কমলগঞ্জে চা শ্রমিকদের জীবনমান উন্নয়নে প্রধানমন্ত্রীর ৫ হাজার টাকা অনুদানের নামে ইউপি সদস্যের বিরুদ্ধে টাকা আত্মসাতের অভিযোগ

প্রকাশিত: ৯:০১ অপরাহ্ণ, জুলাই ২৫, ২০২০

কমলগঞ্জে চা শ্রমিকদের জীবনমান উন্নয়নে প্রধানমন্ত্রীর ৫ হাজার টাকা অনুদানের নামে ইউপি সদস্যের বিরুদ্ধে টাকা আত্মসাতের অভিযোগ

স্বপন দেব, মৌলভীবাজার প্রতিনিধি : মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ উপজেলার চা বাগানের চা শ্রমিকদের জীবন মান উন্নয়নে ২০১৭-২০১৮ অর্থ বছরের বরাদ্ধকৃত প্রধানমন্ত্রীর আর্থিক অনুদানের চেক চা বাগানগুলোতে পর্যাক্রমে বিতরণ চলছে। চা শ্রমিকদের মধ্যে ৫ হাজার টাকার চেক ব্যাংকে জমাদানের জন্য একটি একাউন্ট করে টাকা উত্তোলন করতে হচ্ছে বাগানের শ্রমিকরা। আর এই একাউন্ট করতে ১০টাকার পরির্বতে নানা খরচ দেখিয়ে মিরতিংগা চা বাগানে ইউপি সদস্য ধনা বাউরী উপকারভোগী চা শ্রমিকদের কাছ থেকে ১০০/২০০ টাকা আদায় করছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। তবে ইউপি সদস্য বিষয়টি অস্বীকার করেন।
জানা যায়, কমলগঞ্জ উপজেলা সমাজ সেবা অধিদপ্তরের মাধ্যমে রহিমপুর ইউনিয়নের মিরতিঙ্গা চা বাগানে চা শ্রমিকদের জীবনমান উন্নয়ন প্রকল্প আওতায় ৫ হাজার টাকা প্রধানমন্ত্রীর অনুদানের চেক ৩০৪ জন শ্রমিক মধ্যে বিতরণ করা হয়। বিতরণকৃত ৫ হাজার টাকার চেক ১০ টাকার মাধ্যমে ব্যাংক একাউন্ট করে এই টাকা উত্তোলন করে চা শ্রমিকরা। তবে অভিযোগ উঠেছে, বিভিন্ন খরচের কথা বলে বাগানের প্রায় ২ শতাধিক চা শ্রমিকদের কাছ থেকে ১০০/২০০ টাকা হারে বাগানের স্থানীয় ইউপি সদস্য ধনা বাউরী শ্রমিকদের কাছ থেকে আদায় করার অভিযোগ উঠেছে।
মিরতিংগা চা বাগানের উপকারভোগী বুধু রবিদাস, ফুলমতি রবিদাস, বাবুল রবিদাস, জয়ন্তী নায়েক, রামপ্রসাদ, ইমরান আহমদসহ বেশ কয়েকজন চা শ্রমিক জানান, তারা ৫ হাজার টাকা পেয়েছেন। তবে টাকা পেতে গিয়ে ওয়ার্ড মেম্বারকে খরচপাতি বাবত ১০০ টাকা করে দিয়েছেন। আরো একাধিক চা শ্রমিক জানান, বাগানের প্রায় অর্ধেকের কাছ থেকে ১০ টাকার পরির্বতে ১০০/২০০ টাকা আদায় করেছেন ইউপি সদস্য।
মিরতিংগা চা বাগানের পঞ্চায়েত সভাপতি মন্টু অলমিক মুঠোফোনে বলেন, বিভিন্ন খরচ বাবত ইউপি সদস্য ১০০ টাকা করে নিয়েছেন। অভিযুক্ত ইউপি সদস্য ধনা বাউরী টাকা আদায়ের অভিযোগ অস্বীকার করেছেন। চা শ্রমিকদের কাছ থেকে কোন টাকা নেয়া হয়নি। তিনি বলেন, ব্যাংকের একাউন্ট করতে ১০ টাকা লেগেছে। এটি আমার বিরুদ্ধে একটি মহলের ষড়যন্ত্র।
কমলগঞ্জ উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা প্রানেশ বর্মন মুঠোফোনে জানান, ১০ টাকা করে রাখা হয়েছে ষ্ট্যাম্প বাবত। আর কোন খরচ নয়।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

সংবাদ অনুসন্ধান ক্যালেন্ডার

MonTueWedThuFriSatSun
    123
45678910
11121314151617
18192021222324
25262728293031
       
  12345
2728     
       
28      
       
       
       
1234567
2930     
       

আমাদের ফেইসবুক পেইজ