকে ছুরিকাঘাতে হত্যা করার পর ভয়ে চিকন আলী ও ছেনু মিয়া পালিয়ে যায়। রক্তাক্ত অবস্থায় জসিমকে স্থানীয়রা উদ্ধার করে সিলেট ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করেন। পরদিন ২৫ জুন রাত ১টা ২০ মিনিটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় জসিমের মৃত্যু হয়।

বিষয়টি নিশ্চিত করেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা গোয়েন্দা পুলিশের পরিদর্শক আনোয়ারুল হোসাইন। তিনি বলেন, ভাঙারি বিক্রির টাকার ভাগ না পেয়ে গাল কাটা সালাউদ্দিন জসিম নামের এক যুবককে হত্যা করে পালিয়ে যায়। পরে পুলিশ গোপন তথ্যের ভিত্তিতে তাকে গাজীপুর জেলাধীন টঙ্গী রেলওয়ে স্টেশন এলাকা থেকে রেলওয়ে পুলিশের সহযোগীতায় গ্রেপ্তার করে। শনিবার (২০ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে তাকে সিলেট মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে হাজির করলে সে সেচ্ছায় দায় স্বীকার করে আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি প্রদান করে।

সংবাদ অনুসন্ধান ক্যালেন্ডার

আমাদের ফেইসবুক পেইজ