মৌলভীবাজারে গণপরিবহন হয়ে ওঠেছে করোনা সংক্রমণের ভয়াবহ ক্ষেত্র ঃ ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযানে ১৮ জনকে জরিমানা

প্রকাশিত: ১:১২ অপরাহ্ণ, জুলাই ৫, ২০২০

মৌলভীবাজারে গণপরিবহন হয়ে ওঠেছে করোনা সংক্রমণের ভয়াবহ ক্ষেত্র ঃ ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযানে ১৮ জনকে জরিমানা

স্বপন দেব, মৌলভীবাজার প্রতিনিধি :: মৌলভীবাজারের কুলাউড়া উপজেলায় যাত্রীবাহি গণপরিবহনে স্বাস্থ্যবিধি না মানা ও সরকারি নির্দেশনা অমান্য করায় ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করা হয়। কুলাউড়া-মৌলভীবাজার, কুলাউড়া- সিলেটগামী গণপরিবহনে সরকারি নির্দেশনা উপেক্ষা করে অতিরিক্ত যাত্রী বহন, এক সিটে একাধিক যাত্রী পরিবহণ, ড্রাইভার, কন্ডাক্টটর, হেলপারের স¦াস্থ্য বিধি না মেনে মাক্স গলায় ঝুলিয়ে রাখা,গাড়িতে হেন্ড সেনিটাইজার ব্যবহার না করে বা হ্যান্ড গ্লাভস না পরে ভাড়া আদায় করা হচ্ছে।

এতে করোনা সংক্রমণের ঝুঁকি মারাত্মকভাবে বৃদ্ধি পাচ্ছে। এছাড়া যাত্রীরাও স্বাস্থ্যবিধির তোয়াক্কা না করে মাক্স পরিধান, শারিরীক ূরত্ব বজায় না রেখে গণপরিবহনে চলাচল করছেন। পূর্বের মতো এখনও ড্রাইভারে পাশেই ৬-৭ জন যাত্রী মাক্স ছাড়াই উভয় বসে গল্পগুজব করে বাসে চলাচল করছেন। গণপরিবহনের ড্রাইভারসহ সংশ্লিষ্টরা স্বাস্থ্যবিধি না মানায় তারা যাত্রীরেকেও তা মানতে বাধ্য করতে পারছেন না। ফলে সড়ক পথে গণপরিবহন এখন করোনা সংক্রমণের আরও ভয়াবহ ক্ষেত্র হয়ে ওঠেছে। যেসকল শর্তের উপর ভিত্তি করে সরকার গণপরিবহন চলাচলের অনুমতি দিয়েছেন, যাত্রী ভাড়া প্রায় দ্বিগুণ করেছেন, তার কোন সুফল পাচ্ছেন না সচেতন যাত্রীরা। এতে গুরুত্বপূর্ণ প্রয়োজনে গণপরিবহন ব্যবহারকারী যাত্রীদের জীবন ভয়াবহ করোনা সংক্রমণের ঝুঁকিতে পরছে।

গত মঙ্গলবার(৩০ জুন) কুলাউড়া-মৌলভীবাজার যাওয়া- আসার পথে ুটি বাস( নং- মৌলভীবাজার- জ- ০৫-০০২৫ ও বাস নং-মৌলভীবাজার- জ- ০৪-০০৬৫) যাত্রীরা ড্রাইভারসহ সংশ্লিষ্টরে মুখে মাক্স পরার অনুরোধ করলেও তারা সেই অনুরোধ মানেননি। দেড়গুণ বেশি ভাড়া নেয়ার পরও কেন স্বাস্থ্যবিধি না মেনে গাড়ি চালনা করছে- একথা বললে ওল্টো যাত্রীদের উপর ক্ষিপ্ত হয়ে বলেন, ‘আপনাদের পোষালে বাসে যাবেন নাহলে প্রাইভেট গাড়ি নিয়ে চলাচল করেন’।

এক্ষেত্রে সচেতন যাত্রীদের াবি- মৌলভীবাজার, রাজনগর,কুলাউড়া ও ফেঞ্চুগঞ্জে গণপরিবহনের যাত্রাপথে ঘনঘন ভ্রাম্যমান আালত পরিচালনা করে পরিবহন সংশ্লিষ্টদের ও অসচেতন যাত্রীদের স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে বাধ্য করতে হবে। জনস্বার্থে সংশ্লিষ্ট প্রশাসনের সুদৃষ্টি কামনা করেছেন অসহায় সচেতন যাত্রীরা।

এধরণের বিভিন্ন অভিযোগে গত বৃহস্পতিবার (২ জুলাই) বিকাল ৪টা থেকে সন্ধ্যা ৭টা পর্যন্ত চাতলগাঁও এলাকার ব্র্যাক অফিসের সামনে কুলাউড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এটিএম ফরহাদ চৌধুরী ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট এবং জেলা প্রশাসকের কার্যালয় সহকারী কমিশনার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সৈয়দ আমজাদ হোসেন এর নেতৃত্বে ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করে ১০ টি গণপরিবহনের ড্রাইভার ও যাত্রীকে মাস্ক না পরায় ১৮ জনকে ৭ হাজার ২শত টাকা জরিমানা করা হয়েছে। অভিযানে সহায়তা করেন কুলাউড়া থানার পুলিশ বাহিনী।

ভ্রাম্যমান আদালত সূত্রে জানা যায়, গণসচেতনতা সৃষ্টিতে এধরণের অভিযান অব্যাহত থাকবে।

সংবাদ অনুসন্ধান ক্যালেন্ডার

MonTueWedThuFriSatSun
  12345
20212223242526
2728293031  
       
22232425262728
2930     
       
  12345
2728     
       
28      
       
       
       
1234567
2930     
       

আমাদের ফেইসবুক পেইজ