সিলেটে করোনা টিকার নিবন্ধনে সহায়তা করছে ছাত্র ইউনিয়ন

প্রকাশিত: ৬:২০ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ২৩, ২০২১

সিলেটে করোনা টিকার নিবন্ধনে সহায়তা করছে ছাত্র ইউনিয়ন

অনলাইন ডেস্ক
সিলেটে শ্রমজীবীসহ সব শ্রেণি-পেশার মানুষকে করোনা টিকার নিবন্ধন কার্যক্রমে সহায়তা করছে বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়ন সিলেট জেলা সংসদ।

মঙ্গলবার (২৩ ফেব্রুয়ারি) কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে নগরের কোর্ট পয়েন্টে করোনা টিকা নিবন্ধনে সাধারণ মানুষকে সহায়তা করেন ছাত্র ইউনিয়নের নেতা-কর্মীরা।

এসময় নেতৃবৃন্দ বলেন, ‘করোনা টিকা কার্যক্রমের শুরু থেকেই আমরা লক্ষ্য করছি শ্রমজীবী মানুষের কাছে টিকা পৌঁছাচ্ছে না। সরকার যে পদ্ধতিতে টিকার নিবন্ধন ব্যবস্থা করেছে তা শ্রমজীবী, দিনমজুর মানুষের জন্য দুর্বোধ্য এবং কষ্টসাধ্য। ফলে শ্রমজীবী মানুষ টিকা সেবার আওতার বাইরে রয়ে গেছেন। কিন্তু সরকার এর দায় নিচ্ছে না। এই সময়েও সরকার তার শ্রেণি চরিত্র বজায় রেখেছে। করোনা মহামারীর প্রথম দিকেও আমরা লক্ষ্য করেছি সরকার শ্রমজীবী মানুষের পাশে দাঁড়ানোর থেকে ব্যবসায়ী, সুমাজের উচ্চ শ্রেণীর মানুষের পাশে দাঁড়াতেই বেশি আগ্রহী ছিল।’

নেতৃবৃন্দ আরও বলেন, ‘টিকা প্রাপ্তি সবার অধিকার। সমাজের সর্বস্তরের মানুষকে টিকার আওতায় আনতে হবে। তাই আমরা বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়ন নিজেদের দায়িত্ব হিসেবেই শ্রমজীবী, নিম্নবিত্তের করোনা টিকার নিবন্ধনের উদ্যোগ নিয়েছি। আজ মঙ্গলবার নগরের কোর্ট পয়েন্টে এ নিবন্ধন কার্যক্রম পালিত হয়েছে। আগামীতে নগরের বিভিন্ন স্থানে এ কর্মসূচী পালিত হবে।’ এসময় নেতৃবৃন্দ, শ্রমজীবী এবং নিম্নবিত্ত মানুষকে টিকার আওতায় আনার জন্য সরকারকে বিশেষ ভূমিকা পালনের দাবি জানান।

এসময় উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়ন সিলেট জেলা সংসদের সাধারণ সম্পাদক মো. নাবিল এইচ, মহানগর সংসদের সভাপতি হাছান বক্ত চৌধুরী কাওছার, কোষাধ্যক্ষ মৌহাইমিনুল ইসলাম মাহিন, ছাত্রনেতা মিসবাউর রহমান, সন্দীপ দেব, শ্রাবণ দাস প্রমুখ।

উল্লেখ্য, করোনা মহামারির শুরুর দিকে সিলেটেসহ দেশব্যাপী হ্যান্ড স্যানিটাইজার ও খাদ্যসামগ্রী নিয়ে শ্রমজীবী মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছিল ছাত্র ইউনিয়ন। এবার শ্রমজীবীদের করোনা ভ্যাকসিন নিবন্ধনে সহায়তা করছে সংগঠনটি।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

সংবাদ অনুসন্ধান ক্যালেন্ডার

আমাদের ফেইসবুক পেইজ