এলাকাবাসীর সংবাদ সম্মেলন টুকেরগাঁও ও গৌরিপুর গ্রামকে সিটি করপোরেশনে অন্তুর্ভুক্তির দাবি

প্রকাশিত: ৪:৫৫ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ৫, ২০২০

এলাকাবাসীর সংবাদ সম্মেলন টুকেরগাঁও ও গৌরিপুর গ্রামকে সিটি করপোরেশনে অন্তুর্ভুক্তির দাবি

অনলাইন ডেস্ক : সিলেট সদর উপজেলার টুকেরবাজার ইউনিয়নের টুকেরগাঁও, গৌরিপুর ও নোয়াগাঁওকে সিটি করপোরেশনে অন্তুর্ভুক্তির দাবি জানিয়েছেন এলাকাবাসী। এ উপলক্ষে শনিবার সিলেট প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করে টুকেরগাঁও, গৌরিপুর ও নোয়াগাঁও (হিন্দুপাড়া) সিলেট সিটি করপোরেশনের অন্তর্ভুক্তি বাস্তবায়ন পরিষদ। এতে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন পরিষদের সদস্য সচিব ফারুক আহমদ এডভোকেট।
লিখিত বক্তব্যে বলা হয়, টুকেরবাজারের শেখপাড়া, সাহেবের গাঁও, চরুগাঁও, খালিগাঁও, হায়দরপুর, পীরপুর, শাহপুর খুররমখলা, টুকেরগাঁও ও গৌরিপুর নিয়ে একটি পঞ্চায়েত গঠিত। দীর্ঘদিন থেকে এই গ্রামগুলো একটি সামাজিক বন্ধনে আবদ্ধ রয়েছে। সম্প্রতি সিলেটের জেলা প্রশাসক স্বাক্ষরিত একটি গণবিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে এ ৯টি গ্রামের মধ্যে শুধুমাত্র টুকেরগাঁও ও গৌরিপুর গ্রামকে সিলেট সিটি করপোরেশনের অন্তর্ভুক্তি থেকে বাদ দেয়া হয়েছে। অথচ ভৌগলিক দিক থেকে টুকেরগাঁও ও গৌরিপুরের অবস্থান পূর্ব দিকে সিলেট সিটির সীমান্ত। এ দুটি গ্রামের কোনো প্রকার কৃষিজমি নেই। বরং টুকেরগাঁও গ্রামের মধ্যখানে সিটি কর্ণার নামক একটি বিশাল হাউজিং কোম্পানী ও মেঘনা গ্রæপ এন্ড কোম্পানীর বিশাল ডিপো রয়েছে। এখনো হাজার হাজার শ্রমিকের কর্মসংস্থান হয়েছে। এ দুটি গ্রাম সিলেট-সুনামগঞ্জ রোডের উত্তর ও দক্ষিণ পাশে থাকায় এবং টুকেরগাঁও বাজারের পার্শবর্তী হওয়ায় মহানগর থেকে বিচ্ছিন্ন থাকা কোনো অবস্থায় নীতিসংগত দিক থেকে মেনে নেয়া যুক্তিসংগত নয়। উক্ত দুটি গ্রামকে শুধুমাত্র ভিন্ন মৌজার অজুহাত দেখিয়ে সিটি করপোরেশনের অন্তর্ভুক্ত করতে একটি খোড়া যুক্তি উপস্থাপন করা হয়েছে। টুকেরগাঁও ও গৌরিপুর সিটি আয়তনের যৌক্তিক অবস্থানে থাকার পরও কোনো একটি অশুভ ইঙ্গিতে এ দুটি গ্রামকে সিটি করপোরেশনে অন্তুর্ভুক্তি করা হয়নি। দুটি গ্রামের মানুষের প্রতি বিমাতাসুলভ আচরণ করে ৯টি গ্রামের পঞ্চায়েতকে নৈতিকভাবে আঘাত করা হয়েছে।
লিখিত বক্তব্যে আরও বলা হয়, গত ১৭ আগস্ট সিলেটের জেলা প্রশাসকের নিকট আমাদের দাবি পরিস্কারভাবে উল্লেখ করে একটি আবেদন দাখিল করা হয়েছে। যা বিবেচনাধীন অবস্থায় আছে। এছাড়া গত ২৮ আগস্ট বঞ্চিত এলাকাবাসী সিটি করপোরেশনে অন্তর্ভুক্তির দাবিতে স্থানীয় টুকেরবাজারে মানববন্ধন করেছেন।
সংবাদ সম্মেলনে বলা হয়, এলাকাবাসীর ন্যায্য দাবি টুকেরগাঁও, গৌরিপুর ও হিন্দুপাড়া নোয়াগাঁওকে সিটি করপোরেশনের অন্তর্ভুক্ত করা। সেই সাথে ঐতিহ্যবাসহী ৯টি গ্রামের সমন্বয়ে সিলেট সিটি করপোরেশনের নতুন একটি ওয়ার্ড গঠন করা। এ সময় উপস্থিত ছিলেন পরিষদের আহবায়ক আবু ঈছা, হাজী জালাল উদ্দিন, অধ্যাপক শফিকুর রহমান, আফসা মিয়া, এনামুল হোসেন মেম্বার, গিয়াস উদ্দিন মেম্বার, আব্দুল মালেক মেম্বার, কাজী জুনায়েদ আহমদ, মাস্টার আব্দুল করিম, ডাক্তার শিহাব উদ্দিন, আলতাফ হোসেন সুমন, বদরুল ইসলাম, শাহাব উদ্দিন প্রমুখ।

সংবাদ অনুসন্ধান ক্যালেন্ডার

MonTueWedThuFriSatSun
1234567
15161718192021
22232425262728
293031    
       
22232425262728
2930     
       
  12345
2728     
       
28      
       
       
       
1234567
2930     
       

আমাদের ফেইসবুক পেইজ