অসহায় শারিরীক প্রতিবন্ধীদের হাতে হুইল চেয়ার বিতরণ

প্রকাশিত: ৬:০৮ অপরাহ্ণ, জুলাই ১৯, ২০২০

অসহায় শারিরীক প্রতিবন্ধীদের হাতে হুইল চেয়ার বিতরণ

সিল-নিউজ-বিডি ডেস্ক :: ‘মানুষ মানুষের জন্য’-এই স্লোগানকে সামনে রেখে মানবিক সাহায্যের হাত আবারো বাড়িয়ে দিলেন লন্ডনের বিখ্যাত ‘রয়েল লন্ডন হসপিটাল’-এ কর্মরত ইসলামপুরের কৃতি সন্তান সুলতানা আক্তার বেবী। খাদিমপাড়া ইউনিয়ন এলাকার ১১জন অসহায় শারিরীক প্রতিবন্ধীর হাতে তুলে দেয়া হয়েছে হুইল চেয়ার। ১৯ জুলাই রবিবার দুপুরে শহরতলীর মেজরটিলায় অবস্থিত দি চাইল্ড কেয়ার মর্নিং স্কুলে এক অনাড়ম্বর অনুষ্ঠানের মধ্যদিয়ে শারীরিক প্রতিবন্ধীদের চলাচলে সহায়ক এসব হুইল চেয়ার প্রদান করা হয়।
জালালাবাদ ক্যান্টনমেন্ট পাবলিক স্কুল এন্ড কলেজের সহকারী অধ্যাপক মোহাম্মদ লাহিন উদ্দিনের পরিচালনায় এ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ৪ নং খাদিমপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এডভোকেট আফসর আহমদ, শিল্পপতি ও সমাজসেবক ইশতিয়াক আহমদ সিদ্দিকী, দি চাইল্ড কেয়ার মর্নিং স্কুলের প্রিন্সিপাল ফরিদা ইয়াসমিন প্রমুখ। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন ইসলামপুর সমাজ কল্যাণ সংস্থার সভাপতি এবং আয়োজক সুলতানা আক্তার বেবির বড় ভাই মোঃ বাহারুল ইসলাম। আয়োজনের সার্বিক সহযোগিতায় ছিল ইসলামপুর সমাজ কল্যাণ সংস্থা।
শুরুতেই আয়োজক সুলতানা আক্তার বেবীর একটি লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন দি চাইল্ড কেয়ার মর্নিং স্কুলের অন্যতম পরিচালক তোফায়েল আহমেদ তুহিন।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে ৪ নং খাদিমপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এডভোকেট আফসর আহমদ বলেন, সুলতানাকে আমি ছোটবেলা থেকেই চিনি। সে অত্যন্ত সুন্দর মনের মানুষ। আমরা ইসলামপুরের বাসিন্দা হিসেবে তাঁর জন্য গর্ববোধ করি। তিনি বিত্তবানদের এভাবে এগিয়ে আসার আহবান জানান। তিনি বলেন, এভাবে অসহায় মানুষের জন্য সাহায্যের হাত প্রসারিত করে সুলতানা আমাদের মাঝে দৃষ্টান্ত স্থাপন করল। তিনি ইউনিয়ন পরিষদের অন্তর্ভুক্ত অসহায় শারিরীক প্রতিবন্ধীদের অভিভাবকদের উদ্দেশ্য করে বলেন, সরকার এসব শারিরীক প্রতিবন্ধীদের বিভিন্ন ধরনের সহায়তা করে যাচ্ছেন। আপনারা যারা এখনো এসব সহায়তা পাচ্ছেন না, তাঁরা ইউনিয়ন পরিষদে যোগাযোগ করলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা করা যাবে।
লন্ডনে স্বপরিবারে বসবাসরত সুলতানা আক্তার বেবী এবং তাঁর সহকর্মীরা আগেও বিভিন্ন সময় আসহায়-দরিদ্র জনগোষ্ঠীর মধ্যে খাবারসামগ্রী, গৃহনির্মাণ সামগ্রী বিতরণ করেছেন। লিখিত বার্তায় সুলতানা জানান, নিজ এলাকার মানুষের জন্য কিছু করতে পেরে তিনি আনন্দিত। তিনি জানান, প্রবাস জীবন থেকে সবসময় আমরা দেশের কথা চিন্তা করি। তাই আজকের এই ক্ষুদ্র প্রয়াস। ভবিষ্যতেও তিনি এধরণের উদ্যোগ চালিয়ে যাবেন বলে ইচ্ছা প্রকাশ করেন।
সভাপতির বক্ত্যব্যে মোঃ বাহারুল ইসলাম উপস্থিত সবাইকে আন্তরিকভাবে ধন্যবাদ জানান। তিনি মনে করেন, যাদের জন্য এই আয়োজন তাদের যদি এই উপহার কাজে আসে তবেই তাদের সার্থকতা। সংক্ষিপ্ত আলোচনা অনুষ্ঠান শেষে অতিথিরা ১০জন অসহায় শারিরীক প্রতিবন্ধীর হাতে নতুন হুইল চেয়ার তুলে দেন আর একজনের বাড়িতে হুইল চেয়ার পৌঁছে দেয়া হয়।

সংবাদ অনুসন্ধান ক্যালেন্ডার

MonTueWedThuFriSatSun
    123
45678910
11121314151617
18192021222324
25262728293031
       
  12345
2728     
       
28      
       
       
       
1234567
2930     
       

আমাদের ফেইসবুক পেইজ