সেফুদার আপত্তিকর বক্তব্যের কড়া জবাব দিলেন অনন্ত জলিল

প্রকাশিত: ৪:১৪ অপরাহ্ণ, জুলাই ১৯, ২০২০

সেফুদার আপত্তিকর বক্তব্যের কড়া জবাব দিলেন অনন্ত জলিল

অনলাইন ডেস্ক :;
হঠাৎ করেই আলোচনায় সোশ্যাল মিডিয়ায় আলোচিত ও বিতর্কিত মুখ অস্ট্রিয়া প্রবাসী সেফাতুল্লাহ ওরফে সেফুদা।

বিষয়টি অনন্ত জলিলের সিনেমা থেকে হিরো আলমকে বাদ দেয়া প্রসঙ্গে।

ঢাকাই সিনেমার জনপ্রিয় চিত্রনায়ক ও প্রযোজক অনন্ত জলিলের সিনেমায় কাজ করার কথা ছিল হিরো আলমের।

সেই ছবির জন্য হিরো আলমকে অগ্রিম ৫০ হাজার টাকা সাইনিং মানিও দেয়া হয়েছিল। কিন্তু পরে সেই সিনেমা থেকে বাদ দেয়ার ঘোষণা দেন অনন্ত।

এ ঘটনার পর অনন্ত জলিলকে নিয়ে আপত্তিকর ভিডিওবার্তা দেন সেফুদা।

সেফুদার এমন মন্তব্যে ক্ষুব্ধ হয়েছেন অনন্ত জলিল।

রোববার হিরো আলম ও সেফুদাকে নিয়ে পাল্টা ভিডিওবার্তা দিলেন অনন্ত।

ভিডিওবার্তার ক্যাপশনে অনন্ত লিখেছেন– হিরো আলম ও সেফুদাকে ক্ষমা করে দিলাম।

ভিডিওবার্তায় অনন্ত জলিল বলেন, আমি কেন হিরো আলমকে ছবি থেকে বাদ দিলাম। তা আপনার দেখেছেন। এর পরও ‘অনন্ত জলিল আমাকে ইউজ করেছে’ এমন কথা বলেছে হিরো আলম।

হিরো আলমের উদ্দেশে অনন্ত বলেন, ইউজ কাকে বলে তুমি কি বুঝ? তোমার পাশে যদি কোনো এডুকেটেড পারসন থাকত তা হলে তোমাকে অক্ষরে অক্ষরে বুঝিয়ে দিতে পারত ইউজ করা কাকে বলে। কেউ যদি দিনের পর দিন ব্যক্তিস্বার্থে কাজে লাগিয়ে ছুড়ে ফেলে দেয়, এটিকে ইউজ করা বলে। যদিও হিরো আলমকে আমার কোনো কাজেই লাগবে না।

এর পর সেফুদা প্রসঙ্গে হিরো আলমের উদ্দেশে এ সুপারস্টার বলেন, সেফাতুল্লাহ ওরফে সেফুদাকে তোমার শুভাকাঙ্ক্ষী। গতকাল তোমাকে ছবি থেকে বাদ দেয়া নিয়ে সেফুদা অনেক আপত্তিকর কথা বলেছে। কিন্তু তোমাকে আমি যখন ছবিতে সাইন করেছি, কই তখন তো প্রশংসা করে একটা ভিডিওবার্তা দিলেন না তিনি। যদি তিনি তোমার শুভাকাঙ্ক্ষী হয়ে থাকে, তা হলে তিনি তোমার সুখে হাসবে দুঃখে কাঁদবে। সেফুদা তো সবাইকে বলেন– অশিক্ষিত, গরিব, ছোটলোক। সেফুদা তো অনেক বড়লোক। সে তো অনেক টাকার মালিক। সে তো তোমাকে নিয়ে একটা ছবি ইনভেস্ট করল না। উনি তো সবাইকেই গালাগালি করেন। দেশের প্রধানমন্ত্রী-মন্ত্রীদের বিভিন্ন ভাষায় গালাগালি করেন।

অনন্ত বলেন, আজ সকালে আমার ওয়াইফ আমাকে একটা ভিডিওবার্তা পাঠিয়েছে। উনি ঠিক একইভাবে আমাকে অশিক্ষিত গরিব, ছোটলোক বলেছে। এবার আমি আমার বিষয়ে সেফুদা যা বলেছেন, তার কোনোটাই যে সত্য নয়, তার প্রমাণ দিই। তিনি বলেছেন– আমি অশিক্ষিত। অথচ ২০০১ সালে আমি ম্যানচেস্টার ইউনিভার্সিটি থেকে বিবিএ কমপ্লিট করি। তিনি বলেছেন, আমি গরিব। এজেআই (অনন্ত জলিল ইন্ডাস্ট্রিজ) গ্রুপ ১৯৯৬ সালে প্রতিষ্ঠিত হয়। আমাদের ফ্যামিলি বিজনেস। আমার বিজনেসের নাম। আমার ইন্ডাস্ট্রিতে ১১ হাজার লোক কাজ করে। এই কোম্পানি রান করতে প্রতি মাসে ১৭-১৮ কোটি টাকা খরচ হয়। ২০২১ সালে এখানে ১৫ হাজার লোক কাজ করবে। আর তিনি আমাকে বলেন আমি গরিব, ছোটলোক। বাংলাদেশে এই পর্যন্ত ৯ বার আমি সিআইপি হয়েছি। প্রেজেন্ট সিআইপি আমি।

এর পর সেফুদার উদ্দেশে অনন্ত জলিল বলেন, আপনি আল্লাহর কাছে তওবা করেন। আপনি আল্লাহর কাছে বলেন, হে আল্লাহ আমি মানুষের সম্পর্কে না জেনে যে কটূক্তি করেছি, তা থেকে আমাকে ক্ষমা করে দিন। আজ আমি আপনার জন্য দোয়া করলাম। আল্লাহ যেন আপনাকে ক্ষমা দেন। আপনাদের দুজনকেই আমি ক্ষমা করে দিলাম। ভালো থাকুক, সুস্থ থাকুন।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

সংবাদ অনুসন্ধান ক্যালেন্ডার

MonTueWedThuFriSatSun
    123
45678910
11121314151617
18192021222324
25262728293031
       
  12345
2728     
       
28      
       
       
       
1234567
2930     
       

আমাদের ফেইসবুক পেইজ