করোনা টেস্ট জালিয়াতি , রিজেন্টের সাহেদের সহযোগী তরিকুলের দোষ স্বীকার

প্রকাশিত: ১১:২৬ অপরাহ্ণ, জুলাই ২৪, ২০২০

করোনা টেস্ট জালিয়াতি , রিজেন্টের সাহেদের সহযোগী তরিকুলের দোষ স্বীকার

অনলাইন ডেস্ক :;

করোনা পরীক্ষা ও চিকিৎসার নামে প্রতারণা মামলায় রিজেন্ট হাসপাতালের চেয়ারম্যান মো. সাহেদের অন্যতম সহযোগী তরিকুল ইসলাম (তারেক শিবলী) আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন।

শুক্রবার ঢাকা মহানগর হাকিম মামুনুর রশীদ ফৌজদারী কার্যবিধির ১৬৪ ধারায় আসামির এ স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি রেকর্ড করেন। জবানবন্দি রেকর্ড শেষে আসামিকে কারাগারে পাঠানো হয়।

দুই দফায় ১২ দিনের রিমান্ড শেষে আসামিকে আদালতে হাজির করে স্বীকারোক্তি রেকর্ডের আবেদন করেন মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা। আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে আদালত আসামির এ স্বীকারোক্তি রেকর্ড করেন।

এর আগে গত ৯ জুলাই ভোরে রাজধানীর নাখাল পাড়া থেকে তরিকুলকে গ্রেফতার করে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী। পরদিন প্রথম দফায় ৫ দিন এবং গত ১৬ জুলাই দ্বিতীয় দফায় ৭ দিনের রিমান্ডের আদেশ দেন আদালত।

প্রসঙ্গত, গত ৬ জুলাই রিজেন্ট হাসপাতালের উত্তরা ও মিরপুর শাখায় ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন র‌্যাবের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সারওয়ার আলম। অভিযানে ভুয়া করোনা টেস্টের রিপোর্ট, করোনা চিকিৎসার নামে রোগীদের কাছ থেকে অর্থ আদায়সহ নানা অনিয়ম উঠে আসে।

এরপর ৭ জুলাই রিজেন্ট হাসপাতালের দুটি শাখাকেই সিলগালা করা হয়। পরে রাজধানীর উত্তরা পশ্চিম থানায় মামলাটি করে র‌্যাব। মামলায় সাহেদসহ ১৭ জনকে আসামি করা হয়। এ মামলায় রিজেন্ট হাসপাতালের চেয়ারম্যান মো. সাহেদসহ মোট ১১ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এদের মধ্যে রিজেন্টের চেয়ারম্যান মো. সাহেদ ও এমডি মাসুদ পারভেজ রিমান্ডে আছেন। বাকি আসামিরা কারাগারে রয়েছেন।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

সংবাদ অনুসন্ধান ক্যালেন্ডার

MonTueWedThuFriSatSun
   1234
26272829   
       
  12345
2728     
       
28      
       
       
       
1234567
2930     
       

আমাদের ফেইসবুক পেইজ