১১ সেপ্টেম্বরে নিহতদের স্মরণ এবার ভিন্নভাবে

প্রকাশিত: ৪:২৯ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১১, ২০২০

১১ সেপ্টেম্বরে নিহতদের স্মরণ এবার ভিন্নভাবে

অনলাইন ডেস্ক :

মার্কিন ইতিহাসের সবচেয়ে ভয়াবহ হামলার ঘটনাটি ঘটেছে ২০০১ সালের ১১ সেপ্টেম্বর। এদিন দেশটির নিউইয়র্কে বিশ্ব বাণিজ্য কেন্দ্র, ওয়াশিংটনে মার্কিন প্রতিরক্ষা সদরদফতর পেন্টাগনে হামলা চালিয়েছিল জঙ্গি সংগঠন আল-কায়েদা।

সেই হামলায় প্রাণ হারিয়েছিলেন প্রায় তিন হাজার মানুষ। আর আহত হয়েছিলেন ছয় হাজারের বেশি। এ ছাড়া অন্তত এক হাজার কোটি মার্কিন ডলার ভৌত অবকাঠামো এবং সম্পদ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছিল সেই দিন।- খবর এনডিটিভির

এই হামলায় নিহত ব্যক্তিদের স্মরণে একাধিক স্মৃতির মিনার নির্মাণ করা হয়েছে যুক্তরাষ্ট্রে। এর মধ্যে অন্যতম নিউইয়র্কের ন্যাশনাল সেপ্টেম্বর ১১ মেমোরিয়াল অ্যান্ড মিউজিয়াম।

রয়েছে পেনসিলভানিয়ার ফ্লাইট ৯৩ ন্যাশনাল মেমোরিয়াল এবং ভার্জিনিয়ার পেন্টাগন মেমোরিয়াল। প্রতিবছরই এই স্মৃতির মিনারগুলোয় দিনটি স্মরণ করা হয়। বেশ আয়োজনও হয়ে থাকে।

কিন্তু গত ১৮ বছরের তুলায় এবারের বাস্তবতা বেশ ভিন্ন। করোনাভাইরাসের মহামারি ব্যাপক প্রভাব ফেলেছে এ আয়োজনে।

আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমগুলোর খবরে বলা হয়েছে, যথাসম্ভব ভিড় এড়ানোর চেষ্টা রয়েছে এই স্মরণ আয়োজনে। এরপরও যারা সেখানে একত্র হবেন, তারা যাতে করোনায় আক্রান্ত না হন, সেই চেষ্টা করবে কর্তৃপক্ষ।

ওয়ার্ল্ড ট্রেড সেন্টারে নিহত ব্যক্তিদের স্মরণে প্রতিবছর দুটি আলোর কলাম প্রদর্শন করা হয় নিউইয়র্কে। কিন্তু এবার তা হচ্ছে না। কারণ কর্মীদের করোনার ঝুঁকি। এই আলোকসজ্জাকে বলা হয় ট্রিবিউট ইন লাইট। ৯৭ কিলোমিটার দূরে থেকে দেখা যায় এর আলো।

এদিকে প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ও প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে তার ডেমোক্র্যাট প্রতিদ্বন্দ্বী জো বাইডেন—দুজনই একই স্থানে শ্রদ্ধা নিবেদন করবেন।

পেনসিলভানিয়ার যেখানে হাইজ্যাক করা উড়োজাহাজ বিধ্বস্ত হয়েছিল, সেখানে শ্রদ্ধা নিবেদন করবেন তারা।

সেদিন যা ঘটেছিল

• ১৯ আল-কায়েদা সন্ত্রাসী সকাল ৮টা থেকে ৯টার মধ্যে চারটি মার্কিন যাত্রীবাহী বিমান ছিনতাই করে।

• তাদের মধ্যে দুটি ম্যানহাটনের বিশ্ব বাণিজ্য কেন্দ্রের টুইন টাওয়ারে বিধ্বস্ত হয়েছে।

• তৃতীয় বিমানটি ভার্জিনিয়ার পেন্টাগনে বিধ্বস্ত হয়। পেন্টাগন হচ্ছে মার্কিন প্রতিরক্ষা দফতরের প্রধান কার্যালয়।

• আর যাত্রীদের প্রতিরোধের মুখে চতুর্থ বিমানটি পেনসিলভানিয়ার একটি মাঠে গিয়ে বিধ্বস্ত হয়েছে।

• মাত্র দুই ঘণ্টার মধ্যে বিশ্ব বাণিজ্য কেন্দ্রে দুটি ১১০-তলা টাওয়ার ধসে পড়ে। টুইন টাওয়ারের ধ্বংসস্তূপে কমপ্লেক্সের অন্যান্য ভবনগুলোও ভেঙে পড়ে।

• বিশ্ব বাণিজ্য কেন্দ্রের জায়গাটি পরিচ্ছন্নতার কাজ ২০০২ সালের মে মাসে শেষ করা হয়। আর এক বছরের মধ্যে পেন্টাগনের ভবনের মেরামতের কাজ শেষ হয়।

• ৯/১১ হামলার তদন্তের সংকেত-নাম ‘পেন্টবোম’। যেটা এফবিআইয়ের এ যাবতকালের সবচেয়ে বড় তদন্ত ছিল।

• এফবিআইয়ের অর্ধেকেরও বেশি কর্মী হামলাকারী ও তাদের সমর্থকদের শনাক্ত করতে কাজ করেন।

সংবাদ অনুসন্ধান ক্যালেন্ডার

MonTueWedThuFriSatSun
1234567
15161718192021
22232425262728
293031    
       
22232425262728
2930     
       
  12345
2728     
       
28      
       
       
       
1234567
2930     
       

আমাদের ফেইসবুক পেইজ