ক্ষুদ্র-মাঝারি ব্যবসা আন্তর্জাতিক বাজারে পৌঁছে দিতে দারাজের ‘ডিএক্সপোর্টস’

প্রকাশিত: ১০:৫২ অপরাহ্ণ, জুলাই ২২, ২০২০

ক্ষুদ্র-মাঝারি ব্যবসা আন্তর্জাতিক বাজারে পৌঁছে দিতে দারাজের ‘ডিএক্সপোর্টস’

অনলাইন ডেস্ক :;

কোভিড-১৯ মহামারীটি ব্যাপকভাবে ছড়িয়ে পড়ায় সারা দেশের অর্থনীতি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। এর ফলে সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে ক্ষুদ্র ও মাঝারি ব্যবসায়ীরা। এই সঙ্কটপূর্ণ অবস্থায় দেশের এসএমই খাতকে সহায়তার জন্য আলিবাবা গ্রুপের অঙ্গ-প্রতিষ্ঠান দারাজ বাংলাদেশ (daraz.com.bd) ‘ডিএক্সপোর্টস’ নামক একটি নতুন উদ্যোগ চালু করেছে।

আলিবাবা গ্রুপ এবং দারাজ বাংলাদেশ লিমিটেডের মধ্যকার সহযোগী সম্পর্কের ফলস্বরূপ, ডিএক্সপোর্টস প্ল্যাটফর্মের মাধ্যমে এখন বাংলাদেশের স্থানীয় বিক্রেতারা সহজেই আন্তর্জাতিক বাজাররের অ্যাক্সেস পাবে এবং বিশ্বজুড়ে কয়েক লাখ ক্রেতার সঙ্গে সংযোগ স্থাপনের একটি বিশাল সুযোগ পাবে।

ডিএক্সপোর্টস প্রোগ্রামের মাধ্যমে একজন বাংলাদেশি সেলার বা বিক্রেতা বিশ্বের বৃহত্তম অনলাইন ওয়েবসাইট আলিবাবা ডটকমের বিশেষ অ্যাক্সেস উপভোগ করতে পারবে। এই বিশেষ অ্যাক্সেসটি ব্যবহার করে স্থানীয় বিক্রেতারা দেশীয় পণ্যগুলির বিক্রয়ের জন্য আন্তর্জাতিক ক্রেতাদের সঙ্গে সরাসরি যোগাযোগ করতে পারবে। এটি রফতানির সুযোগ, সরকারি রাজস্ব আয় এবং কর্মসংস্থানের একটি নতুন দ্বার উন্মুক্ত করবে।

এই উদ্যোগটির মূল উদ্দেশ্যগুলো হল- দেশের এসএমই (ক্ষুদ্র ও মাঝারি ব্যবসা) বিভাগকে শক্তিশালী করা, আলিবাবা ডট কমের মাধ্যমে এসএমই বিভাগকে বিশ্বব্যাপী পৌঁছে দেওয়া, প্ল্যাটফর্মটিতে নিবন্ধিত ২ কোটিরও বেশি ক্রেতার সঙ্গে ব্যবসা স্থাপনের সুযোগ সৃষ্টি করা, স্থানীয়/দেশীয় পণ্যগুলোকে ব্র্যান্ডে পরিণত করা ও নতুন কর্মসংস্থান সৃষ্টির মাধ্যমে আর্থ-সামাজিক বিকাশ করা।

২২ শে জুলাই দারাজ ফেইসবুক পেইজে একটি ডিজিটাল প্রেস কনফারেন্সের মাধ্যেমে নতুন উদ্যোগটির উদ্বোধন ঘোষণা করা হয়। প্রেস কনফারেন্সে প্রধান অতিথি ছিলেন বাণিজ্যমন্ত্রী ও এক্সপোর্ট প্রোমোশন ব্যুরোর চেয়ারম্যান টিপু মুনশি। বিশেষ অতিথি ছিলেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহ্মেদ পলক ও এক্সপোর্ট প্রোমোশন ব্যুরোর ভাইস-চেয়ারম্যান এএইচএম আহসান। বিশেষ অতিথি বক্তা ছিলেন আলিবাবা ডটকমের কান্ট্রি ডিরেক্টর জনাব ফেলিক্স ইয়াং।

এ উপলক্ষ্যে দারাজ বাংলাদেশ লিমিটেডের ম্যানেজিং ডিরেক্টর সৈয়দ মোস্তাহিদল হক বলেন, আশা করছি, দেশের এই ক্রান্তিকালে দারাজের নতুন উদ্যোগটি দেশের ব্যবসা ও অর্থনীতির জন্য ইতিবাচক ফল আনতে সক্ষম হবে। শুধু তাই নয়, পাশাপাশি দারাজ বাংলাদেশ কাজ করে চলেছে দারাজ স্টোর, দারাজ ভিলেজ ও নন্দিনী প্রকল্পের মাধ্যমে উদ্যোক্তা (ই-বাণিজ্য ব্যবসায়ী) তৈরির লক্ষ্যে এবং সেই উপলক্ষ্যে প্রতিষ্ঠানটি ২০২১ সালের মধ্যে বাংলাদেশে ৫০০ কোটি টাকা বিনিয়োগ করবে।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

সংবাদ অনুসন্ধান ক্যালেন্ডার

MonTueWedThuFriSatSun
   1234
26272829   
       
  12345
2728     
       
28      
       
       
       
1234567
2930     
       

আমাদের ফেইসবুক পেইজ